kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

মোদির বিরুদ্ধে মন্তব্য, হার্ড কউরের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোদির বিরুদ্ধে মন্তব্য, হার্ড কউরের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ

খালিস্তান আন্দোলনকে সমর্থন করে ভিডিও পোস্ট। তাতে আবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে কটূক্তি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে- আর এতেই র‍্যাপার হার্ড কউরের অ্যাকাউন্ট বাতিল করে দিল টুইটার।

সম্প্রতি নিজের অ্যাকাউন্টে একটি ২ মিনিট ২০ সেকেন্ডের ভিডিও আপলোড করেন হার্ড কউর। অভিযোগ, সেই ভিডিওতেই নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহের বিরুদ্ধে আপত্তিকর শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। খালিস্তান আন্দোলনের সমর্থনে চ্যালেঞ্জও জানানো হয়েছে মোদিকে। এই ভিডিও ভাইরাল হতেই তড়িঘড়ি পদক্ষেপ নেয় টুইটার।

গেরুয়া শিবিরের কট্টর সমালোচক হিসেবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচিত হার্ড কউর। নিজেকে বহুবার খালিস্তান আন্দোলনের সমর্থক হিসেবেও দাবি করেছেন তিনি। সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে একটি গানের ভিডিও পোস্ট করেন কউর। সেই গানের কলি, ‘উই আর ওয়ারিয়র্স…খালিস্তান জিন্দাবাদ।’ এই ভিডিওটি নিয়েও আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে নানা মহলে।

গত জুনের মাঝামাঝি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের উদ্দেশে কটূক্তি করার অভিযোগ উঠেছিল হার্ড কউরের বিরুদ্ধে। মহাত্মা গান্ধীর হত্যা নিয়ে সরাসরি আক্রমণ করেছিলেন সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভাগবতকে। নিজের বেশ কিছু পোস্টে ২৬/১১ হামলা ও অন্যান্য জঙ্গি নাশকতার জন্য দায়ী করেন সঙ্ঘ প্রধানকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় যোগী ও ভাগবতকে অপমান করা হয়েছে দাবি করে কউরের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জানান বারাণসীর এক আইনজীবী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে, র‍্যাপার হার্ড কউরের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহ, উস্কানিমূলক মন্তব্য, মানহানি ও তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

বারে বারেই বিতর্কে জড়িয়েছেন হার্ড কউর। এর আগেও গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ড নিয়ে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। লুধিয়ানার একটি অনুষ্ঠানে মদ্যপ অবস্থায় দর্শকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগও উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে।

উল্লেখ্য, হার্ড কউরকে বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী প্রীতমের সঙ্গে একটি গানে র‍্যাপ করতে দেখা যায়। ভাইয়া নামের সে গানটি জনপ্রিয় হয়েছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা