kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

করোনাকালে শিল্পা শেঠীর পরামর্শ

অনলাইন ডেস্ক   

৪ মে, ২০২১ ১২:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাকালে শিল্পা শেঠীর পরামর্শ

করোনার এই কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষকে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বলিউড অভিনত্রী শিল্পা শেঠী কুন্দ্রা। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। তার ফলে অধিকাংশ মানুষ আক্রান্ত হওয়ার আগেই আতঙ্কিত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এই পরিস্থিতিতে অতিরিক্ত আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ করেছেন শিল্পা।

সোমবার শিল্পা সোশাল সাইটে তার ভক্তদের এবং সকল ভারতীয়কে অনুরোধ করেছেন, এই কঠিন পরিস্থিতি পরিবর্তনে যদি কিছু না করতে পারেন, তাহলে দয়া করে অন্তত আতঙ্কিত হবেন না। তিনি লিখেছেন, 'আমরা প্রত্যেকেই আমাদের আশপাশের খবর দেখছি, পড়ছি। এই পরিস্থিতি একেবারেই ধ্বংসাত্মক। এই সকল খবর আমাদের মনের ওপর সাংঘাতিক প্রভাব ফেলে। তবে তার পরেও কিছু ঘটনা শুনি বা দেখি যা অনেকটাই আশ্বাস জাগায়। করোনা রোগীদের জন্যে খাবার, ওষুধ, প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে বহু মানুষ। ডাক্তাররা অনলাইনে করোনা আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় ওষুধ এবং যাবতীয় পরামর্শ দিচ্ছেন। এসব ঘটনা আমাদের অনেকটাই ভরসা দেয়। মনে আশ্বাস দেয়'।

এই করোনা যুদ্ধে একে অপরকে সহায়তা করেই জয়ী হওয়ার আশ্বাস রাখেন শিল্পা। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, 'আপনি যদি এই কঠিন পরিস্থিতিতে কাউক সহায়তা করতে পারেন তাহলে অবশ্যই তা করুন। কিন্তু যদি তা না করতে পারেন তাহলে দয়া করে শুধু শুধু আতঙ্কিত হবেন না। যা আপনার জন্যে এবং আপনার আশপাশের মানুষের জন্যে ক্ষতিকারক। দীর্ঘ শ্বাস নিন এবং ভরসা রাখুন ভালো কিছু হবে। আমরা একসঙ্গে কাটিয়ে উঠব এই দুর্দিন। আমরা একসঙ্গে এই কঠিন রাস্তা হেঁটে পার করব। সুন্দর ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে চলব আমরা'।

করোনার মহামারির এই কঠিন পরিস্থিতিতে ভেঙে না পড়ে, আতঙ্কিত না হয়ে শক্ত হতেই এ পরামর্শ দিচ্ছেন শিল্পা।

ভারতের করোনা সঙ্কটে অক্সিজেনের ঘাটতি কমাতে শিল্পা যোগ দিয়েছেন 'মিশন অক্সিজেন'-এ। অভিনেত্রী নিজে অর্থ দান করেছেন এবং নিজের সোশাল মিডিয়ায় সেই লিংক শেয়ার করে তার অনুগামীদেরও অনুরোধ করেছেন দান করার জন্যে। এই অর্থ করোনা রোগীদের জন্যে অক্সিজেন সরবরাহে কাজে লাগবে। 'মিশন অক্সিজেন'এ বলিউডের আরো অনেক তারকা যেমন- বরুণ ধাওয়ান, তাপসী পান্নু, দিয়া মির্জা, নেহা ধুপিয়া, বিশাল দাদলানি, ইশা দেওল, ফারহান আকতার, মালাইকা আরোরা প্রমুখরা দান করেছেন।



সাতদিনের সেরা