kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ১৭ মে ২০২২ । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩  

নিপুণ সমিতি চালাবে, সে জানে কী সমিতির? সুচরিতার প্রশ্ন

রংবেরং প্রতিবেদক   

৩ মার্চ, ২০২২ ১৭:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিপুণ সমিতি চালাবে, সে জানে কী সমিতির? সুচরিতার প্রশ্ন

শিল্পী সমিতির সামনে সুচরিতা

এবারের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে জায়েদ-মিশা প্যানেল থেকে কার্যকরী পদে নির্বাচন করে জয়ী হয়েছেন অভিনেত্রী সুচরিতা। বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের একসময়ের ডাকসাইটে এই অভিনেত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর বুধবার সন্ধ্যায় এফডিসিতে আসেন। শিল্পী সমিতির কার্যালয় তালাবদ্ধ থাকায় বাইরে বসেই অপেক্ষা করতে হয় তাঁকে। এমন ঘটনার কারণে নিপুণের তীব্র সমালোচনা করেন সুচরিতা।

বিজ্ঞাপন

প্রশ্নও তোলেন নিপুণের নেতৃত্বের।

নিপুণ সম্পর্কে বলেন, ‘সে চিত্রনায়িকা? নায়িকা হিসেবে ভিত্তিই তো করতে পারেনি এখনো। সে সমিতি চালাবে? কে সমিতি চালাবে? সে জানে কীসমিতির? নাই কাম নাই কাজ, কী করি খই ভাজ; এখন এ অবস্থা হয়েছে চলচ্চিত্রের। শুটিং নেই ফুটিং নেই, একটা কিছু নিয়ে থাকতে হবে তো। মা... গো... পাগল হয়ে গেলাম। আর এখন সন্দেহ আছে থাকব কি না চলচ্চিত্র ইন্ডস্ট্রিতে। '

সুচরিতা আরো বলেন, ‘আট বছর বয়স থেকে অভিনয় শুরু করেছি। শাবানা ম্যাডাম সেটে সকাল ৮টায় আসবেন বলে আমি এফডিসিতে ৪টায় এসে বসে থাকতাম। সেই সুচরিতা, আমি শিল্পী সমিতির বাইরে বসে থাকব? তারা বলে শিল্পীদের সেবা করবে! আমি শিল্পী না? অরুণা বিশ্বাস শিল্পী না? জায়েদ শিল্পী না? কী অসভ্যতা? আমরা অসভ্য হয়ে গেছি শিল্পীরা! শিল্প সৃষ্টি করব কিভাবে আপনারা বলেন। ’

ফেসবুকে সাধারণ মানুষের মন্তব্য নিয়ে বলেন, 'যে যার মতো কমেন্টস করে মানুষকে হেয় করে।   চামচামি, পাগলামি, কী কী আরো যেন ভাষা, সব কিছু মিলে অ্যাটাক করেন। '

গুণী এই অভিনেত্রী বলেন, ‘চারদিকে এত অসভ্যতা, এত এত মানুষের অকারণে আক্রমণ হচ্ছি। এই এফডিসিতে পরিচালক সমিতি রয়েছে। সেখানে প্রত্যেকের কাজ করেছি। তারা কেউ তো এলো না।   আমাকে তো সান্ত্বনা দিতে পারত? না। কয় দিন দাঁড়াবে না।   আমিও জিজ্ঞেস করতে চাই, কয় দিন দাঁড়াবে না। তাদের কিন্তু দাঁড়াতে হবে আমাদের পাশে। ’

তিনি আরো বলেন, 'আমরা ভদ্র মানুষ। আমরা তো মারামারি করতে চাইনি। এই যে তালা লাগিয়ে চলে গেছে। কে, কার এত পাওয়ার? তারা শিল্পী সমিতির সেবা করবে শিল্পীদের বাইরে বসিয়ে রেখে?'



সাতদিনের সেরা