kalerkantho

শনিবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৪ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

আফজালের ফাঁসি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন আলিয়া ভাটের মা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০২০ ২২:৫৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আফজালের ফাঁসি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন আলিয়া ভাটের মা!

ভারতের সংসদ ভবনে হামলায় আফজাল গুরুর ফাঁসির প্রসঙ্গ তুলে বিতর্ক উস্কে দিলেন বলিউড প্রযোজক ও পরিচালক মহেশ ভাটের স্ত্রী ও আলিয়া ভাটের মা অভিনেত্রী সোনি রাজদান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টুইটারে তিনি দাবি করেছেন, সংসদ ভবন হামলায় বলির পাঁঠা বানানো হয়েছিল আফজাল গুরুকে। একই সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত বলেও মনে করেন তিনি।

মঙ্গলবার অভিনেত্রী সোনি রাজদান আফজাল গুরুর ফাঁসি সম্পর্কে টুইট করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এটি বিচারের নামে প্রহসন। ফাঁসির সাজাপ্রাপ্ত একজনকে ফিরিয়ে আমার ক্ষমতা কারও নেই। আর সেই মানুষ যদি নির্দোষ হন তাহলে! তাই মৃত্যুদণ্ড হালকা করে দেখা উচিত নয়। এ কারণে আফজাল গুরুর মৃত্যুদণ্ড নিয়েও বিস্তারিত তদন্ত হওয়া উচিত। কেন তাকে বলির পাঁঠা করা হল তা খুঁজে দেখা দরকার।’

এদিকে, আরেকটি ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনে বলা হচ্ছে, এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর টুইট করেছেন অভিনেত্রী সোনি রাজদান। যে খবরে বলা হচ্ছে, তিহার জেলে বন্দি থাকাকালীন আফজাল একটি চিঠি লিখেছিল তার ব্যক্তিগত উকিল সুশীল কুমারকে। সেই চিঠিতেই আফজাল বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছিল তৎকালীন পুলিশ কর্মকর্তা দেবেন্দ্র সিংয়ের বিরুদ্ধে। 

আফজালের কথায়, সিং-সহ জম্মু ও কাশ্মীরের অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে অকথ্য অত্যাচার করেছিল। শুধু তাই নয়, জোর করে তার থেকে টাকা লুটে নিয়েছিল। এরপরই সেই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে আফজাল দাবি করেছিল যে, এই দেবেন্দ্র সিং-ই তাকে সংসদ ভবন হামলায় যুক্ত একজনের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন।

এমনকি উকিলকে লেখা ওই চিঠিতে আফজাল এও অভিযোগ তুলেন যে, দেবেন্দ্রই সেই ব্যক্তি যিনি আফজালকে নির্দেশ দিয়েছিলেন সংসদ ভবন হামলাকারীদের জন্য একটি আশ্রয়ের বন্দোবস্ত করতে এবং মূল ঘটনার দিনের জন্য একটি গাড়িরও ব্যবস্থা করতে। 

টুইটারে সোনি রাজদান লিখেছেন, আফজাল গুরুর ওই চাঞ্চল্যকর দাবির পর কেন তা নিয়ে তদন্ত হল না ফের তা খতিয়ে দেখা হোক। আফজাল গুরুর মতো এরকম অনেককে কাশ্মীরে অত্যাচার করে জঙ্গি কার্যকলাপে বাধ্য করা হচ্ছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হোক।

এদিকে, কলকাতা টোয়েন্টিফোরের খবর, আফজাল গুরুকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হলেও কীভাবে দেবেন্দ্র সিং ছাড় পেয়ে গেল তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এমনকি ২০১৯ সালের আগস্টে রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পুরস্কার পেয়েছেন দেবেন্দ্র সিং। এই প্রসঙ্গেই টুইট করেছেন সোনি রাজদান।

সূত্র: জি নিউজ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা