kalerkantho

রবিবার। ৫ বৈশাখ ১৪২৮। ১৮ এপ্রিল ২০২১। ৫ রমজান ১৪৪২

যারা হিমু হতে চান তাদের জন্য এই চলচ্চিত্র : কায়েস আরজু

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ মার্চ, ২০২১ ১২:৫৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যারা হিমু হতে চান তাদের জন্য এই চলচ্চিত্র : কায়েস আরজু

হিমু চরিত্রে নয়, হিমুভক্ত- অর্থাৎ হিমু হতে চায় এমন এক যুবকের চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন সুদর্শন চিত্রনায়ক কায়েস আরজু।  

হুমায়ূন আহমেদ দুটি গুরুত্বপূর্ণ অথবা জনপ্রিয় চরিত্র তৈরি করে গেছেন। একটি লজিক মেনে চলেন, আরেকটি অ্যান্টিলজিক। অ্যান্টিলজিক্যাল চরিত্র হিমু। যার জীবনযাপনের কোনো নির্দিষ্ট গন্তব্য নেই। যিনি খালি পায়ে হাঁটেন। হলুদ পাঞ্জাবি পরেন, যার কোনো পকেট থাকে না। এই চরিত্রকে অনুসরণ করা লোকজনের সংখ্যা কিন্তু কম নয়।

হিমু হতে চায় এমন যুবক একসময় এ দেশে প্রচুর ছিল। এখন অবশ্য সে ঢেউ কিছুটা কমেছে। একবার হুমায়ূন আহমেদ কলকাতা বইমেলায় বসেছিলেন। এক যুবক এসে হুমায়ূন আহমেদের দিকে নিচু হয়ে পা স্পর্শ করে সালাম দিলেন, বললেন- আমি হিমু। হুমায়ূন বললেন- হিমু খালি পায়ে হাঁটেন, দেখি তোমার পা। যুবক পা দেখালেন, তার পা-ও খালি।' 

হিমুকে নিয়ে এমন উন্মাদনা কম নেই। ভক্তরা হিমু হতে চান। এবার সে দলে নাম লেখালেন কায়েস আরজু। চিত্রনায়ক কায়েস আরজু হিমু হতে চাইছেন। তবে বাস্তবে নয়। পর্দায়। 

ছবির নাম হিমুর বসন্ত। এই ছবিতেই কায়েস আরজু হিমুভক্ত হয়ে হিমু সেজে থাকবেন। করবেন হিমুর মতোই কর্মকাণ্ড। এমনটাই কালের কণ্ঠকে জানিয়ে কায়েস আরজু বললেন, 'এটা হুমায়ূন আহমেদের গল্প বা উপন্যাস নয়। তার একটি চরিত্রকে নিয়ে যে উন্মাদনা তৈরি হয় সেটাই দেখানো হবে। আমি হিমু নই। এই সিনেমার গল্পে আমি একজন হিমু অনুসরণকারী। আমিও নানা অদ্ভুত কর্মকাণ্ড করে হিমু হতে চাইব। যার ফলে হুমায়ূন আহমেদের যেসব ভক্তরা শঙ্কিত হচ্ছেন তাদের শঙ্কিত হবার কারণ নেই।'

কায়েস আরজু বলেন, 'অনেকেই হিমু হতে চায়। কিভাবে হতে চায়, কী করেন তিনি- সেটা তিনিই জানেন। এই সিনেমায় আমি হিমু হতে চাইছি- কি বিচিত্র কাণ্ড করছি। সেটা দেখে বরং ভক্তরা আনন্দিতই হবেন। অন্তত কে কিভাবে হিমু হতে চাইছে সে বিষয়গুলো যেমন আবেগের, তেমনই মজার কিংবা উদাসীনতার। যারা হিমু হতে চান, তাদের জন্যই এই চলচ্চিত্র।' 

গত ২৩ মার্চ থেকে ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে রাজধানীর প্রিয়াঙ্কা শুটিং স্পটে। এতে আরো অভিনয় করছেন রোমানা নীড়, খলিলুর রহমান কাদেরী, আনোয়ার সিরাজীসহ অনেকে। পরিচালনা করছেন মির্জা সাকাওয়াত হোসেন। 

২০০৭ সালে হাছিবুল ইসলাম মিজানের ‘তুমি আছো হৃদয়ে’ ছবি দিয়ে অভিষেক হয় কায়েস আরজুর। প্রথম ছবিতেই সবার নজর কাড়েন সুদর্শন এই চিত্রনায়ক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা