kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

সেরা কণ্ঠের তৃষাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করল সন্ত্রাসীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মে, ২০১৯ ১২:৪৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সেরা কণ্ঠের তৃষাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করল সন্ত্রাসীরা

চ্যানেল আই সেরা কণ্ঠ ২০১৭ প্রতিযোগীতার ১ম রানারআপ মারুফা জান্নাত তৃষাী ওপর হামলা হয়েছে।  শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার অন্তর্গত খন্দকার পাড়া এলাকায় কিছু দুর্বৃত্ত বখাটে সন্ত্রাসী তৃষাকে শারীরিকভাবে আঘাত করে।
 
নিজের এলাকায় গত চারমাস ধরে তার বাড়ির কাজ সম্পন্ন করছেন। বাড়ির কাজ চলাকালীন এলাকার কিছু সন্ত্রাসী তৃষা ও তৃষার পরিবারের কাছে চাঁদা দাবি করে। তারা তখন চাঁদা না দেওয়ায় বাড়ির কাজ পুরোপুরি ভাবে সম্পন্ন হওয়ার পর গতকাল তৃষাকে একা পেয়ে তাঁকে লাঞ্ছিত করে।
 
তৃষা বলেন, আমার বাড়ির কাজ শুরু হওয়ার পর থেকে এলাকার কিছু সন্ত্রাসী আমার কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে। আমি তা দিতে না করায় তারা আমার ওপর হামলা করে আমাকে শারীরিকভাবে আঘাত করে। আমাকে প্রকাশ্যে মারধর করেছে স্থানীয়রা আমাকে বাঁচিয়েছে। শুধু তাই নয়, আমাকে ও আমার পরিবারকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে। সন্ত্রাসীরা রড,রামদা দিয়ে আমাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিল।
 
তিনি আরও বলেন, ওই হামলাকারীরা এলাকায় চুরি,নেশা,ছিনতাই,মেয়েদের উত্ত্যক্ত ও নানান অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। আমি তাদের কাজে প্রতিবাদ করায় আমি তাদের শত্রুতে পরিণত হই। এরপর হামলাকারী আমার পেছনে তাদের পোষা মাস্তানদের লেলিয়ে দিয়ে নানান সময় নানানভাবে উত্যক্ত করে অত্যাচার করে। আমাকে নানানভাবে মেরে ফেলার হুমকী দিচ্ছে বারবার। আমি ও আমার পরিবার এখন খুবই অনিরাপত্তায় ভুগছি।
 
সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে তৃষা লিখেছেন, মেয়ে হয়েছি বলে কী পরিবারের আত্নীয়স্বজন থেকে শুরু করে বাইরের যে কেউই মেরে চলে যাবে!মেয়ে হয়েছি তাই প্রতিবাদ করার অধিকার থাকবে না! একোন সমাজ! আজ যারা বলছে মামা তার ভাগনিকে মেরেছে। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি কখন একটা পারিবারিক ঘটনা থানায় যায়? কখন একজন মেয়ে অনিরাপত্তায় ভুগে আইনের আশ্রয় নেয়? প্রশ্ন করেন নিজেকে! পারিবারিক ঘটনায় থাকলে তো পারিবারিকভাবেই সমাধান হতো। আজকাল একজন বাবার কাছেও অনেক মেয়ে সেফ না। এরকম ঘটনা প্রতিদিন পড়ছি।
 
তিনি বলেন, জীবনে কারো কোন ক্ষতি করিনি,অন্যায়ভাবে কিছু অর্জন করেনি এবং অন্যায়ের সাথে আপোসও করিনি। তাই হয়ত আজ এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছি। তাও হয়ত মেয়ে বলেই। কোথায় আছে তার মামা,চাচা বা ভাই মাঝ রাস্তায় লাথি কিল ঘুষি গাছ বাঁশ নিয়ে একজন প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ের গায়ে হাত তোলে? তাতেও শেষ না রড় আর রামদা নিয়ে মেরে ফেলতে চায়! পরিবারসমেত মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে যায় প্রতিনিয়ত! অন্যায়কারী বাবা চাচা মামা যেই হোক না কেন অন্যায়কারী অন্যায়কারীই।
 
তৃষা বলেন, 'আমি বাধ্য হয়েই আইনের আশ্রয় নিয়েছি। একজন দেশের সচেতন নাগরিক হিসেবে বিচার চাওয়া আমার অধিকার এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা আমার নৈতিক দায়িত্ব সে বাবা হলেও।
 
কক্সবাজার এলাকার চকরিয়া থানায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন তৃষা। মূল হামলাকারীর নাম মিজানুর রহমান। তিনি শামীম কনস্ট্রাকশনের ঠিকাদার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা