kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

হোটেল থেকে শ্যাম্পুর বোতল চুরি করেন দীপিকা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ আগস্ট, ২০১৯ ১৮:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হোটেল থেকে শ্যাম্পুর বোতল চুরি করেন দীপিকা!

হোটেলের ঘর থেকে আপনি কী নিতে পারেন, আর কী পারেন না? এপ্রশ্ন মাথায় আসতেই মার্কিন কমেডি শো ‘ফ্রেন্ডস’-এর রোজ অ্যান্ড চান্ডলার সেই এপিসোডটির কথাই মনে পড়ে? যেখানে রোজ চান্ডলারকে বোঝাচ্ছিল যে তিনি হোটেলের ঘর থেকে হেয়ার ডায়ার নিতে পারেন না কিন্তু শ্যাম্পুর বোতল অবশ্যই নিতে পারেন। যদিও এই পুরো বিষয়টিই নেহাতই মজা করেই তুলে ধরা হয়েছিল ‘ফ্রেন্ডস’ এর ওই এপিসোডে। হোটেলের ঘর থেকে বের হয়ে আসার সময় এমন অনেকেই রয়েছেন যাঁরা কিছু জিনিস চুপি চুপি নিজের ব্যাগে ভরে ফেলেন। কথাটা শুনতে অবাক লাগলেও ভীষণই সত্যি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন অনেক ভিডিও রয়েছে, যেখানে হোটেলের ঘর থেকে অনেকেই বিভিন্ন জিনিস নিজের ব্যাগে ভরে ফেলার সময় ক্যামেরাবন্দি হয়েছেন। তবে সবথেকে অবাক লাগে এই ঘটনার তালিকায় যখন কোনও বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের নাম জড়িয়ে পড়লে। সম্প্রতি, দীপিকা পাড়ুকোনের ঘনিষ্ঠ এক বন্ধু স্নেহা রামচন্দর অভিনেত্রীর কিছু কীর্তির কথা ফাঁস করেছেন। স্নেহা জানিয়েছেন, দীপিকা নাকি হোটেলের ঘর থেকে শ্যাম্পুর বোতল চুরি করে আনেন, তাও আবার বন্ধুদের দেওয়ার জন্য।

কী চমকে গেলেন নাকি?
হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন দীপিকার বন্ধু স্নেহা রামচন্দর এমনটাই বলেছেন। তিনি দীপিকার যে শ্যাম্পুর বোতল চুরি করার কথা বলেছেন, সেই ছোট্ট শ্যাম্পুর বোতলগুলি অবশ্য হোটেল কর্তৃপক্ষ অতিথিদের জন্যই দেন। আর সেই বোতল যে কেউ নিতে পারেন, সেটা কোনও চুরি বা অপরাধের মধ্যে এক্কেবারেই পড়ে না। দিপ্পির বন্ধু স্নেহা রামচন্দর নেহাতই তাঁদের বন্ধুত্বের কথা উল্লেখ করতেই একথা লিখেছেন। তবে অবশ্য এখানেই শেষ নয়, স্নেহা আরও লিখেছেন, দীপিকা এমন একজন বন্ধু যার সঙ্গে নির্দ্বিধায় মন খুলে মেশা যায়। যাঁর উপস্থিতি তাঁর জীবনে এক কাপ গরম চা কিংবা কোল্ড ড্রিংসের মতোই গুরুত্বপূর্ণ।

প্রসঙ্গত, খুব শীঘ্রই দীপিকা পাড়ুকোনকে দেখা যাবে মেঘনা গুলজারের ‘ছপাক’ ছবিতে।

সূত্র: জিনিউজ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা