kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

কলকাতার অভিনেত্রীদের ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্টের হিড়িক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলকাতার অভিনেত্রীদের ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্টের হিড়িক

ফেসবুকে কলকাতার অনেক জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের ফেক প্রোফাইল রয়েছে। টেলি-নায়িকা পল্লবী শর্মা, দেবাদৃতা বসু, প্রমিতা চক্রবর্তীদের এমন কিছু ফেক প্রোফাইল রয়েছে যা দেখে নকল বলে বোঝা সম্ভব নয়। বার বার রিপোর্ট করেও সমস্যার সমাধান হয়নি, এমনটাই জানা গেছে।

পল্লবী শর্মা ও দেবাদৃতা বসু দুজনেই বাংলা টেলিভিশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় তারকাদের অন্যতম। পল্লবী বিগত সাড়ে তিন বছর ধরে কে আপন কে পর-এর জবা চরিত্রে অত্যন্ত সমাদৃত। তাঁকে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে অনেক কিছুই লেখা হয়েছে। সেই সব তথ্য সাজিয়ে, বিভিন্ন জায়গায় প্রকাশিত তাঁর ছবি দিয়ে, ফেসবুকে একাধিক ফেক প্রোফাইল খোলা হয়েছে পল্লবীর নামে।

অথচ তাঁর নাম নিয়ে একটি প্রোফাইল এই মুহূর্তে ফেসবুকে প্রচণ্ড সক্রিয় তো বটেই, একটু একটু করে টেলিজগতের বহু জনপ্রিয় তারকাকেও নেটওয়ার্কে সংযোজন করেছে ওই প্রোফাইলটি। পল্লবীর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডল থেকে নিয়মিত ছবি পোস্ট করে প্রচুর ফলোয়ারও বাড়িয়ে ফেলতে সক্ষম হয়েছে। আর তা দেখে সাধারণ দর্শক তো বটেই, বিনোদন জগতেরও অনেকে বুঝতে পারছেন না যে এটি আসল নয়, নকল।

জয়ী-নায়িকা দেবাদৃতা বসুর ক্ষেত্রেও তাই ঘটেছে। দেবাদৃতার কোনও ফেসবুক প্রোফাইল নেই। ইনস্টাগ্রামেই তিনি সক্রিয়। কিন্তু তাঁর নামে প্রোফাইল খুলে টেলিজগতের বহু অভিনেতা-অভিনেত্রীকে অ্যাড করা হয়েছে। আর কয়েকদিন পর থেকেই শুরু হতে চলেছে দেবাদৃতার নতুন ধারাবাহিক– আলোছায়া। জি বাংলা-র এই ধারাবাহিকে টাইম লিপের পরে আলো চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-তে সেই সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদনও লেখা হয়।

এর পরেই জানা যায় যে প্রোফাইলটি নকল। দেবাদৃতা নিজেই এই কথা জানিয়েছেন তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্র মারফত। ওদিকে ওই প্রোফাইলে প্রতিবেদনটি যে পোস্টে শেয়ার করা হয়, সেখানে অভিবাদন জানাতে থাকেন অন্যান্য জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। তাঁদের অনেকেই ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-র মাধ্যমে জানতে পেরেছেন যে প্রোফাইলটি নকল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা