kalerkantho

শনিবার। ২ মাঘ ১৪২৭। ১৬ জানুয়ারি ২০২১। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দিল্লির কৃষক বিক্ষোভ: এবার পোস্ট মুছে দিয়ে বিতর্কে ধর্মেন্দ্র

অনলাইন ডেস্ক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ১২:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিল্লির কৃষক বিক্ষোভ: এবার পোস্ট মুছে দিয়ে বিতর্কে ধর্মেন্দ্র

দিল্লির কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট করে অস্বস্তিতে কঙ্গনা রানাউত। এবার একই বিষয়ে পোস্ট করে ট্রোলড হতে হলো বর্ষীয়ান বলিউড তারকা ধর্মেন্দ্রকেও। তবে ধর্মেন্দ্রর ক্ষেত্রে কারণটা আলাদা। তাঁকে নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার হতে হল পোস্ট করেও তা ডিলিট করে দেওয়ার জন্য। পরে এর উত্তরও দেন অভিনেতা নিজেই।

ঠিক কী হয়েছিল? ধর্মেন্দ্র একটি পোস্ট করেছিলেন নিজের টুইটার হ্যান্ডল থেকে। সেখানে সরকারকে কৃষকদের সমস্যার দ্রুত সমাধানের আরজি জানান তিনি। কিন্তু পরে তিনি পোস্টটি মুছে দেন। আর সেখান থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। তাঁর পোস্টের স্ক্রিনশট নিয়ে এক ব্যক্তি সেটি ফের শেয়ার করে দেন। সেই সঙ্গে খোঁচাও দেন কিংবদন্তি অভিনেতাকে। ধর্মেন্দ্রকে ট্রোল করে অনেক নেটিজেনই মন্তব্য করেন, তাঁর ছেলে সানি দেওল নিজেই যে সরকারের অংশ, পোস্ট করার সময় সেটা হয়তো খেয়াল ছিল না তাঁর। পরে মনে পড়তেই তাই পোস্ট ডিলিট করেছেন তিনি।

এই ধরনের কটাক্ষ চলতে থাকায় এরপর ফের আসরে নামেন ধর্মেন্দ্র। ওই পোস্টের নিচে কমেন্ট করে পরিষ্কার জানিয়ে দেন, কেন তিনি পোস্ট করেও তা মুছে ফেলেছেন। বর্ষীয়ান অভিনেতা লিখেছেন, আপনাদের এই ধরনের কমেন্টের জন্যই দুঃখিত হয়ে আমার পোস্টটা ডিলিট করেছিলাম। মনের আনন্দে গালাগালি দিন। আপনারা খুশি হলেই আমি খুশি। তবে হ্যাঁ, আমি কৃষকদের প্রতি সমব্যথী। সরকারের উচিত, দ্রুত এর সমাধান করা।’

বলিউডের বহু ব্যক্তিত্বই কৃষি আইন বাতিলের প্রতিবাদে দিল্লিতে চলতে থাকা বিক্ষোভের বিষয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে নিঃসন্দেহে আলোচনায় সব থেকে বেশি উঠে এসেছে ‘কন্ট্রোভার্সি কুইন’ কঙ্গনা রানাউতের নাম। কৃষক আন্দোলনে যোগ দেওয়া এক বৃদ্ধাকে ‘শাহিনবাগের দাদি’ বিলকিস বানোর সঙ্গে গুলিয়ে তাঁর সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করার জন্য বিতর্কে জড়াতে হয়েছে তাঁকে। ধর্মেন্দ্র এমন কিছু না করলেও, স্রেফ পোস্ট মুছে দেওয়ার জন্যই এবার নেটজনতার বিদ্রূপের মুখে পড়লেন।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা