kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রিমিক্স সংস্কৃতিকে ‘বিকৃত’ বললেন এ আর রহমান

বিনোদন ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১১:৩৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রিমিক্স সংস্কৃতিকে ‘বিকৃত’ বললেন এ আর রহমান

কিংবদন্তি সুরকার ও সঙ্গীতশিল্পী এ আর রহমান

রিমিক্স সংস্কৃতির প্রতি বিরক্তি প্রকাশ করেছেন ভারতের কিংবদন্তি সুরকার ও সংগীতশিল্পী এ আর রহমান। রিমিক্স সংস্কৃতিকে ‘বিকৃত’ মনে করছেন এই সুরকার, এমনটাই জানালেন তিনি।

গত কয়েক বছরে অনেক আইকনিক গান পুনরায় তৈরি করা হয়েছে, যার বেশির ভাগই শ্রোতাদের হতাশ করেছ। যারা আসল সংস্করণটি পছন্দ করেন তারা রিমিক্স সংস্করণ নিয়ে অসন্তুষ্ট।

বিজ্ঞাপন

রিমিক্স নিয়ে ইন্ড্রাস্টিতে ভক্ত-অনুরাগীদের পাশাপাশি তারকাদেরও অসন্তোষ রয়েছে। সর্বশেষে, ফাল্গুনী পাঠকের ১৯৯৯ সালের শ্রোতাপ্রিয় গান ‘ম্যায়নে পায়েল হ্যায় ছানকাই’ নতুন সংস্করণে তৈরি করেছেন নেহা কাক্কার। গানটি প্রকাশের পরপরই এটির মূল গায়িকা ফাল্গুনী পাঠক দৃঢ় প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন এবং বলেছেন, নতুন সংস্করণ আসলটিকে ‘নষ্ট’ করেছে। এর পর থেকেই রিমিক্স সংস্কৃতি নিয়ে বেশ সমালোচনা শুরু হয়েছে বলিউডে।

 এ আর রহমান

সম্প্রতি ভারতের সংগীত জগতের অন্যতম স্তম্ভ হিসেবে পরিচিত এ আর রহমান বলেছেন, তিনি রিমিক্স সংস্কৃতি পছন্দ করেন না এবং অন্যের কাজ ব্যবহার করার বিষয়ে তিনি নিজেও খুব সতর্ক থাকেন।

অন্য সংগীতশিল্পীরা তাঁর সুর রিমিক্স করছে, সে বিষয়ে তাঁর মতামত জানতে চাইলে এ আর রহমান ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডেকে বলেন, ‘আমি যত দেখি, ততই এটি বিকৃত মনে হয়। সুরকারের উদ্দেশ্য বিকৃত হয়ে যায়। অন্যের কাজ নেওয়ার ব্যাপারে আমি খুব সতর্ক। এসব বিষয়ে আপনাকে শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। আমি মনে করি এটি একটি ধূসর এলাকা, যা আমাদের নিজের মতো করে সাজাতে হবে। নিজেদের সুরে রঙিন করতে হবে। ’

এই গুণী সুরকারকে যখন জিজ্ঞেস করা হয় যে তিনি কিভাবে প্রযোজক এবং পরিচালকদের মোকাবেলা করেন, যখন তারা তাঁর নিজের সুরগুলোকে রিমিক্স করার এবং আধুনিক দিনের স্পর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন? উত্তরে এর আর রহমান বলেন, ‘সেদিন আমি ও মণি রত্নম আমাদের নতুন চলচ্চিত্রের তেলেগু মিউজিক লঞ্চ করেছি এবং প্রযোজকরা আমাদের পুরনো স্মৃতি মনে করিয়ে বলেছিলেন, আপনাদের প্রতিটি গান এখনো তাজা শোনাচ্ছে। এর কারণ হচ্ছে এগুলো সমস্ত ডিজিটাল মাস্টারিংয়ে করা হয়েছে৷ এগুলোর ইতিমধ্যে সেই গুণমান রয়েছে এবং সবাই প্রশংসা করছে। সুতরাং যদি আমার এটি করার প্রয়োজন হয় তবে আমাকে এটি পুনরায় তৈরি করতে হবে। অবশ্যই লোকেরা রিমিক্স করার ক্ষেত্রে অনুমতি নেয় তবে আপনি সাম্প্রতিক কিছু নিতে এবং এটি পুনরায় তৈরি করতে পারবেন না। এটা অদ্ভুত লাগে। বিকৃত লাগে। ’

এ আর রহমানের সংগীতে আসন্ন চলচ্চিত্র ‘পোন্নিয়িন সেলভান’-এর অ্যালবামে পাঁচটি গান রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে পোন্নি নদী, দেবরালান আতম এবং আলাইকাদল। সিনেমাটি ৩০ সেপ্টেম্বর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। এর সিক্যুয়েল আসবে ২০২৩ সালে।

সূত্র : হিন্দুস্তান এক্সপ্রেস



সাতদিনের সেরা