kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মৃত্যুর পূর্বে মুম্বাই পুলিশের সাহায্য চেয়ে পাননি দিশা

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৬:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৃত্যুর পূর্বে মুম্বাই পুলিশের সাহায্য চেয়ে পাননি দিশা

৮ জুন আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান। ওই ঘটনার ৫ দিন পর সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। সুশান্তের মৃত্য়ুর পর থেকেই শুরু হয় জোর শোরগোল। দিশার পরিবারের তরফে অবশ্য বার বার দাবি করা হয়েছে, সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে তাঁদের মেয়ের আত্মহত্যা কোনও যোগ নেই। তা সত্ত্বেও অব্যাহত দিশার মৃত্যু নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন। সুশান্ত, দিশার মৃত্যুর রহস্যের মধ্যে এবার নতুন করে প্রশ্ন তুলে দিলেন বিজেপি বিধায়ক নীতিশ রানে।

নীতিশ রানে বলেন, ৮ জুন মুম্বাইয়ের জুহুর পার্টিতে হাজির হন দিশা সালিয়ান। পার্টি শেষ হয়ে যাওয়ার পর আচমকাই দিশা ১০০ নম্বরে ফোন করেন। অর্থাত দিশা ওইদিন মুম্বাই পুলিশের কাছে সাহায্যের আবেদন করে ১০০ নম্বরে ফোন করেন। পার্টি শেষ হয়ে যাওয়ার পর দিশা কেন ১০০ নম্বরে ফোন করে পুলিশের সাহায্য চান, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন নীতিশ রানে।

এসবের পাশাপাশি আরও দাবি করা হয়, ৮ জুন রাত সাড়ে আটটা নাগাদ শেষবারের মতো ফোন করা হয় দিশা সালিয়ানের মোবাইল থেকে। দিশা সালিয়ানের মোবাইল থেকে সাড়ে আটটা নাগাদ শেষ ফোন করা হলেও তা বন্ধ করা হয় ভোর সাড়ে চারটার দিকে। অর্থাত সাড়ে আটটা থেকে সাড়ে চারটে পর্যন্ত কেউ না কেউ দিশার মোবাইল ব্যবহার করছিলেন বলেও দাবি করেন নীতিশ রানে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে নীতিশ রানে বলেন, ৮ জুন যেভাবে ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ দিশার মোবাইল বন্ধ করা হয়, তা থেকে বিভিন্ন প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। দিশা আত্মহত্যা করেননি বলেও জোর গলায় দাবি করেন বিজেপির ওই বিধায়ক। এসবের পাশাপাশি দিশার বন্ধু রোহন রাইকে যাতে নিরাপত্তা দেওয়া হয়, সে বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চিঠি পাঠান নীতিশ রানে। 

দিশার মৃত্যুর পর তাঁর বিশেষ বন্ধু রোহন রাইয়ের প্রাণ সংশয় হতে পারে, সেই আশঙ্কা থেকেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তিনি চিঠি পাঠিয়েছেন বলে দাবি করেন নীতিশ রানে। জিনিউজ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা