kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

আফগানিস্তানের প্রথম নারী ‘ব্রেকড্যান্সার’ মনিজা তালাশ

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগানিস্তানের প্রথম নারী ‘ব্রেকড্যান্সার’ মনিজা তালাশ

মনিজা তালাশ কয়েকমাস আগে একমাত্র নারী হিসেবে আফগানিস্তানের একটি ব্রেকড্যান্স কমিউনিটিতে যোগ দেন। ব্রেকড্যান্স অলিম্পিক গেমসেও যুক্ত হয়েছে। সেখানে আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করতে চান তিনি। মাথা থেকে পা পর্যন্ত কালো রঙের পোশাকে ঢেকে তাকে প্রশিক্ষণ নিতে হয়, যা বিশ্বের আর কোনো ব্রেকড্যান্সারের ক্ষেত্রে দেখা যায় না। 

রক্ষণশীল আফগানদের অনেকেই নাচে নারীর অংশগ্রহণের তীব্র বিরোধিতা করেন। মনিজা তালাশ জানান, নাচার জন্য তাকে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে কিন্তু তারপরও নিজের স্বপ্ন পূরণে তিনি নাচ চালিয়ে যাচ্ছেন।

এক বছর আগে কাবুলে ড্যান্স ক্লাব প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। বর্তমানে সেই ক্লাবের সদস্য সংখ্যা ৩০, তাদের মধ্যে ছয়জন নারী। কাবুলের মার্শাল আর্ট সেন্টারে প্রাকটিস শুরুর আগে সাহসী এই নারী সাংবাদিকদের বলেন, আমি অন্যরকম হতে চাই, আমি আফগানিস্তানের ভালো একটি রোল মডেল হতে চাই। 

আফগানিস্তানে গত দুই দশকে জঙ্গিরা অনেকবার মেয়েদের স্কুলগুলোতে হামলা করেছে। গত বছরের মে মাসে হাসপাতালের প্রসূতি ওয়ার্ডে এক ভয়াবহ হামলায় ১৬ জন মাসহ মোট ২৪ জন মারা যায়। তালাশ বলেন, তালেবানরা যদি আবার ফিরে আসে আর আমি যদি ব্রেকড্যান্স চালিয়ে যেতে না পারি, এ কথা ভাবলে আমার ভীষণ মন খারাপ হয়। ব্রেকড্যান্সার এবং প্রশিক্ষক সাজাদ তেমুরিয়ান বলেন, ব্রেকড্যান্সে মেয়েদের অংশ নেওয়াকে আমি খুব ভালো মনে করি। 

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি ২০২৪ সালের প্যারিসে অলিম্পিকে ব্রেকড্যান্সকেও অন্তর্ভুক্ত করেছে। মনিজা তালাশ বলেন, ‘জীবনে কোনোকিছুই অর্জন করা সহজ নয়। ব্রেকড্যান্স খুবই কঠিন। তবে ইচ্ছা আর সাহস থাকলে লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব হতে পারে।’

সূত্র: ডয়চে ভেলে বাংলা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা