kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

বাবা-মায়ের ‘পাপ কর্মের ফল’ বিশেষ শিশুরা? নাটকে এমন বার্তায় ক্ষুব্ধ দর্শকেরা

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ জুলাই, ২০২১ ১৭:২৯ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



বাবা-মায়ের ‘পাপ কর্মের ফল’ বিশেষ শিশুরা? নাটকে এমন বার্তায় ক্ষুব্ধ দর্শকেরা

ঈদের বিশেষ নাটক 'ঘটনা সত্য'র বিরুদ্ধে বিশেষ শিশুদের বাবা-মায়ের 'পাপ কর্মের ফল' বলে বার্তা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। যা একেবারে নৈতিকতাবিরোধী বলে দাবি করা হচ্ছে।

প্রকাশের পর নাটকটি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। শাহাদাত হোসেন নামের একজন লিখেছেন, স্পেশাল চাইল্ড আমাদের কোনো বোঝা নয়, তারা আমাদের অন্য সবার সন্তানদের মতোই সাধারণ সন্তান। সৃষ্টিকর্তা নিজেও স্পেশাল চাইল্ডদের নিজের হাতে সৃষ্টি করেছেন। 

বাংলাদেশের অন্যতম বড় ইউটিউব চ্যানেল সিএমভি বানিয়েছে নাটক 'ঘটনা সত্য'। এই সত্য ঘটনাটি হচ্ছে বাবা মা কোনো পাপ করলে সেই পাপের ফসল স্পেশাল চাইল্ড। একটা নাটক বানাতে গেলে ডিরেক্টর, রাইটার, প্রডিউসার, আর্টিস্টসহ স্পন্সর প্রতিষ্ঠান সবাইকে আগে গল্প দেখাতে হয়। এতগুলো মানুষের সবাই কি তাহলে এটাই বিশ্বাস করে যে স্পেশাল চাইল্ডরা বাবা মায়ের পাপের ফসল? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজে ডিজেবল বাচ্চাদের নিয়ে সব সময় ভেবেছেন, সেখানে সরকারি প্রতিষ্ঠান নগদ কিভাবে আফরান নিশো, মেহজাবিন অভিনীত, রুবেল হাসান পরিচালিত এই নাটকটি স্পন্সর করতে পারে?

তিনি বলেন, টাকার জন্য অভিনেতারা বিক্রি হয়ে যায়, ডিরেক্টররা যা খুশি তাই বানায়, বড় বড় প্রতিষ্ঠান সেখানে পয়সা ঢালে। কিন্তু আমাদের নৈতিকতার এত অবক্ষয় কিভাবে মেনে নেওয়া যায়? আমি জানতে চাইছি, এই নাটকটি নির্মাণের সাথে জড়িত সকল কলাকুশলী এটাকে কিভাবে ব্যাখ্যা করবে? শুধু ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাসে সরি বললে সেটাই কি সমাধান? যারা যারা এর মধ্যে নাটকটা দেখেছেন, তাদের মানসিক অবস্থাটা একবার ভাবুন! একটা ফেসবুক স্ট্যাটাসে কি সব সমস্যার সমাধান হয়? কিছুদিন আগে আরেকটা নাটক বানানো হয়েছিল যেখানে স্বামী-স্ত্রীর রক্তের গ্রুপ নিয়ে একটা মিথ্যা গল্প দর্শকদের দেখানো হয়েছে।

সাধারণ দর্শকদের কাছে ভুল ম্যাসেজ পৌছানোর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে পুরো দেশ, জাতি। 

এদিকে নাটকটি নিয়ে বিক্ষুব্ধ মতামত প্রকাশ করেছেন আব্দুন নুর তুষার। তিনি বলেন, অশিক্ষা আর বর্বরতা; উজবুকি আর আহাম্মকির চূড়ান্ত নিদর্শন হলো সিএমভির ব‍্যানারে এক নাটক যেখানে সন্তানের অটিজম স্পেকট্রাম ও অন‍্যান‍্য behavioural disorder ও জেনেটিক কন্ডিশনকে মা বাবার পাপের/ভুলের শাস্তি হিসেবে ইঙ্গিত করে দেখানো হয়েছে। এ নাটকের প্রচার বন্ধ করা উচিত এবং নাটকের কাহিনিকার ও পরিচালক প্রযোজক এর উচিত প্রকাশ‍্যে ক্ষমা চাওয়া।

তথ‍্য মন্ত্রণালয়ের অবিলম্বে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা দরকার যেখানে এ ধরনের বলদদের তৈরি করা কনটেন্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ গ্রহণ ও বিচার করা হবে। শত শত বাবা-মায়ের মনে এরা কুৎসিত আঘাত করেছে।

তিনি বলেন, 'গর্দভগুলোকে আমার প্রশ্ন, তাদের নিজেদের বাবা-মায়ের কোন পাপে তাদের মতো এ রকম অকাল কুষ্মান্ড জন্ম নিয়েছিল? দেশে একটি সম্প্রচার পর্যবেক্ষণ কমিশন করা দরকার।'

এক বিশেষ শিশুর মা ফেসবুকে ভিডিওবার্তা দিয়ে নাটকটির বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন, বিশেষ শিশুর মা হিসেবে নানা সময়ে সমাজের মানুষদের বিভিন্ন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্যের মুখোমুখি হতে হয়েছে। অনেকে বলেন, আমাদের কোনো পাপের কারণে আমাদের সন্তান এমন হয়েছে। কিন্তু যেকোনো ধর্মে বলা আছে, আপনারা যদি বিশেষ শিশুর বাবা-মা হন, তাহলে আপনারা আশীর্বাদপুষ্ট। 'ঘটনা সত্য' নাটকে যে বার্তা দেওয়া হয়েছে তা আমি একেবারেই মেনে নিতে পারি না। দায়িত্বশীল জায়গা থেকে সংশ্লিষ্টরা এ ধরনের ভুল বার্তা দিতে পারেন না। আমি আশা করব নাটকটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হবে।

এ ছাড়া বিষয়টি নিয়ে বিশেষ শিশুদের নিয়ে কাজ করা কিছু সংগঠনের পক্ষ থেকেও নিন্দা জানানো হয়েছে।

মাইনুল শানুর চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন রুবেল হাসান। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী।  

এদিকে নাটকের কলাকুশলীদের এক বিবৃতিতে বলা হয়, 'ঘটনা সত্য' নাটকের নাট্যকার, পরিচালক, প্রযোজক, শিল্পী এবং কলাকুশলীদের পক্ষ থেকে আমরা গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আপনাদের অনেকেই জানিয়েছেন, এ নাটকের মাধ্যমে ভুল বার্তা দেওয়া হয়েছে। অভিযোগটির সাথে আমরা সহমত পোষণ করছি। বিষয়টি একেবারেই অনাকাঙ্ক্ষিত। যারা আমাদের নাটক 'ঘটনা সত্য'র এ বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত করেছেন, সবাইকে অকুণ্ঠ ধন্যবাদ জানাই। 

আরও বলা হয়, প্রথম বার্তা পাবার পরপরই আমরা উপলব্ধি করি, অসাবধানতাবশত নাটকে আমরা ভুল একটি বার্তা দিয়েছিলাম। এরপর আমরা সঙ্গে সঙ্গেই নাটকটি ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নেই। প্রয়োজনীয় সংশোধনের পর নাটকটি পুনরায় আবারও পরবর্তীতে প্রকাশ করা হবে। সবশেষে প্রত্যেক বাবা-মা ও সন্তানের প্রতি আমাদের ভালোবাসা জানাই। সেই সাথে, ভবিষ্যতে এমন প্রযোজনা তৈরি করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যা সঠিক বার্তা সমাজে ছড়িয়ে দেয় এবং দর্শকদের সঠিক পথে পরিচালিত করে। আপনাদের অমূল্য সহায়তার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

বিবৃতির সঙ্গে নাটকটির অভিনেতা আফরান নিশো, অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী, পরিচালক রুবেল হাসান, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভি নাম সংযুক্ত করা হয়। তারা সবাই ফেসবুক বিবৃতিটি পোস্ট করেছেন।

'ঘটনা সত্য' নাটকটি সিএমভির ঈদ অনুষ্ঠানমালায় ইউটিউবে প্রকাশ পায়। প্রকাশের পরই ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয় নাটকটি নিয়ে।



সাতদিনের সেরা