kalerkantho

শুক্রবার । ১২ আগস্ট ২০২২ । ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৩ মহররম ১৪৪৪

আমি কোনো স্টার-সুপারস্টার নই; একজন সাধারণ মানুষ : নিশো

বিনোদন প্রতিবেদক   

১ জুলাই, ২০২২ ১৩:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমি কোনো স্টার-সুপারস্টার নই; একজন সাধারণ মানুষ : নিশো

আফরান নিশো

‘আমি কোনো স্টার-সুপারস্টার নই; একজন সাধারণ মানুষ। মানবিক মানুষ। আমার সঙ্গে যাঁরা মেশেন, তাঁরা জানেন- সবার সঙ্গে একইভাবে মিশি আমি। তবে আমি কিছু করে যেতে চাই, যা সবাই মনে রাখবে।

বিজ্ঞাপন

আমার বিশ্বাস, এই তাড়নাটা সবার মধ্যেই আছে। ’

ভারতীয় ওয়েব প্ল্যাটফরমে একটি ওয়েব সিরিজ প্রচারিত হচ্ছে। এতে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো। আর সে জন্যই গণমাধ্যমকর্মীদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। সম্প্রতি রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠান নিজের সম্পর্কে এমন অকপটে বললেন সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশো।

নাটক বা ওয়েব সিরিজে তুমুল জনপ্রিয় হলেও সিনেমায় দেখা যায় না তাঁকে। তবে এবার হয়তো সত্যি বড় পর্দায় দেখা যেতে পারে। অন্তত নিশো তা-ই বলছেন। জানালেন, সিনেমার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কী ধরনের প্রস্তুতি? নিশো বললেন, ‘এবার সত্যি সত্যিই আমাকে দেখা যাবে সিনেমায়। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি গল্প রয়েছে আমার কাছে। কয়েকটি পছন্দও হয়েছে। সিনেমার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। এরই মধ্যে চরিত্রের জন্য বডি ট্রান্সফরমেশন শুরু করছি। ওজন কমাচ্ছি। আশা করি, এ বছরের যেকোনো সময় আমার ভক্তদের সিনেমার সুখবরটা দিতে পারব। ’

নাটকের কাজে এখন একেবারে কম সময় দিচ্ছেন। এর কারণ তিনি রয়েছেন অভিনয় নিয়ে। আর অভিনয় করার জায়গা যেখানে রয়েছে, সেটাকে তিনি বেছে নিচ্ছেন। নিশো বলেন, আমি আগেও বলেছি, এখনও বলছি ওটিটি, সিনেমা হল, ইউটিউব এবং টেলিভিশন- কোনো প্ল্যাটফর্মই আমার কাছে ছোট নয়। ওটিটির কাজ সময় নিয়ে করতে হয়। তাই দীর্ঘ সময় নিয়ে শুটিং করতে হয়েছে। ফলে একক নাটকের কাজে খুব একটা সময় দিতে পারিনি। ’

ঈদের নাটকেও খুব কম দেখা যাবে নিশোকে। বললেন, ‘এবারের ঈদে আমার অভিনীত নাটকসংখ্যা একেবারেই কম। ঈদে সব মিলিয়ে পাঁচ থেকে সাতটি নাটক প্রচার হবে। শুধু ওটিটিতে নিয়মিত হবো, অন্যগুলোতে হবো না- বিষয়টা তেমন না। ভালো কনটেন্ট চাই আমি। সেটা যে মাধ্যমেই হোক। ’

ভারতীয় ওটিটি হইচইয়ে আফরান নিশো অভিনীত কাইজার মুক্তি পেতে যাচ্ছে। আর এ জন্য রাজধানীর একটি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল।

View this post on Instagram

A post shared by Afran Nisho (@afran.nisho)



সাতদিনের সেরা