kalerkantho

সোমবার । ১১ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৬ জুলাই ২০২১। ১৫ জিলহজ ১৪৪২

গান পাগল ছেলেটির গল্প

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ জুন, ২০২১ ২২:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গান পাগল ছেলেটির গল্প

চট্টগ্রামের মিউজিক জগতের প্রিয় মুখ শান শাহেদ। গান পাগল এক ছেলে। যেখানেই কনসার্ট, তারুণ্যের বাধভাঙা উচ্ছ্বাস সেখানেই মঞ্চ কাঁপাতে দেখা যায় ছেলেটিকে। আর হবে নাই বা কেন? শাহেদের সঙ্গে যে ভীষণ সখ্য এই শহরের হাজারও তরুণ শ্রোতার! 

তার ব্যান্ড দলের নামটিও চমৎকার ‘তীরন্দাজ’। এই তীরন্দাজের কান্ডারি হয়েই দীর্ঘ ১৩ বছরের বেশি মঞ্চ কাঁপাচ্ছেন চট্টগ্রামের ছেলে শাহেদ। ২০০৮ সাল থেকে প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর সান্নিধ্য। ব্যস! মিউজিকের খুঁটিনাটি সেখান থেকেই শেখা। শহরের ডিসি হিলে এক কনসার্টে শাহেদের গান শুনে উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেছিলেন, ‘আপনারা এই ছেলেটিকে চিনে নিন। তীরন্দাজ হচ্ছে স্বুল অব রক। কি গাইলো সে.....। আমি দোয়া করি শাহেদ সবার মন জয় করবে।’

হয়তো লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুর কথাই সত্যি হতে চলেছে। শাহেদের ধ্যান-জ্ঞান পুরোপুরি ব্যান্ড মিউজিক। আর এই ভালোবাসা দেখেই আইয়ুব বাচ্চু শাহেদকে নিজের সন্তানের মতো আদর করতেন। কলকাতা কিংবা দেশের যে কোনো প্রান্তে নিয়ে যেতেন কনসার্টে। 
আড্ডায় আড্ডায় শাহেদ জানান, এখন পর্যন্ত ৬০০ এর বেশি স্টেজ শো করেছেন। তৈরি হয়েছে বেশ ক’টি মৌলিক গান। ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, সিলেটসহ দেশের নানান জায়গায় শাহেদের পদচারণা অহর্নিশ। 

স্কুলে থাকতেই গানের সঙ্গে বন্ধুত্ব। এরপর কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে কয়েকজন বন্ধু মিলে গড়ে তোলেন ব্যান্ড দল তীরন্দাজ। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় শাটল ট্রেন শাহেদকে গানের ভুবনে আসন গেড়ে দিয়েছিল স্থায়ীভাবে।

চট্টগ্রামে বড় কনসার্ট, ক্যাম্পাসে নবীন বরণ- কোথায় নেই শাহেদ। তার ভাষায়, ‘এ এক অদ্ভুত অনুভূতি। আমার গান শুনে অনেকে কাঁদেন। কেউ কেউ বলেন ভাই মনটা সত্যি ভালো করে দিলেন। তখন মানুষ হিসেবে নিজেকে ভাবতে অন্যরকম লাগে। দোয়া চাই শ্রোতাদের।’

সর্বশেষ চ্যানেল আই ব্যান্ড মিউজিকের কনসার্টে শাহেদের পারফর্ম মুগ্ধ করেছে দেশের সংগীতবোদ্ধাদের। গানই তার ধ্যানজ্ঞান। বললেন, গানটাকে ভালোবাসি। জীবিকার তাগিদে হয়তো চ্যালেঞ্জ নিয়ে বাঁচতে হচ্ছে। তবে সব কিছুই কিন্তু গানটাকে বাঁচিয়ে রাখতে করতে হচ্ছে। কারণ গানটাই আমার শেষ নিঃশ্বাস, বললেন গান পাগল ছেলেটি।



সাতদিনের সেরা