kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

আমির-কিরণ প্রসঙ্গে টুইট বার্তায় পূজা

‘বিচ্ছেদের পরেও স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে সন্তান পালন করতে পারেন’

অনলাইন ডেস্ক   

৫ জুলাই, ২০২১ ১১:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘বিচ্ছেদের পরেও স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে সন্তান পালন করতে পারেন’

 আমির খান-কিরণ রাওয়ের বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে বলিউডজুড়ে। এদিকে আমির-কিরণ বলছেন, কোনো তিক্ততা নয়, বরং খুশি- খুশি মনেই তারা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেই সঙ্গে একমাত্র ছেলে আজাদকেও একসঙ্গে বড় করার কথা জানিয়েছেন এই দম্পতি। এই বিষয় নিয়েই পরিচালক-প্রযোজক-অভিনেতা পূজা ভাট বলছেন, ‘এ কথা ঠিক যে বাবা-মায়ের বিবাহবিচ্ছেদ সন্তানের মনের ওপর চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু সন্তানের দায়িত্ব যদি বিচ্ছেদের পর বাবা-মা একসঙ্গে পালন করেন, তাহলে তার থেকে ভালো আর কিছুই হতে পারে না।’

আমির-কিরণের বিচ্ছেদ ঘোষণার ঠিক পরপরই পূজা ভাট তার টুইটারে বেশ কয়েকটি টুইট করেন। আমির-কিরণের ডিভোর্সের পর যেভাবে ট্রোলড হয়েছেন অভিনেতা, তাই নিয়েই লিখেছেন পূজা। তার মতে, দুজন মানুষের মধ্যে মতপার্থক্য তৈরি হতেই পারে, তারা আলাদাও হয়ে যেতে পারেন। তার অর্থ এই নয় যে দুজনের মনের মধ্যে পরস্পরের প্রতি ঘৃণা তৈরি হবে। সম্পূর্ণ শ্রদ্ধাবোধ নিয়েও দুটি মানুষ আলাদা হতে পারেন। পূজা লিখেছেন, ‘আসলে আমাদের সমাজ এই বিষয়টা এখনো বুঝতে পারে না। বিবাহবিচ্ছেদের অভিজ্ঞতা মাত্রই তাদের কাছে তিক্ত। তাই আমির-কিরণের কো-প্যারেন্টিং নিয়ে চিন্তায় অনুরাগীরা।'

পূজা ভাটের কথা অনুসরণ করেই মনস্তত্ত্ববিদরা জানাচ্ছেন, সন্তানের কো-প্যারেন্টিং বিবাহবিচ্ছিন্ন স্বামী-স্ত্রী করতেই পারেন। সন্তানের কাস্টডি যার কাছেই থাকুক না কেন, সময়ে সময়ে বাবা-মায়ের সান্নিধ্য পেলে সেই সন্তান মানসিকভাবেও সু-বিকশিত হয়ে উঠতে পারে। তাই আমির-কিরণের কো-পেরেন্টিংকে স্বাগতই জানাচ্ছেন মনস্তত্ত্ববিদরা।

  



সাতদিনের সেরা