kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

চিড়িয়াখানার প্রয়োজন কতটুকু? প্রশ্ন তমা মির্জার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিড়িয়াখানার প্রয়োজন কতটুকু? প্রশ্ন তমা মির্জার

এই এক লাইনের প্রশ্ন, সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করে এই এক লাইনের প্রশ্ন লিখে দিয়েছেন তিনি। এমনসব এড়িয়ে যাওয়াই যেত। কেননা এমন প্রশ্ন তো অহরহ দেখা যেতেই পারে। কিন্তু এই এড়িয়ে যাওয়া হলে অনেক চিন্তাকেও এড়িয়ে যাওয়া হতো। যিনি প্রশ্ন করেছেন নিশ্চই এমনি করেননি। মানবিকতার যে স্থান রয়েছে সেখানে নিশ্চই আহতের ঘটনা ঘটেছে, তা নাহলে কেন প্রশ্ন করবেন? 

দেশের চিড়িয়াখানাগুলোর বিরুদ্ধে নানা সময় অভিযোগ ওঠে যে পশুগুলো ঠিকঠাক খাবার দেওয়া হয় না। কাগজে কলমে হিসেব কেমন দাঁড়ায় সেটা পরের কথা কিন্তু প্রায়শই এসব খবর আসে, এবং খবরে যেসব প্রাণীদের হাড্ডিসার ছবি দেওয়া হয় তাতে করে ওইসব ছবির দিকেও তাকিয়ে থাকা যায় না। তাতে করে প্রশ্ন আসতে পারে এইসব চিড়িয়াখানা রাখার দরকারটাই কী? 

চিত্রনায়িকা তমা মির্জা যে যে ভিডিওটি শেয়ার করে পোস্ট দিয়েছেন- সেটা আরেক অভিনেত্রী আশনা হাবীব ভাবনার, ভাবনা তাতে লিখেছেন, 'আমি কিছুদিন আগে কক্সবাজার এর ডুলাহাজরা সাফারি পার্কে গিয়েছিলাম ,সেখানে গিয়ে দেখলাম সাফারি পার্কের বিষয়টা একদম অন্যদেশের থেকে আলাদা! যাই হোক অনেক কিছুই আমার ভাল লাগে নি, তা নিয়ে আমি বেশি কথা বলতে চাই না ,কিন্তু কিছু পশু পাখিদের তারা যেভাবে রেখেছে তা দেখে খুব খারাপ লেগেছে। 

তিনি লিখেছেন, 'বাঘ, সিংহ আছে ৪ টা, এই চারজনের যে পরিমাণের খাবার দেয়া দরকার সেটা তারা দেয় না ,সেটা সেখানকার এক পিচ্চি ছেলে আমাদের বলল ! তারা খুবই অসহায়। দেখার মতো কিছুই নেই এই পার্কে, জানিনা কেন? আমরা একটা বাস নিলাম ঢুকার পর, তবে কিছুই দেখতে পারিনি সেরকম, আর যারা আছে তাদের ও যে যত্ন হয় না তা বোঝা যাচ্ছিল।'    

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা