kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

বিচ্ছিন্ন সহিংসতায় প্রথম দফার ভোট

নিহত ২, নানা অভিযোগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



বিচ্ছিন্ন সহিংসতায় প্রথম দফার ভোট

দু-একটি জায়গায় বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষ-সহিংসতা, দুজন নিহত, হামলা, ইভিএম ভাঙচুর, ইভিএমের যান্ত্রিক ত্রুটি, ভোটগ্রহণে বিলম্ব এবং বিরোধীদের নানা অভিযোগের মধ্য দিয়ে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফা ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দেশজুড়ে কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থা ও হাই অ্যালার্ট (উচ্চ সতর্কতা) জারির মধ্য দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার ২০টি রাজ্যে লোকসভার ৯১টি আসনে ভোট গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে অন্ধ্র প্রদেশে দুই দলের সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়।

ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের এ নির্বাচনে সাত দফায় ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। গতকাল সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হয়। দ্বিতীয় ধাপের ভোট গ্রহণ করা হবে আগামী ১৮ মে। প্রায় দেড় মাসব্যাপী নির্বাচন শেষ হবে আগামী ১৯ মে। ফল ঘোষণা করা হবে ২৩ মে। লোকসভার ৫৪৫টি আসনের মধ্যে ভোট হচ্ছে ৫৪৩টিতে। বাকি দুটি আসন ভারতের অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান সম্প্রদায়ের জন্য সংরক্ষিত? তাদের দুই প্রতিনিধি ঠিক করবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি? সরকার গঠন করতে লাগবে ২৭২টি আসন। এবারের নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ৯০ কোটি। প্রথম দফা ভোটে প্রার্থী ছিলেন এক হাজার ২৭৯ জন।

নির্বাচন সামনে রেখে বেকারত্ব ও বিতর্কিত অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার জন্য বিজেপি সরকার সমালোচনায় বিদ্ধ হলেও দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমগুলো  বলছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জনপ্রিয়তা এখনো অব্যাহত আছে প্রচারে জাতীয়তাবাদ ও নিরাপত্তা ইস্যুকে কাজে লাগানোর কারণে। তবে কংগ্রেসের সঙ্গে এবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে।

প্রচারযুদ্ধ : গতকাল ভোর হতেই টুইটারে প্রচারযুদ্ধে নেমে পড়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। রাহুল গান্ধী টুইটারে ভোটারদের উদ্দেশ করে লেখেন, ‘আপনারা ভারতের প্রাণ রক্ষায় ভোট দিন।’ টুইটারে মোদি বলেন, ‘আপনারা আপনাদের অংশীদারি প্রয়োগ করুন।’ এ ছাড়া গতকাল আসামের শিলচরে পরবর্তী ধাপের নির্বাচনী প্রচারের এক সমাবেশে মোদি বলেন, ‘আমি মোদি সরকারের বিশাল জয়যাত্রার বার্তা পাচ্ছি।’

যে ২০ রাজ্যে ভোট : গতকাল অন্ধ্র প্রদেশ, অরুণাচল প্রদেশ, আসাম, বিহার, ছত্তিশগড়, জম্মু ও কাশ্মীর, মহারাষ্ট্র, মণিপুর, মেঘালয়, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, ওড়িশা, সিকিম, তেলেঙ্গানা, ত্রিপুরা, উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, পশ্চিমবঙ্গ, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ এবং লক্ষদ্বীপে ভোট গ্রহণ করা হয়।

সহিংসতা : প্রথম দিনের ভোটে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে অন্ধ্র প্রদেশে। এ রাজ্যে লোকসভার ২৫টি আসনের পাশাপাশি রাজ্য বিধানসভার ১৭৫টি আসনেও গতকাল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল রাজ্যটির তাডিপাত্রী ভোটকেন্দ্রের বাইরে তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি) ও ওয়াইএসআর কংগ্রেস পার্টির সমর্থকদের মধ্যে ইভিএম ত্রুটি নিয়ে উত্তেজনা ছড়ায়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে টিডিপির এক নেতা ও ওয়াইএসআরের এক কর্মী নিহত হয়। এ ছাড়া রাজ্যের ইলুরু শহরে ওয়াইএসআর কংগ্রেসের এক নেতার ওপর আক্রমণের অভিযোগ এসেছে টিডিপি কর্মীদের বিরুদ্ধে।

সহিংসতার ঘটনা ঘটে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেও। গতকাল এ রাজ্যের দুটি আসন কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে ভোট হয়। সকালে ভোট চলার মধ্যেই কোচবিহারের দিনহাটায় একটি বুথে ঢুকে ইভিএম মেশিন ভাঙচুরের ঘটনায় উত্তেজনা দেখা দেয়। এ ঘটনায় বিজেপি-তৃণমূল একে অন্যকে দোষারোপ করেছে। কোচবিহারে ভোটে নিয়োজিত আধাসামরিক বাহিনী বিএসএফের বিরুদ্ধে ভোটে প্রভাব খাটানোর অভিযোগ তোলে তৃণমূল কংগ্রেস।

ছত্তিশগড় রাজ্যে মাওবাদী বিদ্রোহীদের হামলা এবং মহারাষ্ট্রে একটি ভোটকেন্দ্রের বাইরে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তবে এ দুই রাজ্যের কোথাও ভোটে বিঘ্ন কিংবা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। সন্ধ্যায় ভোটগ্রহণ শেষে ফেরার পথে মহারাষ্ট্রের গাদচিরোলিতে মাওবাদী বিদ্রোহী ও পুলিশের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়। জম্মু ও কাশ্মীরে ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি) ও পিপলস কনফারেন্স (পিসি) পার্টির সমর্থকদের মধ্যে একটি কেন্দ্রে সংঘর্ষে চারজন আহত হয়। উত্তর প্রদেশের কৈরানায় কোনো ধরনের কাগজপত্র ছাড়াই জোরপূর্বক ভোট দেওয়ার চেষ্টা করলে ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে বিএসএফ।

ভোটের হার : এনডিটিভি জানিয়েছে, গতকাল বিকেল ৫টা পর্যন্ত রাজ্যগুলোর আসনগুলোতে ৫০ থেকে সর্বোচ্চ ৮১ শতাংশ পর্যন্ত ভোট পড়েছে। এর মধ্যে ত্রিপুরায় ভোট পড়ে সর্বোচ্চ ৮১.২৩ শতাংশ।

অনিয়ম ও পক্ষপাতের অভিযোগ : গতকাল দিল্লিভিত্তিক দল আম আদমি পার্টির (এএপি) প্রধান ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল অভিযোগ করেছেন, নির্বাচনে নজিরবিহীনভাবে বিজেপিবিরোধী অসংখ্য ভোটারের নাম তালিকা থেকে মুছে ফেলা হয়েছে। গতকাল সকালে টুইটারে তিনি কয়েকজন ভোটারের নামসহ এই অভিযোগ করেন।

আসামের করিমগঞ্জ জেলার রিটার্নিং অফিসার ফণীভূষণ রায়কে গাফিলতি ও অনিয়মের অভিযোগে প্রত্যাহার করে নির্বাচন কমিশন। তিনি করিমগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসকও। ত্রিপুরায় ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে ৪৬০টি কেন্দ্রে পুনরায় ভোটের দাবি জানিয়েছে সিপিএম।

ইভিএম নিয়ে অভিযোগ : অন্ধ প্রদেশের বিভিন্ন আসনের ভোটকেন্দ্রের ইলেকট্রনিক ভোটার মেশিনে (ইভিএম) ত্রুটির কারণে ভোটগ্রহণে দেরি হয়। এমনকি প্রধান নির্বাচন কমিশনার গোপাল কৃষ্ণ দিওভেদিও ভোট দিতে গিয়ে এ সমস্যায় পড়েন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নাইডু রাজ্যের বেশ কিছু ভোটকেন্দ্রে পুনর্নির্বাচনের দাবি তোলেন। সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি।

মন্তব্য