kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

ফের 'বাজে' মন্তব্যের মুখে মধুমিতা

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ মার্চ, ২০২১ ১৪:২৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফের 'বাজে' মন্তব্যের মুখে মধুমিতা

ফেসবুকে খোলামেলা ছবি শেয়ার করে সমালোচনার মুখে পড়লেন মধুমিতা সরকার। মঙ্গলবার ফেসবুকে ছবি শেয়ার করার পর থেকেই একের পর এক বাজে মন্তব্যের আক্রমণের মুখে পড়তে হয় মধুমিতাকে। 

পাখি নামে এই দেশে ড্রেস নিয়ে কত কাণ্ডই না ঘটে গেছে। মানে ঈদ উপলক্ষে পাখি ড্রেস, এটা উপলক্ষে পাখি চুড়ি। পাখি নামটার নানামূখী ব্যবহার শুরু হয় শুধুমাত্র কলকাতার সিরিয়ালের একটি কল্যাণে। তবে এবার সত্যিকারের পাখি মানে মধুমিতাই পোশাকের কারণে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হয়েছেন।

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার বিভিন্ন সমালোচনার মধুমিতাকে। কখনও ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তাঁকে, আবার কখনও অভিনেত্রীর ছবির নীচে একের পর এক অশ্লীল মন্তব্য জুড়ে দেওয়া হয়। যদিও একের পর এক সমালোচনা এবং কটাক্ষের মুখে পড়েও এ বিষয়ে পালটা কোনও মন্তব্য করতে দেখা যায়নি মধুমিতা সরকারকে।

মধুমিতা সরকারই প্রথম অভিনেত্রী নন, যাঁকে সামাজিক মাধ্যমে আক্রমণ এবং কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়। টলিউড থেকে বলিউড, বিভিন্ন সময় তারকারা নেট পাড়ার মানুষের আক্রমণের মুখে পড়েন বিভিন্নভাবে। সে করিনা কাপুর খান হোক কিংবা ঐশ্বর্য রাই বচ্চন বা আলিয়া ভাট, বিভিন্ন সময় নায়িকাদের আক্রমণের মুখে পড়তে হয়। এক নাগাড়ে নেটিজেনদের একাংশের মানুষের আক্রমণের মুখে পড়ে, ইনস্টাগ্রামে কমেন্ট সেকশন বন্ধ করে দেন আলিয়া, করিনারা।

বলিউডের পাশাপাশি সম্প্রতি ধর্ম এবং সামাজিক আচার আচরণ নিয়ে কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় বাংলাদেশি অভিনেত্রী মিথিলাকেও। অন্য ধর্মের হয়ে মিথিলা কীভাবে ভাইফোঁটার মতো আচরণ পালন করেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকে। ওই ঘটনার পর নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকে কমেন্ট অপশন বন্ধ করে দিতে দেখা যায় রাফিয়াত রশিদ মিথিলাকেও। যা নিয়ে  আলোচনা শুরু হয়।

'পাখি' একটি সরল, হাসিখুশি,সংসারী মেয়ে। সে তার পরিবারকে খুবই ভালোবাসে। "অরণ্য সিংহ রায়" একজন ব্যবসায়ী। সে ভালোবাসায় বিশ্বাস করে না। তবে সে তার 'অনু' দিদিকে খুব ভালোবাসে। ঘটনাচক্রে অরণ্য'র ভাইয়ের সাথে পাখি'র বোনের বিয়ে হয়। এর সূত্র ধরে অরণ্য আর পাখির মধ্যে বিয়ে হয়। তাদের মধ্যে সমস্যা সৃষ্টি করার চেষ্টা করে অনু'দির বর কৃষ্ণেন্দু ও অরণ্য এর পুরোনো বান্ধবী পামেলা। কারণ কৃষ্ণেন্দু পাখিকে আর পামেলা অরণ্যকে পছন্দ করে। তবে পাখি আর অরণ্য সব বাধা পেরিয়ে একে অপরকে প্রচণ্ড ভালোবাসতে শুরু করে। তারা পুনর্বিবাহের সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু বিয়ের সময় অরণ্য'র গুলি লাগে।

'বোঝেনা সে বোঝেনা' নামের সিরিয়ালটি স্টার জলসায় সম্প্রচারিত জনপ্রিয় টিভি ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিকে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন মধুমিতা সরকার। পাখি চরিত্রটি মূলত মধুমিতাই পর্দার রূপ। পাখি হিসেবে বেশ জনপ্রিয় হন তিনি। পাখির আড়ালে তার আসল নামটাই ঢেকে গিয়েছিল। 

হিন্দি ধারাবাহিক ইস পেয়ার কো কেয়া নাম দু ধারাবাহিকের পুনঃনির্মাণ এটি। বাংলা ভাষার এই ধারাবাহিকটি ভারতের পাশাপাশি বাংলাদেশেও ব্যাপক জনপ্রিয় হয়। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা