kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

আসছে রূপবান কন্যা সুজাতার আত্মজীবনী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ১৭:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসছে রূপবান কন্যা সুজাতার আত্মজীবনী

গত বছর একুশে বইমেলায় প্রকাশ হয়েছিলো অভিনেত্রী সুজাতার লেখা বই ‘শিমুলির ৭১’। শুধু গল্প উপন্যাস লিখছেন তা নয়। অনেক দিন থেকেই চলছিলো তার আত্মজীবনী লেখার কাজ। আর ২০২০ সালের অমর একুশে গ্রন্থ মেলায় সেই বই প্রতকাশ পাচ্ছে। এরই মধ্যে সুজাতা শেষ করেছেন তার আত্মজীবনী লেখার কাজ। একজন সাধারণ নারী থেকে খ্যাতিমান নায়িকা হয়ে ওঠার কাহিনী লিখেছেন এই বইয়ে। লিখেছেন তার রূপবান হয়ে ওঠার গল্প। সুজাতা জানালেন, অক্ষর প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হচ্ছে আত্মজীবনীটি। একই প্রকাশনী থেকে আসবে তার লেখা চলচ্চিত্র বিষয়ক আরও একটি বই।

সুজাতা জানান, ২০২০ সালের বই মেলায় আরও প্রকাশিত হচ্ছে তার লেখা নতুন একটি উপন্যাস। ‘অনাকাঙ্খি উত্তরাধিকারী’ নামের উপন্যাসটি আসছে পুথি নিলয় প্রকাশনী থেকে।

সুজাতা বলেন, ভিন্ন অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে কেটে যায় মানুষের জীবন। নবীনরা বড়দের কাছে সেই সব অভিজ্ঞতার কথা জানতে চায়। আমি আমার বইয়ে আমার দেখা জীবনকে তুলে ধরার চেষ্টা করি। অনেক সময় নিয়ে বইগুলো লিখেছি। আমার বিশ্বাস বইগুলো অনেকেরই কাজে আসবে।’

এই অভিনেত্রী সুজাতা বলেন, নিজের আত্মজীবনী লিখে ভীষণ তৃপ্তি পেয়েছি। অনেক কথা বলার ছিলো। না বলা কথাগুলো অনেক যত্ন নিয়ে নিজের আত্মজীবনীতে লিখছি। নতুন প্রজন্ম তো ওইভাবে জানে না আমাদের সময়ের শিল্পীদের সম্পর্কে। এই বই থেকে তারা জানতে পারবে আমাদের সিনেমার বিপ্লবের দিনগুলোকে। প্রযুক্তির এতো চাকচিক্য না থাকা স্বত্বেও কীভাবে এতো ভালো ভালো ছবি নির্মাণ হয়েছে সেই সময়। এসব তো থাকছেন। আর পাতায় পাতায় থাকছে নিজের বেড়ে ওঠার কাহিনী।

১৯৬৫ সালে মুক্তি পাওয়া ‘রূপবান’ চলচ্চিত্রটি বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসে একটি মাইলফলক। এতে বারো বছর বয়সী নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করে তন্দ্রা মজুমদার নামক এক কিশোরী। পরিচালক সালাহউদ্দিন এই তন্দ্রা মজুমদারের নাম রাখেন সুজাতা। আজো যিনি ‘রূপবান’ হয়েই আছেন দর্শক হৃদয়ে। ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত অসংখ্য হিট চলচ্চিত্রের নায়িকা এই সুজাতা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা