kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিটিভিতে বিজয়ের মাসের বিশেষ নাটক ‘হেমন্তে হিম হয়ে আসে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২২:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিটিভিতে বিজয়ের মাসের বিশেষ নাটক ‘হেমন্তে হিম হয়ে আসে’

আসছে ডিসেম্বরে বিজয়ের মাসজুড়ে একাধিক বিশেষ নাটক প্রচার করবে বাংলাদেশ টেলিভিশন। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ৭ ডিসেম্বর রাত ৯টায় প্রচার হবে নাটক ‘হেমন্তে হিম হয়ে আসে’। নাটকটি রচনা করেছেন রেজাউর রহমান ইজাজ, প্রযোজনায় রয়েছেন আবু তৌহিদ। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- আজিজুল হাকিম,রোজী সিদ্দিকী, হাফিজুর রহমান সুরুজ, শতাব্দী ওয়াদুদ, রওনক হাসান, ফারহানা মিলি, রমিজ রাজু, আইনুন পুতুল, শামস আরেফিন প্রমুখ।

মার্চ, ১৯৭১। সারাদেশ উত্তাল। আর সবার মতো উত্তেজনায় কাঁপছে দেশের যুবসমাজ। দিনভর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় কাটে সবার। এরইমধ্যে বঙ্গবন্ধু-ইয়াহিয়ার আলোচনা ভেঙে যায়। শুরু হয় নির্বিচার গণহত্যা।

আসিফ সরকারি এক দপ্তরের শীর্ষ কর্তা। পেশায় প্রকৌশলী। শহরের গুরুত্বপূর্ণ সব স্থাপনার ড্রইং তার হাতে। স্ত্রী মিনু, একমাত্র ছেলে বাবু, মেয়ে মিরা আর স্ত্রীর বোনের মেয়ে নিলুকে নিয়ে তার সংসার। নিলুর বাবা-মা বেঁচে নেই। আসিফ আর মিনু চান বাবুর সঙ্গে নিলুর বিয়ে হোক। কিন্তু ২৫ মার্চের পর সবকিছু এলোমেলো হয়ে যায়। ঢাকা পরিণত হয় অবরুদ্ধ এক নগরে।

বাবু সিদ্ধান্ত নেয় যুদ্ধে যাবার। আসিফ ছেলেকে নিষেধ করেন না। কিন্তু মিনু তা চান না। একসময় বাবুর জেদের কাছে হার মানতে হয় তাকে। বাবু যুদ্ধে চলে যায়। পরিবারে নেমে আসে বিরাট শূন্যতা। 
জুনে ঢাকায় গেরিলারা ঢুকে যায়। এ দলের একজন হয়ে শহরে ঢোকে বাবুও। একের পর এক অপারেশনে কেঁপে ওঠে ঢাকা। 

পাকিস্তানি বাহিনী গেরিলা আতঙ্কে ভুগতে থাকে। ডিসেম্বরের শুরুতেই রামপুরায় বিদ্যুৎকেন্দ্র উড়ে যায়। এই অপারেশনে সহযোদ্ধাদের সঙ্গে অংশ নেয় বাবু। অপারেশন শেষে বাড়িতে মায়ের সঙ্গে দেখা করতে আসে। খবর পেয়ে হাজির হয় পাকসেনারা। বাবুকে নিয়ে যায় তারা। তার আর ফেরা হয় না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা