kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

শিল্পকলার টয়লেটের ভেতরে নিস্তেজ হয়ে পড়ে ছিলেন শহিদুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ১৭:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিল্পকলার টয়লেটের ভেতরে নিস্তেজ হয়ে পড়ে ছিলেন শহিদুল

মো. শহিদুল ইসলাম

জাতীয় নাট্যশালার শিল্পকলা একাডেমির এক উপপরিচালকের হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় অর্থ, হিসাব ও পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক (চলতি দায়িত্ব) মো. শহিদুল ইসলাম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দায়িত্বরত অবস্থায় মারা যান। আজ রবিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ।

তিনি জানান, পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা এক ব্যক্তিকে জাতীয় নাট্যশালার বাথরুমে পড়ে থাকতে দেখেন।

বিজ্ঞাপন

দরজা ভেঙে উদ্ধারের পর দেখা যায় তিনি একাডেমির উপপরিচালক শহিদুল। পরে দ্রুত তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হলে, জানা যায় আগেই তিনি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন।

সূত্র জানায়, শহিদুল কালচারাল অফিসার হিসেবে শিল্পকলা একাডেমিতে নিয়োগ পান। পরে অর্থ, হিসাব ও পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হয় তাকে।

জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ বলেন, শনিবার বিকেলে নাট্যশালার সেমিনারকক্ষে শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ‘নাট্য রচনা বিষয়ক ভাবনা বিনিময় কর্মসভা’র সমাপনী আনুষ্ঠানিকতা ছিল। সেই আয়োজন শেষ করে এক ফাঁকে ৩ নম্বর মহড়া কক্ষের পাশের টয়লেটে যান শহিদুল। বেশ কিছু সময় ধরে টয়লেটের দরজা বন্ধ এবং ভেতর থেকে পানি আসছে দেখে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা দরজায় টোকা দেন। কিন্তু ভেতর থেকে সাড়া না পেয়ে ওপর দিয়ে উঁকি দিয়ে দেখেন ভেতরে কেউ একজন নিস্তেজ হয়ে পড়ে আছেন। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

গতকাল শনিবার রাত ১১টার দিকে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শহিদুলের প্রথম জানাজার পর মরদেহ সিরাজগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়। সেখানে আজ রবিবার সকাল ১০টায় দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক নিশিবয়রা কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।

পরিবার সূত্র জানায়, শহিদুলের স্কুলপড়ুয়া এক কন্যাসন্তান রয়েছে। তিনিই ছিলেন পরিবারের একমাত্র অভিভাবক।



সাতদিনের সেরা