kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জামিন পাচ্ছেন না রিয়া, মাদক মামলায় ১০ বছর জেল হতে পারে

অনলাইন ডেস্ক   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৪:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জামিন পাচ্ছেন না রিয়া, মাদক মামলায় ১০ বছর জেল হতে পারে

জামিন নয়, জেলেই থাকতে হচ্ছে রিয়া চক্রবর্তীকে। শুক্রবার রিয়া ও সৌভিক চক্রবর্তীর জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল সেশন কোর্ট। তবে শুধু, রিয়া, সৌভিক নয়, মিরান্ডা, জায়েদ, বসিত, দীপেশদের জামিনের আবেদনও আদালত খারিজ করেছে।

আপাতত তাই জেলেই দিন কাটবে রিয়াদের। রিয়া চক্রবর্তীকে রাখা হয়েছে বাইকুল্লা জেলে। সৌভিক, মিরান্ডা, দীপেশ, বসিত জায়েদদের তালোজা জেলে রাখা হয়েছে। সূত্রের খবর, রিয়া, সৌভিকদের আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে এবার বোম্বে হাইকোর্টে জামিনের জন্য় আবেদন করবেন বলে খবর। পাশাপাশি জায়েদ, বসিত, দীপেশ, মিরান্ডাদের আইনজীবীও জামিন চেয়ে বোম্বে হাইকোর্টে যাচ্ছেন। এদিন বিকেলের মধ্য়ে সেশন কোর্টের নির্দেশের কপি পাওয়ার পরই তাঁরা বোম্বে হাইকোর্টে যাবেন বলে খবর।

সতীশ মানশিন্ডে জানিয়েছেন, আমরা NDPS বিশেষ আদালতের নির্দেশনামা হাতে পেলেই পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে আগামী সপ্তাহে সিদ্ধান্ত নেবো।

গত মঙ্গলবার মাদককাণ্ডে রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করেছে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। বুধবার রিয়াকে আদালতে তোলা হলে তাঁকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়। ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রিয়াকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। সৌভিক চক্রবর্তী স্যামুয়েল মিরান্ডা, বসিত পরিহররাও রয়েছেন ১৪ দিনের বিচারবিভাগীর হেফাজতে।

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় রিয়া চক্রবর্তী 'ড্রাগ সিন্ডিকেট'-এর সক্রিয় সদস্য। সুশান্তের জন্য তিনিই মাদক আনাতেন। তাঁর বিরুদ্ধে NDPS আইন অনুসারে ২৭এ, ২১, ২২, ২৮ ও ২৯ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। রিয়ার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য় ধারায় মামলা হওয়ার কারণেই তাঁদের জামিন পাওয়া বেশ মুশকিল বলে জানা যাচ্ছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে ১০ বছরের জেলও হতে পারে রিয়ার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা