kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ বৈশাখ ১৪২৮। ২২ এপ্রিল ২০২১। ৯ রমজান ১৪৪২

কাল থেকে ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:১৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাল থেকে ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব

ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব - ডিআইএমএফএফ’, ৩৬টি নির্বাচিত চলচ্চিত্র নিয়ে সপ্তম আসর শুরু হচ্ছে। আগামী শুক্রবার ২৬ ও শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। দুইদিনব্যাপী উৎসবকে ঘিরে বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১ টায় অনলাইন জুম প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

উৎসবটিকে কেন্দ্র করে আয়োজন করা হয়েছে দুইটি মাস্টারক্লাস।  প্রথমটি  যুক্তরাজ্যের লেখক ও প্রশিক্ষক, ড. স্টিফেন কুইন এর “স্মার্টফোন দ্বারা সৃজনশীলতা প্রকাশ”, ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ৮ টায় এবং দ্বিতীয়টি পাকিস্তানের মোবাইল চলচ্চিত্র নির্মাতা ও প্রশিক্ষক আয়াজ খান এর “মোবাইল মিডিয়া প্রোডাকশনের যুগে স্বতন্ত্র চলচ্চিত্র নির্মাতাদের ক্ষমতায়ন করা” যা ২৭ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২ টায় অনলাইন প্ল্যাটফর্ম জুম’এ অনুষ্ঠিত হবে। এ উৎসবে ৩০টি দেশ থেকে মোট ১৭৮টি চলচ্চিত্র জমা পড়েছিল এবং ৩৬ টি নির্বাচিত চলচ্চিত্রের নামসহ ডিরেক্টরের নাম ও স্ক্রিনিং সময় ব্রিফ দিয়েছেন ফেস্টিভ্যাল কো-অরডিনেটর  জেরিন তাসনিম তাহসিন।   

ডিআইএমএফএফ এর তিনটি ক্যাটাগরি নিয়ে চলচ্চিত্র জমা নেয়া শুরু হয়েছিল।  স্ক্রিনিং বিভাগে প্রথমবারের মতো “ডিআইএমএফএফ বেস্ট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড” যুক্ত করা হয়েছে।  যে কেউ এতে অংশ নিতে পেরেছেন, এতে চলচ্চিত্র দৈর্ঘ্য নির্ধারিত ছিল না।  কম্পিটিশন বিভাগে শুধুমাত্র  বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা চলচ্চিত্র জমা দিয়েছে; এই বিভাগ থেকে সেরা চলচ্চিত্রটি পাবে ‘সিনেমাস্কোপ বেস্ট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’।   প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ‘ওয়ান মিনিট’ বিভাগের জন্য চলচ্চিত্র জমা দিয়েছে এবং এই বিভাগের সেরা চলচ্চিত্রটি পাবে ‘ইউল্যাব ইয়াং ফিল্ম মেকার অ্যাওয়ার্ড’।  কম্পিটিশন বিভাগের জন্য চলচ্চিত্রের  দৈর্ঘ্য সর্বোচ্চ ১০ মিনিট এবং ওয়ান মিনিট বিভাগের জন্য ১ মিনিট দৈর্ঘ্যের টাইটেল ও ক্রেডিট লাইন মিলিয়ে হতে হয়েছে ।  প্রত্যেকটি চলচ্চিত্রের সাথে ইংরেজি সাব-টাইটেল যুক্ত থাকা বাধ্যতামূলক ছিল।

ডিআইএমএফএফ ২০২১ এর বিচারকাজ সম্পন্ন করেছেন রতন কুমার পল,সাথে বিচারক রয়েছেন তানহা জাফরিন এবং অমিতাভ রেজা চৌধুরী, বলে জানিয়েছেন ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টর রাফি আহমেদ।    

“সিনেমা বানাই ঘরে বসে, সবার জন্য চলচ্চিত্র নির্মাণ” শিরোনামে ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ বা সমমানের শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের জন্য এই অনলাইন প্রশিক্ষণটি আট সপ্তাহের পাঠক্রমের সাজানো হয়েছে।  সামার-২০২০ এ ১০৮০ জন থেকে ১৪৬ শিক্ষার্থী ও ফল-২০২০ এ ১১০জন থেকে ৬৫ শিক্ষার্থীকে নিয়ে দুইটি সেমিস্টার আয়োজন করা হয়।  সামার সেমিস্টারে কোর্স থেকে মোট ৬০ টি চলচ্চিত্র ডিআইএমএফএফ ওয়ান মিনিট ক্যাটেগরিতে জমা পরে এবং ফল সেমিস্টার থেকে ২৪টি চলচ্চিত্র সম্পূর্ণ হয়ে থাকে। 

ইউল্যাবের অন্যতম শিক্ষানবিশ প্রোগ্রাম “সিনেমাস্কোপ” এর শিক্ষার্থীদের অধীনেই আয়োজিত হচ্ছে ডিআইএমএফএফ। সপ্তম ডিআইএমএফএফ-২০২১ স্পন্সর ও পার্টনারদের পেয়ে আনন্দিত। বড় উৎসবকে কেন্দ্র করে সমাপনী অনুষ্ঠানে দ্বিতীয়বারের জন্য ভেন্যু পার্টনার থাকছে “স্টার সিনেপ্লেক্স”

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা