kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ কার্তিক ১৪২৭। ২৯ অক্টোবর ২০২০। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

লীনা গাঙ্গুলীর নতুন চমক ‘খড়কুটো’

তুরুপের তাস ‘মোহর’ ও ‘শ্রীময়ী’তেও অনবদ্য

এস এম রওনক রহমান আনন্দ,   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৬:৩১ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



লীনা গাঙ্গুলীর নতুন চমক ‘খড়কুটো’

খড়কুটো

সারা সপ্তাহজুড়ে ভারতীয় টিভি সিরিয়াল গুলোর সমস্ত ধারাবাহিকে প্রতিনিয়ত দর্শকদের নজর। দুই বাংলার কোটি কোটি দর্শকদের প্রিয় ধারাবাহিকগুলি আবার ভিড় জমিয়েছে ড্রয়িংরুমে। লড়াই চলছে হাড্ডাহাড্ডি। মন্দ হচ্ছে না এবারের লড়াইটাও। প্রতি সপ্তাহে জনতার রায়ে কখনো ‘কৃষ্ণকলি’ আবার যেমন এই সপ্তাহে বেঙ্গল টপার ‘মোহর’ ৷ এদিকে নম্বরের একচুল এদিক ওদিকে দ্বিতীয় স্থানে ও তৃতীয় স্থানে পরিবর্তন । প্রথম সারি থেকে ধুম করে  পেছনে পড়ে গেলো শ্রীময়ী। নতুন কিছু দেখার আগ্রহে লীনা গাঙ্গুলীর নতুন ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’ ঢের এগিয়ে রয়েছে বিপরীত স্লটের ধারাবাহিক থেকে। লক ডাউন ও করোনা পরিস্থিতিতে থমকে গিয়েছিল ইন্ডাস্ট্রির শুটিং। বন্দী দশায় কাটানো সিরিয়াল প্রেমী দর্শকরা পড়েছিলেন সবচেয়ে সমস্যায়। সারাদিনের পরিশ্রমের পর সান্ধ্যকালীন অবসরে সিরিয়াল দেখার আমেজ থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছিল তাঁদের। ধীরে ধীরে লক ডাউন উঠলে শর্তসাপেক্ষে শুটিং শুরু হলে আবার মুখে হাসি ফোটে সিরিয়ালপ্রেমীদের। খুশির খবর স্টার জলসা প্রেমীদের জন্য। লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের কলমে বাংলা টেলিভিশনের পর্দায় এসেছে আরও এক একান্নবর্তী পরিবারের গল্প ‘খড়কুটো’। 

প্রায় একমাস যাবৎ ‘খড়কুটো’ ইতিমধ্যেই দেখে ফেলেছেন দর্শক। ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ৭.৩০ টা(বাংলাদেশ সময় ৮.০০টা) থেকে চ্যানেলটিতে প্রচারিত হচ্ছে নতুন ধারাবাহিক– খড়কুটো। ম্যাজিক মোমেন্টস্ মোশন পিকচার্সের প্রযোজনায় সিরিয়ালটি প্রযোজিত । পর্ব পরিচালনায় ‘মোহর’ ধারাবাহিকের স্নেহাশিস জানা ৷ উল্লেখ্য, তুমুল জনপ্রিয় ‘খোকাবাবু’ সিরিয়াল ও ‘কলের বউ’ সিরিয়ালের পর আবার এই ধারাবাহিকের মধ্য দিয়ে ছোট পর্দায় ফিরেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী তৃণা সাহা। টলিউডের তিন-চার জন বেশ পরিচিত মুখের ডাক পড়েছিল গুনগুন চরিত্রটির জন্য। 

যদিও সবাইকে টপকে ট্রফি নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছেন ‘কলের বউ’ খ্যাত তৃণা সাহা । নায়ক হিসেবে থাকছেন ‘ফাগুন বউ’ ধারাবাহিকের অনুরূপের ভূমিকায় অভিনয় করা কৌশিক রায়। সুখ দুঃখ, হাসি কান্নার পাঁচমিশালী জীবনে মোড়া একটি পারিবারিক গল্প নিয়ে চলছে ধারাবাহিকটি।‘খড়কুটো’ গল্পের কেন্দ্রে রয়েছে মুখার্জি বাড়ির হাসি, কান্না আর ভালোবাসার ত্রিকোণ প্রেম। এখানে কেউ কৃপণ, কেউ বদমেজাজি, কেউ বা তানপুরা হাতে ভুল গান গায়, কেউ বা অতিমাত্রায় শিশুসুলভ। এরা সকলে সকলকে দারুণ ভালোবাসে।এমনই এক মজাদার পরিবারের গল্প ‘খড়কুটো’।  এরা ঝগড়া করে আবার একে অন্যকে আঁকড়ে ধরে থাকে। ধারাবাহিকটিতে কমেডি আছে ঠাসা ; আছে রাগ, ঝগড়া, ভালোবাসা। কমেডিতে যথারীতি স্বভূমিকায় থাকছেন চন্দন সেন, দুলাল লাহিড়ী, অম্বরীশ ভট্টাচার্য, রত্না ঘোষাল, সোহিনী সেনগুপ্ত, অনুশ্রী দাস সহ আরও অনেকে। 

পরিবারের সবচেয়ে বড় হাড় কৃপণ দুলাল লাহিড়ী ,কমপ্লিট বেসুরো গান গাওয়া চন্দন সেন,ছোটদের আদরের ছোট কাকা অম্বরিশ ভট্টাচার্য।  গুনগুনের পরিবারে আছে পিসি এবং তার বাবা। গুনগুনের মা কর্মসূত্রে দেশের বাইরে থাকেন। গুনগুনের বাবার চরিত্রে রয়েছেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায় এবং পিসির চরিত্রে শুচিস্মিতা। নায়ক সৌজন্য (কৌশিক) থাকেন যৌথ পরিবারে। পরিবারের সকলেই বেশ হাসিখুশি, মজাঠাট্টায় মশগুল। তবে সংস্কারী। অন্যদিকে নায়িকা সমসাময়িক এক মডার্ন মহিলা। যে পরিবারটি কিছু প্রাচীনপন্থী ধ্যানধারণা আঁকড়ে বাঁচে; সেই  পরিবারেই প্রবেশ ঘটে গুনগুনের(তৃণা)। গুনগুন শিক্ষিতা, সুন্দরী, আধুনিকা। ওই পরিবারের কাছে অনেকটাই বেমানান। বিপরীতমুখী প্রেমের সাতকাহন খড়কুটোর কাহিনীর মূল স্রোত। লীনা গাঙ্গুলীর মতে এই সিরিয়ালটির নাম ‘খড়কুটো’ কারণ আজ এই ব্যস্ত সময়ের মধ্যে নিউক্লিয়ার পরিবারের উচ্চবিত্ত জীবন-যাপনে খড়কুটোর মত রয়ে গেছে বাঙালির বড় আপন একান্নবর্তী পরিবার। 

একান্নবর্তী পরিবার মানে এক অন্নে পালিত পরিবার। এসব নিয়েই এগোবে গল্পের ধারা ৷ খুশির কথা, ধারাবাহিকটি দেখানো হবে সপ্তাহের সাতদিনই। স্টার জলসার অন্যতম বহুল জনপ্রিয় ‘কে আপন কে পর’ এর স্থলে শুরু হয়েছে এই ধারাবাহিকটি। স্টার জলসার পাশাপাশি হটস্টার ডিজনি প্ল্যাটফর্মেও দেখানো হবে খড়কুটো। প্রসঙ্গত, এই ধারাবাহিকের স্টার কাস্ট তাক লাগিয়ে দেয়। ম্যাজিক মোমেন্টসের বিখ্যাত জুটি শৈবাল ব্যানার্জি ও লীনা গাঙ্গুলি এবং এই সিরিয়ালের এক ঝাঁক কলাকুশলীরা;কৌশিক রায়,তৃণা সাহা,দুলাল লাহিড়ী,চন্দন সেন,অম্বরিশ ভট্টাচায্য,জয়শ্রী মুখার্জী,রাজন্যা মিত্র,দেবোত্তম মজুমদার,প্রিয়াংকা মিত্র,সোন্যাল মিশ্রা এবং মেগা সিরিয়ালে এই প্রথম সোহিনী সেনগুপ্ত। প্রত্যেকেই যথেষ্ট বলিষ্ঠ এবং বহুল পরিচিত অভিনেতা-অভিনেত্রী ।

সাধারণত লীনা গাঙ্গুলীকে তাঁর সব ধারাবাহিকে প্রায় একই সহঅভিনেতা-অভিনেত্রীদের কাস্ট করেন ৷ ম্যাজিক মোমেন্টসের ব্যানারে ‘ইচ্ছেনদী’,‘ইস্টিকুটুম’,’ফাগুন বউ’,’শ্রীময়ী’,’কুসুম দোলা’,’মোহর’ মেগা সিরিয়াল দুনিয়ায় প্রবল জনপ্রিয় তাই  স্টার জলসার ‘চলো পাল্টাই’ থিমের সঙ্গে মানানসই নতুন সিরিয়াল ‘খড়কুটো’ সবাই নিশ্চয়ই খুব আগ্রহ নিয়ে দেখবেন। ফলে, দর্শকের জন্য ভাল কিছু অপেক্ষা করছে তা বলাই বাহুল্য।

সেই সঙ্গে ‘মোহর’ ও ‘শ্রীময়ী’ তাক লাগিয়ে আসছে গত এক বছর ধরে ৷ সেগুলো ইতিমধ্যেই ‘অলটাইম ব্লকবাস্টার’ এর খেতাব পেয়ে গেছে ৷ তাই হয়তো লীনা গাঙ্গুলীকে চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করে স্টার জলসার প্রাইম টাইম স্লট তুলে দিয়েছেন তাঁর হাতে ৷ এবার বাকিটা দর্শকদের উপরে নির্ভর করছে ৷ উল্লেখ্য, স্টার জলসায় লীনা গাঙ্গুলীর চিত্রনাট্যে ও শৈবাল ব্যানার্জীর পরিচালনায় মোট চারটি ধারাবাহিক প্রচারিত হচ্ছে ৷ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা