kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

শেষ হচ্ছে নোয়াশাল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৯ ১৫:৩৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শেষ হচ্ছে নোয়াশাল

১৮ জুলাই ২০১৯ বৃহস্পতিবার প্রচারের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভিতে প্রচারিত জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘নোয়াশাল’। এদিন রাত ৯টা ২০ মিনিটে প্রচারিত হবে নাটকটির ৮৭১তম পর্ব।  

আকাশ রঞ্জনের রচনায় নাটকটি গল্প, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেন মীর সাব্বির। ২০১৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি আরটিভিতে প্রচার শুরু হয়েছিল ভিন্ন ধরনের গল্প নিয়ে নির্মিত এই ধারাবাহিকটি। এরপর প্রতি সপ্তাহে সোম থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ২০ মিনিটে নাটকটি প্রচার হয়ে আসছে। 

নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন এটিএম শামসুজ্জামান, খায়রুল আলম সবুজ, চিত্রলেখা গুহ, ডলি জহুর, আলীরাজ, মীর সাব্বির, রওনক হাসান, ফারুক আহমেদ, নাজনীন হাসান চুমকি, অহনা, নিশা, বিনয় ভদ্র, আমিন আজাদ, সুভাশীষ ভৌমিক, বাদল, হায়দার, দেব মিঠুসহ অনেকে।

নাটকের গল্পে দেখা যায়, মোহনপুর গ্রামের দুই প্রভাবশালী ব্যক্তি। একজনের নাম শাহাবুদ্দিন আরেক জনের নাম কুব্বত আলী। একজন ইটের ব্যবসায়ী, অন্যজন বালুর ব্যবসায়ী। একজনের বাড়ি বরিশাল অন্য জনের বাড়ি নোয়াখালী। শাহাবুদ্দিনের এক ছেলে এক মেয়ে ও কুব্বত আলীর এক ছেলে এক মেয়ে। পাশাপাশি তারা বসবাস করে দীর্ঘ বছর ধরে। দুই পরিবারের মিল-মহব্বত যেমন আছে তেমনি খুনসুটিও আছে। এই দুই পরিবার নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে এক ধরনের আকর্ষণও আছে, কারণ এই দুই পরিবারের ঝগড়াঝাটি এলাকাবাসীর মধ্যে এক ধরনের হাস্যরস তৈরি করে। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ঘটনায় এই দুই পরিবার উত্তোজিত হয়ে ঝগড়া করে আবার মিলেও যায়।  নোয়াখালী এবং বরিশাল এলাকার বাসিন্দা হওয়ার কারণে তারা এলাকায় অত্যধিক জনপ্রিয়। কেউ কেউ এই দুই পরিবারকে মিল করে ডাকে নোয়াশাল পরিবার। মূলত এই  দুই পরিবারের হাসি, কান্না, সুখ-দুঃখ, আনন্দ বেদনা এবং ঝগড়াঝাটির মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। নোয়াশাল শুধু নামে নয় নোয়াশাল পুরো বাংলাদেশেরই প্রতিচ্ছবি।

নাটকটি নিয়ে নির্মাতা মীর সাব্বির বলেন, ‘আরটিভিতে যখন এই নাটকটি শুরু হয় তখন আমরা ২৬ অথবা ৫২ পর্বের নাটকের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু এই নাটকটি যে এত দীর্ঘ নাটক হবে সেটা এখনো আমার কাছে স্বপ্নের মতো মনে হয়। এটা যে এত জনপ্রিয় হবে কল্পনাই করতে পারিনি। দুটো অঞ্চলের ভাষা নিয়ে তৈরি একটি নাটক আপামর জনতা গ্রহণ করেছে এবং তাদের ভালোবাসা পেয়েছি। এটা কিন্তু আমাদের একটা সফলতা। তবে এই শেষই শেষ নয়। আমরা নতুন কিছু করতে চাই।’ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা