kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ১৭ মে ২০২২ । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩  

‘বোঝে না সে বোঝে না’র সেই পাখি এখন খোলামেলা অবতারে

রংবেরং ডেস্ক   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৩:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘বোঝে না সে বোঝে না’র সেই পাখি এখন খোলামেলা অবতারে

মধুমিতা সরকার বাংলাদেশেও ভীষণ জনপ্রিয়

‘বোঝে না সে বোঝে না’ ধারাবাহিকে ‘পাখি’ চরিত্রে অভিনয় করে তিনি হয়ে উঠেছিলেন বাংলাদেশেরও ঘরের মানুষ। তবে বড় পর্দায় আসার পর তাঁর খোলামেলা অবতার দেখে চমকে গেছে অনেকে। আগামীকাল নতুন ওয়েব সিরিজ ‘উত্তরণ’ মুক্তি উপলক্ষে বদলে যাওয়া মধুমিতা সরকারকে নিয়ে লিখেছেন  লতিফুল হক

‘বোঝে না সে বোঝে না’ আর ‘কুসুমদোলা’ দুই ধারাবাহিক ওপার বাংলার সঙ্গে বাংলাদেশেও ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। বিশেষ করে ‘বোঝে না সে বোঝে না’র ‘পাখি’কে তো এই দশকে টিভির অন্যতম জনপ্রিয় চরিত্র বললেও ভুল হয় না।

বিজ্ঞাপন

‌'বোঝে না সে বোঝে না'র কল্যাণে বাংলাদেশে ব্যাপক জনপ্রিয় হন মধুমিতা

জনপ্রিয়তা এতটাই যে বাজারে ‘পাখি ড্রেস’ নামে আলাদা ফ্যাশন ট্রেন্ডও চালু হয়। ধারাবাহিকে পাখি ছিল রক্ষণশীল পরিবারের এক মেয়ে, পুরো সিরিয়ালে যাকে দেখা গেছে সাধারণ সালোয়ার-কামিজে। সেই ধারাবাহিক শেষ হয়েছে। এরপর পাখি চরিত্রে অভিনয় করা মধুমিতা সরকারের ব্যক্তিগত জীবনে বয়ে গেছে ঝড়। ২০১৮ সালে স্বামী অভিনেতা-পরিচালক সৌরভ চক্রবর্তীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়। এরপর খোলনলচে বদলে ২০২০ সালে ‘লাভ আজ কাল পরশু’তে হাজির হয়ে চমকে দেন। ছবিতে খোলামেলা পোশাক ও চুম্বন দৃশ্যে অভিনয় করতে দেখা যায় তাঁকে! ‘পাখি আমার জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। কিন্তু ক্যারিয়ারকে সামনে এগিয়ে নিতে হলে সেই চরিত্রের খোলস থেকে নিজেকে বাইরে আনা, মধুমিতা সরকার হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাওয়া জরুরি ছিল। তাই ওই ছবির প্রস্তাব পাওয়ার পর রাজি হয়ে যাই। মানুষকে চমকে দিতে চেয়েছিলাম’, বললেন মধুমিতা।

‘লাভ আজ কাল পরশু' দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক মধুমিতার

ওই ছবির পর ‘চিনি’ ও ‘ট্যাংরা ব্লুজ’-এ দেখা গেছে তাঁকে। এ বছর মুক্তি পাবে ‘কুলের আচার’। সব মিলিয়ে টালিগঞ্জের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেত্রী এখন মধুমিতা। ‘এখন দর্শক কনটেন্টনির্ভর ছবি দেখছে। ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় আসার সেটা ছিল বড় কারণ। ক্যারিয়ার যেভাবে এগোচ্ছে তাতে আমি খুশি। দারুণ সব বৈচিত্র্যময় চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি,’ বলেন মধুমিতা।

বড় পর্দায় সাহসী দৃশ্যে অভিনয়ের জন্য শুরুতে তাঁর অনেক পাঁড় ভক্ত সমালোচনা করলেও চরিত্র অনুযায়ী পোশাক পরার প্রয়োজনীয়তা দর্শক বুঝেছে বলে মনে করেন অভিনেত্রী, ‘দ্বিতীয় ছবি ‘চিনি’ কিন্তু একেবারেই আলাদা। মা-মেয়ের সম্পর্ক নিয়ে গল্প। সেখানে দর্শক আমাকে অন্য রকমভাবে দেখেছে। দর্শকের রুচি বদলাচ্ছে। তারা এখন ওটিটি দেখছে, বাংলার বাইরে অন্য ভাষার কনটেন্টও দেখছে। ফলে ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র যে ভিন্ন পোশাক আর উপস্থাপন দাবি করে, সেটা তারা ভালোই বুঝছে। ’

সব ধরণের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রস্তুত মধুমিতা

আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা মধুমিতার সিরিজ ‘উত্তরণ’-এ অবশ্য তাঁকে ‘চেনা’ রূপেই দেখা যাবে। সুকান্ত গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘বটতলা’ উপন্যাস অবলম্বনে হইচই-এর জন্য সিরিজটি বানিয়েছেন জয়দীপ মুখার্জি। ওয়েব ছবিটিতে স্কুল শিক্ষিকা পর্ণার চরিত্রে অভিনয় করেছেন মধুমিতা। এই শিক্ষিকার একটি অশালীন ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সব ওলটপালট হয়ে যায়। সংসার, স্বামী থেকে কর্মক্ষেত্রে বারবার প্রশ্নের মুখে পড়ে সে। পর্ণা অবশ্য হাল ছাড়ে না, লড়াই চলিয়ে যায়। সিরিজটিতে আরো আছে রাজদীপ গুপ্ত, স্বস্তিকা দত্ত, শাওন চক্রবর্তী, বিদীপ্তা চক্রবর্তী।



সাতদিনের সেরা