kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

লেজার ট্রিটের জন্মদিনে তারকার মেলা

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ অক্টোবর, ২০২০ ১১:৪০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লেজার ট্রিটের জন্মদিনে তারকার মেলা

দেশের অভিজাত এসথেটিক ডার্মাটোলজি ক্লিনিক লেজার ট্রিট। বাংলাদেশের প্রথম আইএসও সনদপ্রাপ্ত বিউটিসিনোলজি ক্লিনিক এটি। সৌন্দর্য, মেডিসিন এবং টেকনোলজি- এই তিনের সমন্বয়ে বিউটিসিনোলজির ধারণা নিয়ে এক দশক আগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ক্লিনিকটি। সৌন্দর্য বিকাশে প্রতিষ্ঠানটি এখন দেশব্যাপী বিপুল জনপ্রিয়। সুনাম দেশ ছাড়িয়ে ছড়াচ্ছে দেশের বাইরেও।

সম্প্রতি লেজার ট্রিট ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে পালন করে ‘জীবন পরিবর্তনের’ ১০ বছর পূর্তি। সামাজিক দূরত্ব বজায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে পালিত হয় অনুষ্ঠানটি। ১০ বছর পূর্তির এই আনন্দময় মুহূর্তকে অভিবাদন জানাতে প্রধান অতিথি হিসেবে পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী এবং সংসদ সদস্য জনাব তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত চর্মবিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. এম ইউ কবির চৌধুরী।

এ ছাড়া ১০ বছর পূর্তির এই আনন্দময় মুহূর্তকে শুভ কামনা জানাতে অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন অসংখ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব, খেলোয়াড় এবং চিকিৎসকরা। লেজার ট্রিটের সাফল্যের ১০ বছর পূর্তিতে অসাধারণ একটি গান রচনা করেন তাসনিম আনিকা। শ্রাবণ্য তৌহিদার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটি ছিল আমোদপূর্ণ। জয়া আহসান, আরেফিন শুভ, বিদ্যা সিনহা মিম, মামনুন হাসান ইমন, আলিশা প্রধান, সায়েদ রুমাসহ  অসংখ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বরা তাদের শুভ কামনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানটিতে। চোখ ধাঁধানো সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার পর সবাই উপাদেয় সান্ধ্য ভোজন উপভোগ করেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী দিলশাদ নাহার কণা এবং ফাতেমা তুজ জোহরা ঐশীর সুরের মূর্ছনা দর্শকদের বিমোহিত করে। লেজার ট্রিটের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট লঞ্চিং ছিল এই অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ।

জনপ্রিয় নির্মাতা নোমান রবিন এ উপলক্ষে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য অডিও ভিজ্যুয়াল নির্মাণের মাধ্যমে তার শুভ কামনা জানান। দেশ-বিদেশ থেকে অসংখ্য বন্ধু শুভানুধ্যায়ীরা লেজার ট্রিটের ১০ বছর পূর্তিতে অনলাইনের মাধ্যমেও শুভেচ্ছা জানান। এ ছাড়া প্রত্যক্ষ অনুষ্ঠানও ছিল তাদের আন্তরিকতা ও কৃতজ্ঞতার বাণীপূর্ণ। তারা প্রত্যেকেই কিভাবে লেজার ট্রিটের সেবা আর দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞ জনাব ড. মাহবুব সরকার আহমেদ শামীম তাদের জীবনকে বদলে দিয়েছেন, সে সম্পর্কে নিজেদের আনন্দময় ও ইতিবাচক অনুভূতি প্রকাশ করেন। তাদের শুভ কামনা লেজার ট্রিটের ১০ বছরের পদচারণকে যেমন আরো দ্রুততর করবে ঠিক, তেমনি এর আগামীর পথচলাকে করবে আরো মসৃণ আর একে দেবে এক নতুনতর দ্রুতি আর স্পৃহা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা