kalerkantho

বুধবার । ২৪ জুলাই ২০১৯। ৯ শ্রাবণ ১৪২৬। ২০ জিলকদ ১৪৪০

সুজিত সরকারের ছবিতে লম্বা দাঁড়ির বুড়োকে চিনতে পারছেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জুন, ২০১৯ ০১:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সুজিত সরকারের ছবিতে লম্বা দাঁড়ির বুড়োকে চিনতে পারছেন?

চোখে চশমা, বয়সের ভারে নুয়ে পড়া চোখেমুখে বিরক্তির ছাপ স্পষ্ট। মাথার সাদা টুপি স্কার্ফে জড়ানো। গায়ে হালকা আকাশি রঙের মলিন পাঞ্জাবি। সুজিত সরকারের ছবিতে লম্বা দাঁড়ির বুড়োকে চিনতে পারছেন? 
 
গতকাল শুক্রবার সকালে অমিতাভ বচ্চনের টুইটারের পাতায় বেশ জাঁকিয়ে বসেছেন এই বুড়ো। কৌতূহলী চাহনি – কে ইনি? ইনি অমিতাভ বচ্চন। সুজিত সরকারের নতুন ছবি ‘গুলাবো সিতাবো’-তে এমন রূপেই দেখা যাবে বিগ বি‘কে।
 
৭৬ বছর বয়সেও দিব্যি তরুণ যুবকের মতো দৌড়ে বেড়াচ্ছেন সেটে। পরিচালক মশাইয়ের পছন্দ না হলে বারবার রি-টেক দিতেও আপত্তি নেই তাঁর। শট দেওয়ার পর স্ক্রিনের সামনে বসে পরিচালকের সঙ্গে নিজেই নিজের মূল্যায়ন করতে বসে যান। শুধু পরিচালক নন, তাঁর নিজেরও যদি পছন্দ না হয়, আবার বলেন শট রেডি করতে। সেটে এতটুকু ক্লান্তিবোধ নেই তাঁর মধ্যে। হ্যাঁ, তিনি হলেন অমিতাভ বচ্চন।
 
পরিচালক সুজিতের কথায় ‘বুড়ো হাড়ের ভেলকি’-তে আজও যে কাউকে ৬ গোল দিতে পারেন হেসেখেলে। ‘গুলাবো সিতাবো’-তে বিগ বি’র এমন রূপে রীতিমতো সাড়া পড়ে গেছে। ভিন্ন সময়ে ভিন্ন চরিত্রে অমিতাভের অভিনয় দর্শকদের চমকে দিয়েছে। সুজিতের এই ছবিতেও যে তার অন্যথা হবে না। জানা গেছে, সুজিতের কাছে ‘গুলাবো সিতাবো’ ছবিতে তাঁর চরিত্রের কথা শুনেই শিশুসুলভ হাসিতে ‘হ্যাঁ’ বলে দিয়েছিলেন। সেটে মেক-আপের সময়ে তিনি রীতিমতো উৎসাহী হয়ে পড়েছিলেন ‘গুলাবো সিতাবো’-র চূড়ান্ত অবতারে নিজেকে দেখতে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা মেক-আপ নিতে ধৈর্য নিয়ে বসে থাকতেন চেয়ারে। বিদেশ থেকে বিশেষ টিম আনা হয়েছিল অমিতাভের এই রূপ তৈরি করার জন্য।
 
আগে অবশ্য ‘পিকু’তে একসঙ্গে কাজ করেছেন সুজিত-অমিতাভ জুটি। কোয়্যার্কি কমেডি ঘরানার ছবি ‘গুলাবো সিতাবো’। তবে, এই ছবির আরো এক চমক হলো- প্রথমবার অমিতাভের সঙ্গে স্ক্রিন স্পেস ভাগ করবেন আয়ুষ্মান খুরানা। লখনউ শহরের প্রেক্ষাপটে লেখা ‘গুলাবো সিতাবো’র কাহিনী।
 
উত্তর প্রদেশের লোকেরা কথায় কথায় প্রায়ই ‘গুলাবো সিতাবো’ শব্দটি ব্যবহার করেন। খুব মজার গল্প। এমনটাই জানিয়েছেন পরিচালক সুজিত সরকার। ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন জুহি চতুর্বেদী। এর আগে যিনি ‘ভিকি ডোনার’, ‘পিকু’ এবং ‘অক্টোবর’-এর মতো ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন। মুক্তি পাচ্ছে ২০২০ সালের ২৪ এপ্রিল। প্রথম সিডিউলের সিংহভাগের শুটিং ইতিমধ্যেই শেষ। দ্বিতীয় সিডিউল রয়েছে অক্টোবর মাসে। শুটিং হবে রাশিয়া, ইউরোপ ও উত্তর ভারতে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা