kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মায়ের কোলে চড়ে দুর্গার সঙ্গে পরিচয় ইউভানের

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ অক্টোবর, ২০২১ ১৩:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মায়ের কোলে চড়ে দুর্গার সঙ্গে পরিচয় ইউভানের

কোলে ছোট্ট ইউভান, আর তাকে দুর্গাপূজার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন মা শুভশ্রী। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও শেয়ার করলেন বাবা রাজ।

পূজার সপ্তমীর একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন রাজ। সেখানে দেখা গেছে, বেদিতে ছোট্ট ইউভানকে কোলে নিয়ে বসে আছেন শুভশ্রী। অবাক চোখে পূজার দিকে তাকিয়ে রয়েছে ইউভান। আর শুভশ্রী তাকে শিখিয়ে দিচ্ছেন, এটা মা দুর্গা.. এটা লক্ষ্মী.. সরস্বতী.. কার্তিক.. গণেশ..। ক্যাপশনে রাজ লিখছেন, 'দুর্গাপূজা বাঙালিদের সবচেয়ে বড় পুজো। আমরা মা দুর্গার বাড়ি আসাকে উদযাপন করি। তোমার অবাক চোখ অনেক প্রশ্ন করছে ইউভান। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তুমি সব বুঝে যাবে।'

সদ্য ছুটি কাটিয়ে ফিরেছেন রাজশ্রী জুটি। সম্প্রতি ছোট্ট ইউভান ও স্ত্রী শুভশ্রীকে নিয়ে মলদ্বীপে পাড়ি দিয়েছিলেন রাজ, ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে একটা আলাদা অ্যালবাম করে ফেলেছিলেন শুভশ্রী। সেখানে শুধুই মালদ্বীপে দিনযাপনের ছবি। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় প্রতিদিনই রোদমাখা ছবি আপলোড করতেন শুভশ্রী। 

মালদ্বীপে সমুদ্রে পরিবারকে নিয়ে সময় কাটানোর ছবি। কম জাননি রাজও। সোশ্যাল মিডিয়ায় নীল সমুদ্রের ধারে এই ছবিটি শেয়ার করেছিলেন রাজ। একদিকে পরিচালনা, অন্যদিকে বিধায়কের দায়িত্ব, দুই-ই সামলাচ্ছেন রাজ। কিন্তু তাঁর ফাঁকেও বের করে নিলেন পারিবারিক সময়। সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে বেরিয়ে পড়লেন সময় কাটাতে। সম্ভবত জীবনের সেরা সময়টি কাটাচ্ছেন শুভশ্রী- একদিকে কাজ, অন্যদিকে পরিবার, সব মিলিয়ে নায়িকা এখন ভীষণ ভীষণ খুশি।

কখনো নীল সমুদ্রের ধারে অবাক ইউভান, আবার কখনো মায়ের সঙ্গে মিরর সেলফি, শুভশ্রীর সোশ্যাল মিডিয়া ভরে গিয়েছে মালদ্বীপের ছবিতে। সুন্দর কটেজে ইউভানের ছবি নিয়ে অনুরাগীদের সুপ্রভাত জানিয়েছিলেন শুভশ্রী। অনুরাগীরাও তাঁদের ভ্রমণের ছবিতে উপচে দিয়েছেন ভালোবাসা। 

এর আগে বাড়ির পুজোর ছবি ও মুহূর্ত ভাগ করে নিয়েছেন শুভশ্রী। ঢাক ও বিভিন্ন আনন্দের ছোট ছোট মুহূর্তের ছবির কোলাজ ভেসে উঠেছে তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে। আর আজ হলুদ পাঞ্জাবিতে ছোট্ট ইউভানের ছবি শেয়ার করে নিয়েছেন রাজ। তাঁর পেছনে দেখা যাচ্ছে সাবেক প্রতিমা।

View this post on Instagram

A post shared by Raj Chakrabarty 🇮🇳 (@rajchoco)



সাতদিনের সেরা