kalerkantho

রবিবার । ২০ অক্টোবর ২০১৯। ৪ কাতির্ক ১৪২৬। ২০ সফর ১৪৪১                

আমিন বাদলের একক গজল সন্ধ্যা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমিন বাদলের একক গজল সন্ধ্যা

জমকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল শিল্পী আমিন বাদলের একক গজল সন্ধ্যা। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েটস ক্লাবের আয়োজনে শুক্রবার সন্ধ্যায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এই গজল সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়।

গজল সন্ধ্যায় আমিন বাদল শ্রোতাদের প্রসিদ্ধ গজল গেয়ে শুনান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক মঈনুল হাসান  মিতুল। এ সময়  উর্দু গজলের নানা প্রসঙ্গ তুলে ধরেন  জাভেদ হোসেন।  

শিল্পী আমিন বাদল, ১৯৬২ সালের ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের চাঁদপুর জেলার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।  তিনি শৈশব থেকেই সংগীতের প্রতি দারুণ অনুরক্ত ছিলেন।  স্কুলজীবনে সংগীতে হাতে খড়ি ‘চাঁদপুর সংগীত নিকেতনে’। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভূগোল বিভাগে অনার্সসহ মাস্টার্স করেন।

ছেলেবেলা থেকেই শাস্ত্রীয় সংগীতের প্রতি আমীন বাদলের ছিল গভীর অনুরাগ ও আগ্রহ। তিনি শাস্ত্রীয় সংগীতে তালিম নেওয়া শুরু করেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীত ব্যক্তিত্ব ওস্তাদ নিয়াজ মোহাম্মদ চৌধুরীর কাছে। এছাড়াও তিনি উপমহাদেশের শাস্ত্রীয় সংগীতের অনেক পুরোধা পন্ডিত ওস্তাদগণের সান্নিধ্য লাভ করেন। শাস্ত্রীয় সংগীতের প্রতি গভীর প্রেম, অধ্যবসায় আর ওস্তাদগণের তালিম অনুসরণ করে আমীন বাদল খুব দ্রুতই পৌঁছে যান সংগীত জ্ঞানের উচ্চস্তরে।

বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষে শুরু হয় তার সংগীত জীবনের নবযাত্রা, আত্মনিবেদন করেন শাস্ত্রীয় সংগীতে। ইতিমধ্যে তিনি বাংলাদেশ বেতার এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের নিয়মিত শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়ে পরবর্তীতে সর্বোচ্চ গ্রেড তথা ‘বিশেষ গ্রেড’ লাভ করেন। উত্তর ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীত ‘খেয়াল, ঠুমরি ও গজল’-এ তিনি আরও প্রতিষ্ঠা লাভ করতে থাকেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা