kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

দাবি রাজের আইনজীবীর

মোটা টাকা কামাতে ভিডিওগুলোতে অংশ নিতেন পুনম-শার্লিন

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ নভেম্বর, ২০২১ ১৫:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোটা টাকা কামাতে ভিডিওগুলোতে অংশ নিতেন পুনম-শার্লিন

পর্নোগ্রাফি মামলায় মুম্বাই হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেছেন রাজ কুন্দ্রা। সেই আবেদনপত্রে পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়াকে নিয়ে বিস্ফোরক দাবি করে বসেন শিল্পা শেঠির স্বামী। রাজের হয়ে তাঁর কৌঁসুলি প্রশান্ত প্যাটেল ও স্বপ্নীল আম্বুরে আদালতকে জানান, ‘আবেদনকারীর বিরুদ্ধে বা এই মামলার অপর কোনো সহ-অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সেকশন ৬৭ এবং সেকশন ৬৭(এ) আরোপ করা যাবে না।' 

রাজের আইনজীবীদের অভিযোগ, তদন্তকারীদের তরফে শার্লিন চোপড়া এবং পুনম পাণ্ডের ভিডিওগুলো পর্ন মামলার তথ্য-প্রমাণ হিসেবে যোগ করা হচ্ছে। কিন্তু সেসব ভিডিও তৈরি বা তা ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে রাজের কোনো ভূমিকাই নেই বলে জানান অভিযুক্তের আইনজীবী। ওই সব ভিডিও শার্লিন ও পুনম নিজেরাই তৈরি করেছিল টাকা কামনোর লোভে, দাবি আইনজীবীর। 

প্রশান্ত প্যাটেল আরো জানান, যেহেতু হটশট অ্যাপে তৈরি ওই সব ভিডিওতে সরাসরি কোনো যৌন মিলন দেখানো হয়নি, তাই আইটি অ্যাক্টের ৬৭-এ ধারা যোগ করা কোনোভাবেই বাঞ্ছনীয় নয়। 

রাজ কুন্দ্রা কোনোভাবেই ওই সব কনটেন্ট তৈরির সঙ্গে সরাসরি যুক্ত নন। তিনি বলেন, হতে পারে, ‘ওই ভিডিওগুলো ইরোটিক (যৌনতায় ভরপুর); কিন্তু সেখানে কোনো রকম যৌন মিলন বা সম্পর্ক দেখানো হয়নি।' হটশটস অ্যাপের যে ভিডিওগুলো নিয়ে বিতর্ক চলছে, সেগুলো যখন তৈরি হয়েছিল বা আপলোড করা হয়েছিল সেই সময় রাজ কুন্দ্রা ওই অ্যাপের দায়িত্বে ছিলেন না বলে দাবি করেন তাঁর আইনজীবী। 

আর্মসপ্রাইম প্রাইভেট লিমিটেডের (হটশটসের নির্মাতা কম্পানি) ডিরেক্টর পদে রাজ যোগ দেন ফেব্রুয়ারি ২০১৯-এ, এরপর ডিসেম্বর মাসে তিনি দায়িত্ব ছেড়ে দেন। রাজের আইনজীবীদের দাবি, শার্লিন চোপড়ার ভিডিওগুলো অ্যাপে ওই সময়সীমার পর আপলোড হয়েছিল। 

পর্ন মামলায় গত জুলাই মাসে শার্লিন চোপড়া এবং পুনম পাণ্ডের অন্তর্বর্তী জামিন মঞ্জুর করেছিলেন মুম্বাই হাইকোর্ট। ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো রকম শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাবে না, জানিয়েছিলেন আদালত, পরে সেই সময়সীমা বাড়িয়ে দেওয়া হয় ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত। শার্লিন ও পুনম যদিও স্পষ্ট জানিয়েছেন, অ্যাডাল্ট ছবিতে অভিনয় করতে রাজ কুন্দ্রা বাধ্য করেছিলেন তাঁদের।



সাতদিনের সেরা