kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

ফায়ার সার্ভিস কর্মী দীপুর খালি গলায় গাওয়া গানটি শুনেছেন ১ কোটি ২০ লাখ মানুষ

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ জুলাই, ২০২১ ১৭:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফায়ার সার্ভিস কর্মী দীপুর খালি গলায় গাওয়া গানটি শুনেছেন ১ কোটি ২০ লাখ মানুষ

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একজন কর্মী। সব সময় প্রস্তুত মানুষের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ার। সর্বদা প্রস্তুত অন্যের জন্য, জনগণের জন্য। এমন একজন কর্মী হয়তো অবসর পান। কত সময়? সেটা আসলে বলা মুশকিল। কিন্তু সেই অবসরে যদি মনের সুখে গান গেয়ে ফেলেন, আর সেই গান মানুষ মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শুনছেন তাহলে ব্যাপারটা অস্বাভাবিক হয়ে দাঁড়ায়। 

কিন্তু এই অস্বাভাবিক ব্যাপারটিকেও স্বাভাবিক করেছেন দীপু নামের একজন ফায়ার সার্ভিসের কর্মী। 'আমার মতো এতো সুখী নয় তো কারো জীবন...' এই গানটি বাবা কেন চাকর চলচ্চিত্রে নায়ক রাজ রাজ্জাকের ঠোঁটে শোনা গেছে। এই গানের সঙ্গে চোখের জল ঝরেছে বাংলা চলচ্চিত্রের কত শত দর্শকের। এই গানটি গেয়েছেন  ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মী দীপু। 

সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছেন দীপু একটি অব্যবহৃত তরলের প্লাস্টিকের ড্রামের মতো পাত্রের মধ্যে বসে সেটাকেই বাদ্যযন্ত্র বানিয়েছেন। নিজে সেটা বাজাচ্ছেন রা গাইছেন- 'আমার মতো এতো সুখী, নয়তো কারো জীবন, কি আদর স্নেহ ভালোবাসায়, জড়ানো মায়ার বাধন,  জানি এ বাঁধন ছিঁড়ে গেলে কভু, আসবে আমার মরণ...' খালিদ হাসান মিলুর অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে একটি এই গান। 

মিলুর গানটি মানুষ শোনেন এখনো। তবে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী দীপুর খালি গলায় গাওয়া এই গান শুনেছেন এক কোটি ২০ লাখ মানুষ। অবিশ্বাস্য হলেও। ফেসবুকের ওই  পেইজের মাধ্যমে ১২ মিলিয়ন বার শোনা হয়েছে গানটি। 

দীপুর গানটি ভাইরাল হলেও দীপুর সবিস্তার পরিচয় জানা যায়নি। জানা যায়নি কোন ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে বসে তিনি গানটি গেয়েছেন। একটি ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে গানটি ভাইরাল হয়েছে। আর পেইজটিও চালানো হয় দেশের বাইরে থেকে। 



সাতদিনের সেরা