kalerkantho

শনিবার । ২০ জুলাই ২০১৯। ৫ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৬ জিলকদ ১৪৪০

অভিনেত্রী মাহি গিলের ওপর হামলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জুন, ২০১৯ ১৬:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিনেত্রী মাহি গিলের ওপর হামলা

ভারতীয় অভিনেত্রী মাহি গিলের ওপর প্রাণঘাতী হামলা হয়েছে। ভারতের জনপ্রিয় নাট্যনির্মাতা একতা কাপুরের ‘ফিক্সার’ ওয়েব সিরিজের শুটিং চলাকালে তার ওপর এ হামলা হয়।

 সম্প্রতি দেশটির মহারাষ্ট্রের থানের ঘোরবন্দর রোডে ওয়েব সিরিজটির শুটিং চলছিল। এ সময় সেটের কলাকুশলীদের হুমকি দেয় অজ্ঞাত একদল দুর্বৃত্ত। তারা বেশ কিছু দাবি করে সেখানে। সেটের কলাকুশলীদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা চলাকালে রড আর লাঠি দিয়ে সেটে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।

এ সময় তারা অভিনেত্রী মাহির ওপরও হামলা করে। তাদের অতর্কিত হামলা থেকে মাহিকে রক্ষা করতে গিয়ে সিনেমাটোগ্রাফার সন্তোষ থুন্ডিয়াল গুরুতর আহত হন। এ ছাড়া সে হামলায় আরও দশজন গুরুতর আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোতে আরও জানানো হয়, শুরুতে হামলাকারীরা মাহি গিলের সঙ্গে অভব্য আচরণ করে। একপর্যায়ে মাহির গায়েও হাত তোলে তারা। এ সময় মাহি প্রতিবাদ করলে তার ওপর হামলে পড়ে দুষ্কৃতকারীরা। তখন প্রাণে বাঁচতে মাহি গিল সেটের পাশে রাখা একটি গাড়িতে লুকিয়ে পড়েন।

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন একতা কাপুর। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, ওয়েব সিরিজের পুরো ইউনিট মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাডনবিশের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিচ্ছেন। সেখানে একজনের মাথায় ব্যান্ডেজসহ মাহিকে বিধ্বস্ত ও বেশ শঙ্কিত দেখা গেছে।

ঘটনাটির নিন্দা জানিয়ে আইএফটিডিএর সভাপতি অশোক পণ্ডিত বলেন, ‘এটি খুবই নিন্দনীয়। আজ পর্যন্ত কোনো সেটে এমন ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনায় আমরা যতটা অবাক হয়েছি, ততটাই হতাশ হয়েছি। দেশের জনগণের নিরাপত্তা কোথায় গিয়ে ঠেকল।’

জানা গেছে, একতা কাপুরের ওই ভিডিওবার্তা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেখেছেন। তিনি থানে পুলিশকে ঘটনাটি দ্রুত তদন্ত করে হামলাকারীদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে থানে পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটির সঙ্গে এলাকার একটি সন্ত্রাসী সংগঠন জড়িত। এরই মধ্যে সাতজন হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা