kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

ত্রাণ দিতে গিয়ে চড় খেলেন রুদ্রনীল

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ মে, ২০২১ ১৭:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ত্রাণ দিতে গিয়ে চড় খেলেন রুদ্রনীল

পশ্চিমবঙ্গের ভবানীপুর কেন্দ্রে বিপুল ভোটের ব্যবধানে হেরেছেন তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে। প্রচারের ময়দানে অভিনেতাকে সাদর আমন্ত্রণ জানালেও ভোটের ফলাফলের পর সেই কেন্দ্রের মানুষজনেরই রুদ্রনীল ঘোষের প্রতি ব্যবহার বদলে গেল! 

তেমন ইঙ্গিতই পাওয়া গেল শুক্রবার। ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে ভবানীপুরে চড় খেলেন বিজেপি নেতা রুদ্রনীল ঘোষ। ঘটনায় হতচকিত হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন অভিনেতা। কালীঘাট থানায় অভিযোগও দায়ের করেন।

এদিন ভবানীপুরের ৭১ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপির কজন কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ত্রাণ দিতে গিয়েছিলেন রুদ্রনীল। সেখানেই বচসা শুরু হয়। স্থানীয় বিজেপি কর্মীরাও ছিলেন সেখানে। তার মাঝেই আচমকা এসে একজন চড় কষান অভিনেতাকে। চশমা খুলে সজোরে মাটিতে ছিটকে পড়ে। প্রথমটায় হতচকিত হয়ে যান তিনি। 
এই ঘটনায় স্থানীয় তৃণমূল নেতাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন রুদ্রনীল। ৭১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তৃণমূল নেতা বাবলু সিংয়ের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তোলেন বিজেপির তারকা নেতা। এরপরই কালীঘাট থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আসেন তিনি।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। পাল্টা তাঁদের দাবি, “মিথ্যা কথা! কোনওরকম মারধর-ই করা হয়নি রুদ্রনীল ঘোষকে। কথা কাটাকাটি হওয়ার পর বুঝিয়ে-সুঝিয়েই পাঠানো হয়েছে। উনি যে খাবার দিতে এসেছিলেন, তাতে বিষ মেশানো আছে কি না কে জানে? আর উনি তো ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন এখানে। ওনার জানা উচিত যে ভবানীপুরের প্রশাসন তড়িৎকর্মা। এখানকার মানুষ সবরকম সাহায্য পাচ্ছেন। উনি কেন আবার ত্রাণ দিতে এসেছেন এখানে?” 

প্রশ্ন তুলে জোর বচসা বাঁধে রুদ্রনীল ঘোষের সঙ্গে। হতবাক রুদ্রনীল পাল্টা প্রশ্ন ছোঁড়েন- ত্রাণ দেওয়ার ক্ষেত্রে কী কোনও নিয়ম আছে নাকি?” ঘটনায় বিজেপি নেতার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে কালীঘাট থানার পুলিশ খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস 



সাতদিনের সেরা