kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২ জুন ২০২০। ৯ শাওয়াল ১৪৪১

দেশ অচল, তারা আটকা লঞ্চে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ মার্চ, ২০২০ ১১:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশ অচল, তারা আটকা লঞ্চে

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত। এমন কি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থাও। এছাড়াও বন্ধ করা হয়েছে সিনেমা হল, শুটিংসহ শোবিজ অঙ্গনের সব ধরনের কার্যক্রম।

তবে এর মাঝেও চলছে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবির শুটিং। এই স্থবিরতার মধ্যেও  সুন্দরবন এলাকায় শুটিং করছেন সিয়াম, পরীমনিসহ প্রায় ৫০ জনের একটি ইউনিট। নির্মাতা আবু রায়হান বলেন, আমাদের ফোনে ঠিকমতো নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না। তাই নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি আমরা জানতে পারিনি। 

জানা গেছে, ২৬ তারিখে শুটিং বন্ধ করে সুন্দরবন থেকে ঢাকার পথে লঞ্চ ছেড়েছে। এরপর বাদ সাধে প্রশাসন।

দেশের এমন পরিস্থিতিতে শুটিং চালিয়ে যাওয়া দায়িত্বহীনতার পরিচয় উল্লেখ করে পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, এমন পরিস্থিতিতে শুটিং করতে যাওয়াটাই তো ঠিক হয়নি। তাদের স্বেচ্ছায় শুটিং বন্ধ করে দেওয়ার দরকার ছিল। যতদূর জানি, এই ছবি ছাড়া আর কোথাও কোনো ছবির শুটিং হচ্ছে না। প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম বলেন, এ বিষয়ে আমরা ছবির প্রযোজক এবং পরিচালকদের জানিয়েছি। তাদের বলেছি, এতে ২৫টি শিশুশিল্পীসহ অভিনয়শিল্পীদের বড় একটা গ্রুপ আছে। এ ধরনের সংকটময় পরিস্থিতিতে ইউনিটের কেউ যদি করোনায় সংক্রমিত হন, তাহলে পুরো দায়-দায়িত্ব নিতে হবে ছবির প্রযোজক ও পরিচালককে।

সরকারি অনুদানের নির্মিত ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবিতে সিয়াম-পরীর পাশাপাশি অভিনয় করছেন কমপক্ষে ২৫ জন শিশুশিল্পী। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে ‘নসু ডাকাত কুপোকাত’ নামে সরকারি অনুদান পায় এর পাণ্ডুলিপি। তবে পরে নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। এর চিত্রনাট্য করেছেন জাকারিয়া সৌখিন। চলতি বছর ১০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’র মহরত অনুষ্ঠিত হয়। আগামীকাল তাদের ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা