kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

ধর্ম নিয়ে বিতর্ক, সেই কমান্ডো ছবির শুটিং ফের শুরু হতে যাচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ নভেম্বর, ২০২১ ১৫:০৮ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ধর্ম নিয়ে বিতর্ক, সেই কমান্ডো ছবির শুটিং ফের শুরু হতে যাচ্ছে

কলকাতার দেব অভিনীত 'বিতর্কিত' কমান্ডো চলচ্চিত্রটির শুটিং শিগগির শুরু হতে যাচ্ছে। কলকাতার চিত্রনায়ক ও ভারতীয় সংসদ সদস্য দেব টুইট করে বিষয়টি জানিয়েছেন।

এর আগে ছবিটির টিজার প্রকাশ করে বিতর্কের জন্ম দেয় বাংলাদেশি চলচ্চিত্র 'কমান্ডো।' শামীম আহমেদ রনি পরিচালিত এই ছবিতে ইসলামকে অবমাননা করা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ তোলেন মাওলানা আব্দুল হাই সাইফুল্লাহ। টিজার থেকে কয়েকটি ছবির স্ক্রিনশট নিয়ে তিনি 'কালেমা'র ব্যবহারকে জঙ্গিবাদের সিম্বল হিসেবে টিজারে যে দেখানো হয়েছে, সেটা তুলে ধরেছেন।

এরপর ছবিটির টিজার প্রত্যাহার করে ক্ষমা চেয়ে শুটিং বন্ধ রাখা হয়। পরে চাঁদপুরে সিনেমাটির শুটিং শুরুর প্রক্রিয়া শুরু হলে সেখানের জনসাধারণ ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

'কমান্ডো' ছবি ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ : মাওলানা সাইফুল্লাহ

সিনেমার শুটিং শুরু হচ্ছে জানিয়ে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার হেড অব প্রডাকশন অপূর্ব রায় কালের কণ্ঠকে বলেন, 'কমান্ডো সিনেমার শুটিং শুরু হবে আগামী মাসে। দেব সিনেমার শুটে অংশ নিচ্ছেন দেব। তবে, শুটিং ডেট এখনো চূড়ান্ত হয়নি। থাইল্যান্ডে শুট শেষ করে বাংলাদেশ অংশের শুটিংয়ে অংশ নেবেন নায়ক।'

গত ৮ জানুয়ারি দুপুরে জুমার নামাজের আগে চাঁদপুরের বিভিন্ন মসজিদে এ নিয়ে আলোচনা করেন ইমাম ও খতিবরা। তারা বলেন, 'পবিত্র ধর্ম ইসলামের কলেমা খচিত পাতাকাকে কমান্ডো সিনেমায় জঙ্গি রূপ দেওয়া হয়েছে। এতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানের ঈমান ও বিশ্বাসের ওপর আঘাত হানা হয়েছে। তাই আগামী ১৬, ১৭ ও ১৮ জানুয়ারি চাঁদপুরে কমান্ডো সিনেমার শুটিং বাতিল করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। 

কমান্ডো ছবির শুটিং নিয়ে দেব টুইট করে লিখেছেন, 'এখনো না, শিগগিরই আবার শুটিং শুরু হবে।' দেবের এই টুইটের পরেই শুরু হয়েছে প্রতিক্রিয়া। 

চাঁদপুরে 'কমান্ডো' সিনেমার শুটিং করতে দেবে না ধর্মপ্রাণ মানুষেরা

অন্যদিকে, চাঁদপুরে ছবিটির শুটিং বন্ধ করতে জেলা প্রশাসনকেও স্থানীয়রা চিঠি দিয়েছিল। জানুয়ারির এক প্রতিবাদ সমাবেশে চাঁদপুর শহরের বেগম জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাহবুবুর রহমান বলেন, 'আমরা ইতিমধ্যে কমান্ডো সিনেমার শুটিং বন্ধ ঘোষণা করতে জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছি। আশা করছি, ইসলাম ধর্ম নিয়ে এমন অবমাননাকর সিনেমার শুটিং বন্ধ করতে সরকারের পক্ষ থেকে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

কী নিয়ে বিতর্ক? 

মাওলানা সাইফুল্লাহ সে সময় নিজের ফেসবুক পেইজে লিখেছেন, 'সিনেমা দেখি না, খবরও রাখি না; কিন্তু অনলাইন দুনিয়ায় যেহেতু আছি, সিনেমার টিজারের স্ক্রিনশট দেখে কপাল কুঁচকে গেল। দুনিয়াব্যাপী ইসলাম নিয়ে যে বহু পর্যায়ের ষড়যন্ত্র চলছে, এই সিনেমা তারই অংশ বলে মনে হচ্ছে। ইসলাম আর মুসলমানদের নানা কৌশলে এত দিন দাড়ি, টুপি, জুব্বা, রুমাল, সুরমাকে রাজাকার, বদমায়েশ, চরিত্রহীনদের পোশাক বানিয়ে অপমান করেছে ভারত ও এ দেশের মুভি মেকাররা। এবার যৌথ উদ্যোগ নিয়েছে! নতুন সংযুক্তি, চরিত্র নয় সাবজেক্টই হবে সেটি! কৌশলে বিষয়টিই বাংলা সিনেমার সাবজেক্ট হচ্ছে! মুভি বিশ্বমানে নিয়ে যাওয়া বলে কথা!'

টিজারের এই অংশে দেখানো হচ্ছে কথিত সন্ত্রাসীরা সুন্নতি পোশাক পরে 'নারায়ে তাকবির', 'আল্লাহু আকবার' স্লোগান দিচ্ছে।

তিনি বলেন, "কালেমাধারীদের পরাজিত করার জন্য 'নায়ক দেব' যুদ্ধ করে যাবে এই সিনেমায়। এই মুভিতে দেখাবে, ইসলামী জঙ্গিবাদ দমনে নায়ক দেব এসে হাজির হয়েছে। আর জঙ্গিদের সিম্বল হিসেবে কালেমা খচিত পতাকা ব্যবহার করা হয়েছে। এখানে সুস্পষ্টভাবে ইসলামকে ডিমোনাইজ করা হচ্ছে। ভিলেন বানিয়েছে ইসলামকে। যা  ইচ্ছাকৃত ইসলামবিদ্বেষ। ইসলাম কখনো জঙ্গিধর্ম নয়, একই সঙ্গে ধর্মের নামে শুধু ইসলামেই উগ্রতা আর জঙ্গিবাদ আছে এমনটিও নয়, সব ধর্মেই আছে, তাহলে মুভিতে কেন ইসলাম আর কালেমার পতাকারই শুধু ব্যবহার?'

কলকাতার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক দেব প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের সিনেমায় অভিনয় করছেন। প্রথম লটের শুটিং শেষ করার পরই সিনেমাটির ভবিষ্যৎ নিয়ে একাধিকবার অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এই ছবিতে বাংলাদেশি অভিনেত্রী জাহারা মিতু অভিনয় করছেন।



সাতদিনের সেরা