kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অভিনন্দন জানালেন অনুপম, তাহসান বললেন 'ধন্যবাদ বন্ধু...'

অনলাইন ডেস্ক   

৩ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিনন্দন জানালেন অনুপম, তাহসান বললেন 'ধন্যবাদ বন্ধু...'

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খান। বাংলাদেশ থেকে সংস্থাটির প্রথম শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন এই তারকা। শনিবার ইউএনএইচসিআর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। তাহসানের শুভেচ্ছাদূত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিনন্দন জানালেন বর্তমানে ভারতের বাংলা গানের এক নম্বর সংগীতশিল্পী অনুপম রায়। 

পৃথিবীজুড়ে ইউএনএইচসিআরের ৩২ জন শুভেচ্ছা দূত আছেন। যারা তাদের জনপ্রিয়তা, নিষ্ঠা ও কাজের মাধ্যমে সারা বিশ্বের শরণার্থীদের পরিস্থিতি ও ইউএনএইচসিআরের কাজ সবার সামনে তুলে ধরেন। ২০১৯ সাল থেকে তাহসান শরণার্থীদের কথা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার বিভিন্ন উদ্যোগে ইউএনএইচসিআরের সঙ্গে একত্রে কাজ করে চলেছেন। তিনি কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবির পরিদর্শন করেছেন এবং বিশ্ব শরণার্থী দিবস ও ইউএনএইচসিআরের অন্যান্য অনুষ্ঠানে যুক্ত থেকে সহায়তা করেছেন।  

এসব কাজের মাধ্যমে তাহসান কক্সবাজারে শরণার্থীদের জন্য মানবিক কার্যক্রম সামনাসামনি দেখেছেন, কথা বলেছেন শরণার্থীদের সঙ্গে, আর বাস্তুচ্যুতির মূল কারণগুলো সম্পর্কে আরো ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। 

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) শুভেচ্ছা দূত হওয়ার পর বেশ কিছু অফিশিয়াল ছবি সোশ্যাল হ্যান্ডেলে শেয়ার করেছেন তাহসান। সেখানে এসেই অনুপম লিখেছেন, খুব ভালো। একই সঙ্গে তালি বাজিয়ে অভিবাদন জানানোর ইমোজি ব্যবহার করেছেন। তাহসান উত্তরে বলেন, 'থ্যাংকস বন্ধু, এবার আমাদের গানটা শেষ করতে হবে।'

শুভেচ্ছা দূত হওয়ার পর শনিবার তাহসান বলেন, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি সম্মানিত ও গর্বিত। ইউএনএইচসিআর সারা বিশ্বের শরণার্থী ও বাস্তুচ্যুতদের সুরক্ষা নিশ্চিত করে, জীবন রক্ষাকারী সহায়তা দেয়, আর সংকট সমাধানের উদ্দেশ্যে কাজ করে। পৃথিবীর এক শতাংশেরও বেশি মানুষ (প্রতি ৯৭ জনে ১ জন) আজ সংঘাত ও নির্যাতনের কারণে বাস্তুচ্যুত। ভাগ্যবান ৯৯ শতাংশ মানুষের একজন হিসেবে শরণার্থীদের হয়ে কথা বলা আমার মানবিক দায়িত্ব।



সাতদিনের সেরা