kalerkantho

সোমবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭। ১ মার্চ ২০২১। ১৬ রজব ১৪৪২

The Cremation : নবম মুম্বাই শর্টস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা চলচ্চিত্র

অনলাইন ডেস্ক   

৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:৫৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



The Cremation : নবম মুম্বাই শর্টস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা চলচ্চিত্র

৬ ডিসেম্বর ছিল উৎসবের সমাপনী দিন। সমাপনী দিনে অনলাইনে পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রের নাম ঘোষণা করা হয়। 'শর্ট ফিল্ম-প্রফেশনাল ক্যাটাগরি'তে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার অর্জন করে The Cremation।

পুরস্কার অর্জন সম্পর্কে চলচ্চিত্রকার বলেন, অফিসিয়াল সিলেকশন হওয়াতেই আনন্দিত ছিলাম, পুরস্কার পাব এটা আসলেই ভাবিনি। তবে এই পুরস্কার আমার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটা আমার প্রথম সিনেমা। এই সিনেমার জন্য স্ট্রাগলের গল্প নিয়ে ভবিষ্যতে একটা সিনেমা বানাব। এই মুহূর্তে স্মরণ করছি 'ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ' ডিপার্টমেন্টের শিক্ষকদের, ফিল্ম বানানোর প্রথম পাঠ পেয়েছিলাম তাঁদের কাছ থেকে। এই পুরস্কার উৎসর্গ করছি আমার পরিবার, ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের শ্রদ্ধেয় শিক্ষকবৃন্দ এবং প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদকে। কাকতালীয়ভাবে পুরস্কার যেদিন ঘোষণা করা হলো সেদিনটি ছিল তারেক মাসুদ স্যারের জন্মদিন। এই চলচ্চিত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তাঁদের সহযোগিতা না পেলে এই সিনেমা নির্মাণ সম্ভব হতো না। এই মুহূর্তে এর বেশি কিছু বলার ভাষা আমার নেই।

২০১৪-২০১৫ অর্থবছরে সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক-এর 'নেপেন দারোগার দায়ভার' শীর্ষক ছোটগল্প অবলম্বনে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য সরকারি অনুদানের জন্য মনোনীত হয়। ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে চলচ্চিত্রের শুটিং এবং ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পোস্ট-প্রডাকশনের কাজ শেষ করেন পরিচালক মেহেদী হাসান শামীম। চলচ্চিত্রটি নির্মাণের পরে নামকরণ করা হয় The Cremation। জানুয়ারি মাসে চলচ্চিত্রটি 'নবম মুম্বাই শর্টস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল'-এ জমা দেওয়া হয়।

ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে সংঘটিত কৃষক আন্দোলনে দেবেশ বকশি নামক একজন কর্মীকে পুলিশ হেফাজতে হত্যা করা হয়। মৃত ব্যক্তির লাশ নিয়ে ব্রিটিশ পুলিশের দুজন সেপাইসহ নেপেন দারোগা উপস্থিত হয় কাঁঠালবাড়ি গ্রামে। ব্রিটিশ ম্যাজিস্ট্রেট বেল সাহেব বলে দিয়েছেন লাশ কাঁঠালবাড়ি গ্রামেই দাহ করতে হবে। গ্রামের মানুষ ভয় পেয়ে পুলিশ আসার আগেই পালিয়ে যায়, লাশ দাহ করার মতো কোনো লোক গ্রামে খুঁজে পাওয়া যায় না। এমনই একটি প্রেক্ষাপটের ওপর ভিত্তি করে সৈয়দ হক গল্পটি লিখেছেন। 

চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আমিনুর রহমান মুকুল, সৈকত সিদ্দিকী, রোকনুজ্জামান রুনু, নিপা খান, নূরী শাহ্ ও ইমরান। সিনেমাটোগ্রাফি করেছেন দানিয়েল ড্যানি, এডিটিং করেছেন আশিকুর রহমান সুজন, শব্দশিল্পী রতন পাল, আর্ট ডিরেকশন দিয়েছেন থিওফেলাস স্কট, পোশাক পরিকল্পনা করেছেন ফাহমিদা মল্লিক, ভিএফএক্স করেছেন শমীক মনন ও কালার করেছেন রাশেদুজ্জামান সোহাগ।

সিনেমার এক্সিকিউটিভ প্রডিউসার বাবলু বোস ও প্রযোজনা করেছেন আয়শা আউয়াল। বৈশ্বিক মহামারির কারণে নবম মুম্বাই শর্টস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ৬ ডিসেম্বর অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা