kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

'আমার বয়ফ্রেন্ড চূড়ান্ত লেভেলের লাকি হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'আমার বয়ফ্রেন্ড চূড়ান্ত লেভেলের লাকি হবে'

স্বস্তিকা দত্ত একজন ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। 'পারব না আমি ছাড়তে তোকে' চলচ্চিত্রে বনি সেনগুপ্তের এবং কৌশানী মুখোপাধ্যায় বিপরীতে অভিনয়ের মাধ্যেমে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন ২০১৫ সালে। রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটি বিরাট সাফল‍্য পায় দর্শক মহলে। ধীরে ধীরে সুবাস ছড়াতে থাকেন এই অভিনেত্রী। টিনএজে বর্ণিল জগতে পা রাখা এই অভিনেত্রী কথা বললেন নিজের ফেম, কাজ ও জীবন যাপন সম্পর্কে।  

স্বস্তিকা বলেন, এখনও সেভাবে ফেমটা আসেনি। এখনও আমি মানুষের সঙ্গে কীভাবে মিশতে হয় সেটা শিখছি। অনেক না হলেও কয়েকটা কাজ তো করেছি ইন্ডাস্ট্রিতে। আমার মনে হয়, আমাকে মানুষ খুব ভালোবাসছে, কিন্তু ফেম সেভাবে আসেনি। তবে আমি কোনওদিন ‘ফেম’ শব্দটা ব্যবহার করব না, ‘ভালোবাসা’ শব্দটা ব্যবহার করব। একটু একটু প্রবলেম হয় যখন মানুষ খুব বেশি ভালবাসতে শুরু করে দেয়। মাঝে মাঝে হ্যান্ডল করা একটু শক্ত হয়ে যায়। কিন্তু ওই... ট্যাকলিং ইজ পার্ট অফ মাই ওয়র্ক সো আই হ্যাভ টু ট্যাকল।

মানুষ ভালোবাসে বললেন, আমার সবকিছু হলো মা, তার পরে বাবা। আমি খুব মিস করে ওদের সঙ্গে নিউ মার্কেটে, এসপ্ল্যানেডে শপিং করতে যাওয়াটা। লাস্ট মাসের ঘটনা, মা আমাকে বলেছিল তুই যাস না। লোক চিনবে। আমি বললাম যে চিনবে তো চিনবে, আমারও পার্সোনাল লাইফ আছে। আমি খুব স্ট্রিট হপিং করতে ভালোবাসি।

‘পারব না আমি ছাড়তে তোকে’, ‘অভিমান’ বা ‘হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা’-তে খুব সুন্দর চরিত্র ছিল স্বস্তিকার। কিন্তু সাপোর্টিং লিড ছিল। আর টেলিভিশনে এখন তিনি প্রোটাগনিস্ট। স্বস্তিকা বলেন, আমার মনে হয় যে, ফিল্ম আমাকে ইন্ডাস্ট্রিতে আসতে সাহায্য করেছে আর ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে কীভাবে টিকিয়ে রাখতে হয়, সেটা টেলিভিশন আমাকে শেখাচ্ছে। দুটো আলাদা জগৎ। ‘পারব না আমি ছাড়তে তোকে’ বা ‘হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা’-তে আমি সেকেন্ড লিড করেছিলাম। ‘অভিমান’-এও খুব ভাল একটা চরিত্র ছিল। কিন্তু এটা ঠিক যে, টেলিভিশন আমাকে সেই সুযোগটা দিয়েছে যেটা আমার দরকার ছিল। 

স্বস্তিকা নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বলেন, আমার বয়ফ্রেন্ডের বয়স ৪৩। আমার বয়ফ্রেন্ড প্রত্যেক ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে এখনও আমি যখন ঘুম থেকে উঠি, তখন আমার জন্য চকোলেট আর বেলুন সাজিয়ে। বাবার কথাই বলছিলেন স্বস্তিকা। পরে সুর পরিবর্তন করে বলেন , প্রচুর প্রেম করেছি স্কুল লাইফে, কলেজ লাইফে। কিন্তু ঠিক আমাকে সামলানোর মতো না, আমি আমার বাবার পরে কাউকে খুঁজে পাই না। 

স্বস্তিকা বলেন, আমি চাই আমার বয়ফ্রেন্ড খুব ফাদারলি হোক।  এমন একজন, যে আমাকে শাসন করবে। আমার ওই ন্যাকামি জিনিসটা পছন্দ হয় না। আমি  রিকোয়েস্ট করব যদি আমার জন্য একজন বয়ফ্রেন্ড খুঁজে দেয় খুব ভাল হয়। আমি ছোট থেকে খুব প্যাম্পার্ড সিঙ্গল চাইল্ড। কিন্তু আমিও খুব কেয়ারিং। বুঝতেই পারছ, যে আমার বয়ফ্রেন্ড যে হবে সে চূড়ান্ত লেভেলে লাকি হবে। কিন্তু আমি চাই শ্যুটিং শেষ হলে একটু লং ড্রাইভে যাব, একটু আইসক্রিম খাব... চাহিদা অল্প, খুঁজে যাচ্ছি এখনও।'

মন্তব্য