kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১০ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৮ সফর ১৪৪৪

দেশে ফিরেই শাকিব বললেন ‘এই ভালোবাসা উপেক্ষা করা যায় না’

বিনোদন প্রতিবেদক   

১৭ আগস্ট, ২০২২ ১৪:৩৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দেশে ফিরেই শাকিব বললেন ‘এই ভালোবাসা উপেক্ষা করা যায় না’

বিমানবন্দরে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলছে শাকিব

দেশে ফিরেছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান। আজ দুপুর ১২টা ৩৮ মিনিতে দেশের মাটিতে পা রাখেন। বিমানবন্দর থেকে বের হয়েই গণমাধ্যমের মুখোমুখি হোন এ অভিনেতা। গণমাধ্যমকর্মীরাও তাকে শুভেচ্ছা জানান।

বিজ্ঞাপন

 

পাশেই শত শত ভক্তের উপস্থিতিতে মুগ্ধ হোন দেশসেরা এই নায়ক। সবার দিকে তাকিয়ে বললেন, ‘এই ৯ মাস ভক্তদের ভালোবাসা মিস করেছি। এই ভালোবাসা উপেক্ষা করা যায় না। ’

দীর্ঘদিন পর দেশে ফেরার বিষয়ে প্রশ্ন করলে শাকিব বলেন, ‘এটা আমারই দেশ। আমি আমার দেশের মানুষের ভালোবাসায় মুগ্ধ, অভিভূত। ’

শাকিব খানকে বহির্গমন পথ থেকে বের হতে দেখেই ভক্তরা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন। বিপুলসংখ্যক ভক্তের উপস্থিতির কারণে আগে থেকে প্রস্তুত ছিল আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। শাকিবকে বরণ করতে সকাল থেকে বিমানবন্দর এলাকায় ভিড় জমতে শুরু করে। সমবেত হতে শুরু করেন ভক্তরা।

দুপুর সোয়া ২টা পর্যন্তও শাকিব খান বিমানবন্দরেই অবস্থান করেন। এর আগে ধাপে ধাপে ভক্তদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। দূর থেকে সমবেত ভক্তদের উদ্দেশে হাত নেড়ে অভিবাদনের জবাব দেন।  

বিমানবন্দর এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কয়েক হাজার ভক্ত সেখানে সমবেত হয়েছেন।  মিরপুর থেকে আরিয়ান, আরিফ, রায়হান, মাসুম সবাই সংঘবদ্ধভাবে এসেছেন। জানালেন প্রিয় নায়ককে বরণ করতে এসেছেন তারা। এমন ছোট ছোট অনেক দল এসেছে শাকিব খানকে বরণ করতে। শাকিবের দেশে ফেরা নিয়ে বিমানবন্দরে ভক্তরা সমবেত হবে তা আগে জানা গিয়েছিল।   

এর আগে শাকিব খানের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছিল, ইতোমধ্যে দুই হাজার ভক্ত বিমানবন্দরে উপস্থিত হবে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে যেভাবে ভক্তরা আগ্রহ দেখাচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে, সংখ্যা আরো বাড়বে বলেই অভিমত সূত্রের।    

সূত্রটি কালের কণ্ঠকে বলেছিল, দেশীয় চলচ্চিত্রের উৎকর্ষ বৃদ্ধি পেয়েছে। এখানে শাকিব খানের অনেক করণীয় রয়েছে। ভক্তরা তাই প্রিয় নায়কের কাছ থেকে আগামীর পরিকল্পনা শুনতে চায়। যার ফলে সবাই সংঘবদ্ধ হচ্ছে। কয়েক হাজার ভক্ত সমবেত হবে।

গতকাল যুক্তরাষ্ট্রে ৯ মাস থাকার অভিজ্ঞতার আলোকে শাকিব বলেন, এই ৯টা মাস ছিল অনেকটা অদৃশ্য শেকলে বাঁধা পড়ে থাকা জীবনের মতো। খেয়াল করেছি, মহান ব্যক্তিরা যখন বড় কিছু করেন, তার আগে এমন বিচ্ছিন্ন থাকেন! তাঁরা যখনই নতুন উপলব্ধি নিয়ে আবার শুরু করেন তখনই তাঁদের সকাল। দূরদেশে এই সময়ে অনেককে পেয়েছি, যারা আমাকে তাদের পরিবারের মানুষ ভেবে আপন করে নিয়েছে, সাপোর্ট দিয়েছে মানসিকভাবে।   

মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে উড়াল দেন শাকিব খান।



সাতদিনের সেরা