kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

আমার মতো অবস্থার কারণেই সুশান্ত আত্মহত্যা করেছে : হিরো আলম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০২০ ১৮:৪০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আমার মতো অবস্থার কারণেই সুশান্ত আত্মহত্যা করেছে : হিরো আলম

মানুষ কেন আত্মহত্যা করে, আপনারা জানেন কয়দিন আগেই বলিউড অভিনেতা সুশান্ত আত্মহত্যা করেছে। কেন করেছে? কারণ ওকে একের পর এক ছবি থেকে বাদ দিছে। মানুষজন তাকে নানা ভাবে কষ্ট দিছে। এই যে আমাকে অনন্ত জলিল সিনেমা থেকে বাদ দিছে, এর আগে আমাকে পাত্তা দেয়নি, তাড়িয়ে দিয়েছে। আমার পেছনে মানুষজন লেগে আছে। ক'দিন পরপর মানুষজন আমার পেছনে লাগে। আমাকে কত অপমান করে কথা বলে। এমন কারণে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছে। আসলে মানুষ তো সহ্য করতে পারে না এসব। 

কথাগুলো বলছিলেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। তিনি শুক্রবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে এসে এসব কথা বলছিলেন। বলছিলেন, আমি অনেক লাঞ্ছনা সহ্য করেছি। আমি অবশ্য এসব কারণে আত্মহত্যা করবো না। আত্মহত্যা মহাপাপ। সেই পাপের ভাগীদার আমি হবো না। আমিও দেখায়ে দিতে চাই- আমিও পারি। শুধু অনন্ত জলিল একাই অসম্ভবকে সম্ভব করতে পারেন, তা না আমিও পারি। আমি দেখায়ে দিবো। সামনে দুইটা বড় মুভির ঘোষণা দিবো। 

অনন্ত জলিল হিরো আলমকে সিনেমা থেকে বাদ প্রসঙ্গে বলেন, 'আমি হিরো আলমকে নিয়ে কোনও সিনেমা বানাবো না  এবং পঞ্চাশ হাজার টাকা সাইনিং মানি  ফেরৎ নিবনা! সিংহভাগ বিনোদন সাংবাদিকরা এবং চলচ্চিত্র পরিবারের সকল গুণীজনরা  হিরো আলম কে নিয়ে সিনেমা না বানানোর জন্য আপত্তি জানাচ্ছেন। এবং  রিসেন্টলি তার কিছু অশ্লীল ভিডিও  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে  সকলেই আবারো আমাকে  নিষেধ করছেন, তাকে নিয়ে সিনেমার না বানানোর।'  

তিনি বলেন, 'সব সময় আমি বিব্রত হচ্ছি, হিরো আলমের এসব বিতর্কিত বিষয় গুলোর জন্য । দীর্ঘদিন যাবৎ আমি চলচ্চিত্র অঙ্গনে সম্মানের সহিত কাজ করে আসছি, চলচিত্রের প্রতিটি সংগঠনের  সাথে ভালো সম্পর্ক আছে , প্রতিটি সংগঠনই আমাকে সন্মনের চোখে দেখে। তাই এই সন্মন রক্ষার্থে , বিতর্কিত কাউকে নিয়ে আমি সিনেমা বানাতে চাইন না।'

হিরো আলম শুক্রবার ফেসবুকে বলেন, অনন্ত জলিল আমাকে অপমান করেছে। এটা মোটেও ঠিক করেননি। কাল থেকে সাংবাদিক ভাইয়েরা আমাকে ফোন দিয়ে বারবার জানতে চাচ্ছে কেন বাদ, কেন বাদ। আমি শুটিং করছি। ব্যস্ত আমি। তারপরেও আমি এজন্য লাইভে আসলাম আজ। আমি বলতে চাই এর বিচার আল্লাহ করবে। আমি কখনো একবারো অনন্ত জলিলকে ফোন দিয়ে বলিনি ভাই আমাকে সিনেমায় নেন। তিনি নিজেই আমাকে নিয়েছেন নিজেই বাদ দিয়েছেন। 

হিরো আলমকে ছবিতে নেওয়া প্রসঙ্গে অনন্ত জলিল এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘হিরো আলম একটা পর্যায়ে চলে গেছে। তাঁকে তো আর ছোটখাটো চরিত্রে নেওয়া যাবে না। এখন আমি একটি যৌথ প্রযোজনার ছবি নিয়ে কাজ করছি। এতে অনেক ছোটখাটো চরিত্র রয়েছে। যেখানে হিরো আলমকে নিতে পারি না। সে যেহেতু একটা পর্যায়ে চলে গেছে, তাই তাকে আগামী ছবিতে বড় চরিত্রে নেব। আমি যেহেতু কথা দিয়েছি, অবশ্যই নেব।’  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা