kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

টানা ৯ মাস টিআরপিতে শীর্ষে কৃষ্ণকলি, উঠে আসছে ‘ফাগুন বউ’

রওনক রহমান আনন্দ   

১৪ জুলাই, ২০১৯ ১৬:১৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



টানা ৯ মাস টিআরপিতে শীর্ষে কৃষ্ণকলি, উঠে আসছে ‘ফাগুন বউ’

কলকাতার বাংলা ধারাবাহিক ‘কৃষ্ণকলি’ একটি নতুন মাইলস্টোন পার করলো। এই সপ্তাহেও ১৫+ আরবান টিআরপি তালিকার শীর্ষে রয়েছে ‘কৃষ্ণকলি’ (১১.৮)। এই নিয়ে টানা ২৫ সপ্তাহ এই তালিকার সর্বোচ্চ স্থানটি দখল করে রেখেছে এই ধারাবাহিক। তবে এই সপ্তাহের সেরা দশ তালিকায় বেশ কিছু রদবদল ঘটেছে। সবচেয়ে বড় ঘটনা এটাই যে দ্বিতীয় স্থান থেকে সরে যেতে হয়েছে ‘ত্রিনয়নী’-কে এবং ওই স্থানটি যুগ্মভাবে দখল করে নিয়েছে ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’  ও ‘বকুলকথা’। 

এই সপ্তাহে ‘ত্রিনয়নী’  নেমে গিয়েছে চতুর্থ স্থানে ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে ‘জয় বাবা লোকনাথ’। এই সপ্তাহে পঞ্চম স্থানে রয়েছে ‘নকশিকাঁথা’। এই সপ্তাহে দুটি চ্যানেলের জিআরপি-ও ( গ্র্যান্ড রেটিং) বেড়েছে সামান্য। স্টার জলসা-র জিআরপি হয়েছে ৪৪০ ও জি বাংলা-র জিআরপি দাঁড়িয়েছে ৬৮৪। এই সপ্তাহের রেটিংয়ে সামগ্রিকভাবে রাতের স্লটের ভিউয়ারশিপ কমেছে। এর কারণ অবশ্যই বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সম্প্রচার। গত সপ্তাহে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ ছিল এবং বেশিরভাগ দর্শকই খেলা দেখতে ব্যস্ত ছিলেন সম্ভবত। সারা দেশের বড় সংখ্যক দর্শক এখন ব্যস্ত বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে। তাই বলে যে দর্শকেরা বাংলা সিরিয়াল ছাড়া কিছু ভাবতেই পারেন না, তাঁরা এই সময়ে কী করছেন? তাঁরা কি সিরিয়াল দেখা থেকে বিরত আছেন? 

মোটেই না। সবাই জানেন, সিরিয়ালগুলো দিনের বিভিন্ন সময় পুনঃপ্রচার করা হয়। প্রায় সব দর্শকই নিজেদের সুবিধা অনুযায়ী দেখছেন নিজেদের প্রিয় সিরিয়ালগুলো। এদিকে ভারতের কলকাতার জরিপ প্রতিষ্ঠানের মতে, বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হওয়ার পর বাংলা সিরিয়ালের দর্শকের সংখ্যা কিছুটা কমেছে। যাঁরা শুধু সন্ধ্যার পর সিরিয়াল দেখেন অন্য সময় কাজের ব্যস্ততার কারণে দেখতে পারেন না, বিশ্বকাপ ক্রিকেটের কারণে তাঁরা সিরিয়ালগুলো একেবারেই দেখতে পারছেন না। তবে অন্যরা দেখছেন।  সত্যিই এটাই কারণ কি না তা অবশ্য আগামী কয়েক সপ্তাহের রেটিং দেখলে বোঝা যাবে। 

তবে নতুন শুরু হওয়া ধারাবাহিকগুলি সেভাবে রেটিংতালিকায় উঠে আসতে পারছে না। এই সপ্তাহের স্টার জলসা-র সেরা পাঁচে রদবদল খুব একটা কিছু নেই। তবে বাদ পড়েছে ‘বিজয়িনী’। গত মাসে স্টার জলসা-তে শুরু হতে যাওয়া তিনটি নতুন ধারাবাহিক– ‘শ্রীময়ী’, ‘সাঁঝের বাতি’ ও ‘কলের বউ’। অর্থাৎ আর একমাসের মধ্যেই টিআরপি তালিকায় উল্লেখযোগ্য রদবদল ঘটতে পারে। এছাড়া স্টার জলসা-র বেশ কিছু স্লটের অদলবদলও হতে পারে। তবে ১৫+ আরবান টিআরপি তালিকাতে জি বাংলা-র রমরমা এখনও অব্যাহত এবং আগামী বেশ কয়েক সপ্তাহ তাই থাকবে বলেই ধারণা। এই সপ্তাহেও তালিকায় মাত্র দু’টি ধারাবাহিক রয়েছে স্টার জলসা-র এবং বাকি সব ধারাবাহিকই জি বাংলা-র। এদিকে প্রচার শুরু হওয়ার পরই ‘সৌদামিনীর সংসার’ সিরিয়ালটির ব্যাপারে দর্শকের আগ্রহ লক্ষ করা গেছে। 

অনেকের মতে, শিগগিরই সিরিয়ালটি সেরা দশ তালিকায় ওপরের দিকে স্থান করে নেবে। দর্শকের পছন্দ হয়, এমন অনেক কিছুই আছে সিরিয়ালটিতে। সাংসারিক কোন্দল, কমিক রিলিফ থেকে শুরু করে সুলক্ষণা নায়িকা, গৃহস্থ প্রেম—সবকিছু। জরিপ প্রতিষ্ঠানের মতে, এত দিন যেখানে জি বাংলার সিরিয়ালগুলোর ব্যাপারে দর্শকের আগ্রহ বেশি দেখা গেছে, সেখানে এখন স্টার জলসার সিরিয়ালগুলো দেখছেন দর্শক। গত সপ্তাহে জি বাংলার রেটিং অনেকটাই কমেছে। বেড়েছে স্টার জলসার।গত বছর স্টার জলসা-র যে কয়েকটি ধারাবাহিক দীর্ঘদিন ১৫+ আরবান টিআরপি সেরা দশে থেকেছে, তার মধ্যে অন্যতম ‘ফাগুন বউ’। তবে বিগত বেশ কয়েক সপ্তাহ এই রেটিং চার্টের সেরা দশ তালিকা থেকে বাদ পড়েছিল এই ধারাবাহিক। 
গত বছর টিআরপি তালিকায় টানা সাত মাস স্টার জলসা’র টপার শো ছিল ফাগুন বউ ৷ মাঝে টিআরপি কিছুটা পড়ে গেলেও আবারো স্বমহিমায় ফিরে এসেছে এবং এই বছরে টানা চার মাস টিআরপি’র চ্যানেল টপারের স্বীকৃতি এবং রাত সাড়ে আটটার (বাংলাদেশ সময় ৯টায় প্রচারিত) স্লটও লিড করছে বিক্রম-ঐন্দ্রিলা জুটির ‘ফাগুন বউ’ ধারাবাহিক ৷ চিত্রনাট্যে মহাধামাকা হলে ভবিষ্যতে হয়তো টিআরপি শাসন করবে দুই বাংলার জনপ্রিয় মেগাধারাবাহিকটি ৷

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা