kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

যুক্তরাষ্ট্রে প্রপ বন্দুকের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত, মুখ খুললেন পরিচালক

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ অক্টোবর, ২০২১ ০৮:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রে প্রপ বন্দুকের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত, মুখ খুললেন পরিচালক

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোর একটি সিনেমার সেটে অভিনেতা অ্যালেক বাল্ডউইনের প্রপ বন্দুকের গুলিতে সিনেমার চিত্রগ্রাহক নিহত হওয়ার পর প্রথমবার এ নিয়ে কথা বলেছেন পরিচালক জোয়েল শৌজা। প্রপ বন্দুকের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত হওয়ার সময় তিনিও আহত হয়েছিলেন।

জোয়েল শৌজা বলেছেন, আমার বন্ধু এবং সহকর্মী হ্যালিনা হাচিন্সকে হারিয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। শুভাকাঙ্ক্ষীরা যে সমবেদনা প্রকাশ করেছেন, সেজন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে জোয়েল শৌজা বলেছেন, আমি আমার বন্ধু এবং সহকর্মী হ্যালিনাকে হারিয়ে হতাশ হয়েছি। তিনি ছিলেন দয়ালু, প্রাণবন্ত, অবিশ্বাস্যভাবে প্রতিভাবান, প্রতি ইঞ্চির জন্য লড়াই করেছিলেন এবং সবসময় আমাকে আরো ভালো হওয়ার জন্য চাপ দিয়েছিলেন।

তিনি আরো বলেন, এই মুহূর্তে আমার চিন্তাভাবনা তার পরিবারকে নিয়ে। আমাদের চলচ্চিত্র নির্মাণ সম্প্রদায়, সান্তা ফে-র মানুষ এবং শত শত অপরিচিত ব্যক্তি যারা এগিয়ে এসেছেন, তাদের কাছ থেকে আমরা যে স্নেহ পেয়েছি, সেজন্য আমি বিনম্রচিত্তে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমার ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য এটা অবশ্যই অনেক বড় রকমের সাহায্য।

এদিকে গত শুক্রবার আদালতের রেকর্ড প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, অ্যালেক বাল্ডউইনকে একজন সহকারী পরিচালক গুলি ভর্তি অস্ত্র দিয়েছিলেন। ওই অভিনেতা একজন সিনেমাটোগ্রাফারকে গুলি করে মারার আগে প্রপ অস্ত্র দেওয়া সেই ব্যক্তি বাল্ডউইনকে ইঙ্গিত দিয়েছেলেন- এটি ব্যবহার করা নিরাপদ।

তবে সহকারী ওই পরিচালকও জানতেন না যে, বন্দুকটিতে গুলি রয়েছে। সান্তা ফে আদালতে দায়ের করা একটি অনুসন্ধান পরোয়ানায় এসব তথ্য রয়েছে।

জানা গেছে, নিহত ৪২ বছর বয়সী নারী হ্যালিনা হাচিন্স ওই সিনেমার ডিরেক্টর অব ফটোগ্রাফি হিসেবে কাজ করছিলেন। সেটে কর্মরত অবস্থাতেই তিনি গুলিবিদ্ধ হন। তার বুকে গুলি লেগেছিল।

গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর দ্রুত হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও গুরুতর জখমের কারণে তার মৃত্যু হয়। পরিচালক জোয়েল শৌজা তার পাশেই ছিলেন। তিনিও আহত হয়েছেন। আদালতের নথিতে এসব তথ্য রয়েছে।

গত শুক্রবারই পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। যাতে করে তদন্তকারীরা গুলি লাগার জায়গার দৃশ্য নথিভুক্ত করতে পারেন, সে ব্যাপারেও নির্দেশনা রয়েছে।

নিহত চিত্রগ্রাহকের রক্তমাখা পোশাকটি প্রমাণ হিসেবে নেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে তার ব্যবহার করা পিস্তলটিও জব্দ করা হয়েছে।

তদন্তকারীরা বাল্ডউইন অভিনীত ছবির শুটিংয়ের সময় ব্যবহৃত অন্যান্য প্রপ বন্দুক এবং গোলাবারুদও জব্দ করেছেন।

শুক্রবার সকালেই বাল্ডউইন বলেছেন, এই হত্যাকাণ্ডটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। 

তাৎক্ষণিকভাবে অবশ্য বাল্ডউইনকে আটক করা হয়নি। বাল্ডউইনের ভ্রমণের ব্যাপারেও কোনো নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়নি।

এর আগে ১৯৮৪ সালে একজন অভিনেতার এভাবে মৃত্যু হয়েছিল। এরপর ১৯৯৩ সালে সিনেমার সেটে অভিনেতা ব্র্যান্ডন লির প্রপ বন্দুকের গুলিতে দুর্ঘটনাবশত একজন নিহত হন।
সূত্র: বিবিসি।



সাতদিনের সেরা