kalerkantho

রবিবার। ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৬ মে ২০২১। ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

মেয়ে বুশরার আত্মহত্যায় ভেঙে পড়েছিলেন ওয়াসিম

অনলাইন ডেস্ক   

১৮ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেয়ে বুশরার আত্মহত্যায় ভেঙে পড়েছিলেন ওয়াসিম

চিত্রনায়ক ওয়াসিমের মেয়ে বুশরা রাজধানীর মানারাত ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে পড়তেন। ওই স্কুলভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন বুশরা। মেয়ের মৃত্যুর পর অনেকটাই ভেঙে পড়েছিলেন সোনালি দিনের এই নায়ক।  

ওয়াসিম বিয়ে করেছিলেন চিত্রনায়িকা রোজীর ছোট বোনকে। তাদের দুটি সন্তান হয়- পুত্র দেওয়ান ফারদিন এবং কন্যা বুশরা আহমেদ। ২০০০ সালে তার স্ত্রীর অকালমৃত্যু ঘটে। 

২০০৬ সালে ওয়াসিমের কন্যা বুশরা আহমেদ মাত্র ১৪ বছর বয়সে মানারাত ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের পাঁচতলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন। পরীক্ষা চলাকালীন নকলের অভিযোগ আসে বুশরার বিরুদ্ধে।  

বিষয়টি বুশরার পরিবারকে জানাবার প্রাক্কালে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে চলে যান। পরে সকলের অগোচরে স্কুলভবনের পাঁচতলায় উঠে বুশরা লাফ দেন। 

বিষয়টি ব্যথিত করেছিল ওয়াসিমকে। শোকে কাতর হয়ে পড়েছিলেন।

পুত্র ফারদিন লন্ডনের কারডিফ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলএম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ব্যারিস্টার হিসেবে আইন পেশায় নিয়োজিত হন।

ওয়াসিমের পুরো নাম মেজবাহ উদ্দীন আহমেদ। তিনি ১৯৪৭ সালের ২৩ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন। ওয়াসিম ইতিহাস বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। কলেজের ছাত্রাবস্থায় তিনি বডি বিল্ডার হিসেবে নাম করেছিলেন। ১৯৬৪ সালে তিনি বডি বিল্ডিং এর জন্য মি. ইস্ট পাকিস্তান খেতাব অর্জন করেছিলেন।

ঢাকাই ছবির ৭০ থেকে ৮০ দশকের সুপারস্টার ওয়াসিম। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ না ফেরার দেশে পাড়ি জমান এই সুপারস্টার। কিংবদন্তি অভিনেত্রী কবরীর মৃত্যুর একদিনের মাথায় ঢালিউড হারাল এই সুপারস্টারকে। তবে তিনি করোনায় মারা যাননি।  মৃত্যু হয়েছে বার্ধক্যজনিত কারণে।



সাতদিনের সেরা