kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

কাবিলার নিঃশর্ত মুক্তি চেয়ে ছাত্রলীগ নেতার পোস্ট

১৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৮:৫৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাবিলার নিঃশর্ত মুক্তি চেয়ে ছাত্রলীগ নেতার পোস্ট

অবশেষে শেষ হলো ধারাবাহিক 'ব্যাচেলর পয়েন্ট।'  শুরু থেকে প্রতিটি পর্ব টানটান উত্তেজনায় ছিল। ৩ টি সিজনে ৭৯ পর্বে এসে ধারাবাহিকটি শেষ হলো। শেষ পর্ব বেশ আলোচিত হয়েছে। কেননা শেষ পর্বে এই ধারাবাহিকের অত্যন্ত আলোচিত চরিত্র কাবিলা গ্রেপ্তার হয়েছেন। আর এই গ্রেপ্তার মানতে পারছেন না নাটকটির দর্শকেরা।

এই মানতে না পারার দলে শুধু সাধারণ দর্শক নয়, নামী দামি মানুষ রয়েছেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল ফেসবুকে কাবিলার নিঃশর্ত মুক্তি চেয়ে পোস্ট দিয়েছেন। ফেসবুকে লিখেছেন, 'কাবিলার নিঃশর্ত মুক্তি চাই।' সঙ্গে যুক্ত করে দিয়েছেন কাবিলার গ্রেপ্তারের ছবি। পোস্টের মন্তব্য বাক্সে অসংখ্য ছাত্রলীগ কর্মী এই দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে কাবিলার মুক্তি পেয়েছেন, এমনকী আগামীদিনের নোয়াখালীর এমপি হিসেবেও আখ্যায়িত করছেন।

এদিকে আরেক ছাত্রলীগ নেতা ও আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক কাইজার রনিও কাবিলার মুক্তি দাবি করেছেন। তিনি ফেসবুকে মুক্তি চেয়ে লিখেছেন, 'কাবিলার মুক্তি চাই। দিতে হবে। ব্যাচেলর পয়েন্ট এ কাবিলাকে লাগবে। হোক প্রতিবাদ।'

সাধারণ দর্শকেরাও কাবিলার মুক্তি দাবি করছেন, এজন্য ফেসবুকে হুমকি ধামকি মামলার পোস্টও দিচ্ছেন। তবে কাবিলা আর মুক্তি পাচ্ছে না সহসাই। কেননা ব্যাচেলর পয়েন্টের নতুন কোনো পর্ব আসছে না আর। যার ফলে কাবিলাও থেকে যাচ্ছেন জেলে, অন্ধকারে। কাবিলা মুক্তি পাবে কি না এর উত্তরে কাজল আরেফিন অমি বলেন, 'আসলে ব্যাচেলর পয়েন্ট তো শেষ হয়ে গেছে, যার ফলে কাবিলার মুক্তির প্রশ্নই আসে না। ভবিষ্যতে দেখা যায়।'

কাবিলা ব্যাচেলর পয়েন্টের একটি উল্লেখযোগ্য চরিত্রের। এই চরিত্রে জিয়াউল হক পলাশ অভিনয় করেছেন।

নাটকে মূলত ব্যাচেলরদের গল্প বলা হয়েছে। দেশের নানা প্রান্ত থেকে রাজধানীতে ভিড় করেন ব্যাচেলর অনেক নারী-পুরুষ। তাদের কেউ থাকেন মেসে, কেউ বা আবার দলবদ্ধ হয়ে ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন। নগরীতে বসবাসরত ব্যাচেলরদের জীবনযাপন নিয়ে নির্মিত হয়েছে ধারাবাহিক নাটক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’। কমেডি ঘরানার নাটকটি রচনা, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন কাজল আরেফিন অমি।

ব্যাচেলর পয়েন্ট-এর প্রতিটি চরিত্র আলোচনায় এসেছে নতুনভাবে, নতুন স্বরে। আলোচনা সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। পেয়েছে ভালোবাসা। কাবিলা চরিত্রটি যেমন অনবদ্য হয়ে উঠেছিল, তেমনই পাশা, হাবু, শুভ, নেহাল, অন্তরা থেকে শুরু করে প্রতিটি চরিত্র ছিল অনন্য। এই ধারাবাহিকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন মারজুক রাসেল, চাষি আলম, তৌসিফ মাহবুব, শামীম হাসান, মিশু সাব্বির, জিয়াউল হক পলাশ, শরাফ আহমেদ জীবন, সাবিলা নূর, মনিরা মিঠু, ফারিয়া শাহরিন, আবদুল্লাহ রানা, পাভেল, মুসাফির বাচ্চু, শিমুল শর্মা, তুর্যসহ অনেকে। 

ব্যাচেলর পয়েন্টের প্রতিটি পর্ব যেমন ছিল আলোচনায়, তেমনই ইউটিউবে ভিউয়ের পরিমাণ ছিল মাথ্যা ঘোরানো। বলা যায় এসব খেলাস সাঙ্গ হলো। আসলেই কি তাই? পরিচালকের সঙ্গে কথা হলো এ বিষয়ে। 

প্রথম ও দ্বিতীয় সিজন হিট হলে তৃতীয় সিজন বানিয়েছিলেন পরিচালক অমি। দর্শকদের কথা, ব্যাচেলর পয়েন্ট ‘সিজন ৩’ আগের দুই সিজনকে ছাড়িয়ে গেছে। তাদের প্রশ্ন ‘সিজন ৪’ আসবে? পরিচালকের উত্তর, এখনো কিছু ভাবিনি। কালের কণ্ঠকে অমি বলেন, 'এখন পর্যন্ত ব্যাচেলর পয়েন্টের নতুন সিজন আনার পরিকল্পনা নেই। এটি শেষ হয়ে গেছে।' 

 



সাতদিনের সেরা