kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

এলআরবি থেকে বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি, যা বলছেন ভক্তরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ১৫:০১ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এলআরবি থেকে বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি, যা বলছেন ভক্তরা

আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের অনুরোধেই ব্যান্ডের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। বাচ্চু পরিবারের অনুরোধের কারণেই ব্যান্ড দলের সদস্যরা এলআরবি নামটি আর ব্যবহার করবে না। বিষয়টি জানিয়েছেন এলআরবির ম্যানেজার শামীম আহমেদ।

শামীম সোমবার দুপুরে কালের কণ্ঠকে বলেন, আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার চাইছে না এলআরবি নামটা আর কন্টিনিউ করুক। যেহেতু পরিবারের আপত্তি রয়েছে সেহেতু আমরা ভিন্ন চিন্তা করছিলাম। অবশেষে পুরো লাইন আপসহ নতুন নামে যাত্রা শুরু করছি।

তবে এলআরবি'র ভক্তরা বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না। সাইফুল ইসলাম নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, 'আইয়ুব বাচ্চুর খুব কষ্টে গড়া ব্যান্ড এল আর বি। এই ব্যান্ডের সঙ্গে অনেক মানুষের আবেগ যুক্ত। বাচ্চু ভাইয়ের পরিবার ও এল আর বি'র সদস্যদের প্রতি আমার পরামর্শ থাকবে, ব্যান্ডের নাম পাল্টে দেবেন না। আপনারা সময় নিন, চিন্তা করুন। ভুল করবেন না। আপনাদের রুটিরুজির দিক মাথায় রেখে বলছি, ব্যান্ডের নাম পাল্টে দিয়ে আপনারা এগুতে পারবেন না। মানুষ আপনাদের গ্রহণ করবে না। শিল্পীদের অনেক বৈষয়িক লোভ, লালসা ত্যাগ করতে হয়। আশাবাদ, আপনারা বুঝবেন।'

আসাদ নামের একজন বনলেছেন, আগে এলআরবি ভেঙ্গে দিয়ে তারা নতুন ব্যান্ড গঠন করতে পারতো। বালাম এলআরবিতে জয়েন করল। এরপর এলআরবির নামই বদলে গেলো। সেটা কেন মানবে ভক্তরা। 
আরেকটা কথা, এলআরবি যখন লাখ লাখ টাকা কামিয়েছে তখন যেমন ভক্তরা টাকা চাইতে যায়নি তেমনি না খেয়ে থাকলেও খোঁজ নেবে না এটাই স্বাভাবিক। ভক্তরা গান শুনবে, কনসার্ট দেখবে এতেই তারা টাকা পাবে।
আমি হাউকাউয়ের পক্ষে।

আবার বর্তমান সদস্যদের পক্ষে অনেকেই কথা বলছেন। এমনই একজন শশী নামের একজন বলছেন, অনেকেই আবেগের ঠেলায় গালাগালি দেয়। বাচ্চু স্যার আমারও ভীষণ প্রিয় একজন মানুষ ছিলেন কিন্তু তিনি একা তো আর সব দিক সামলাতে পারে না। তার সুনামের পেছনে তার ব্যান্ড সদস্যদেরও অবদান আছে। তিনি নেই বলে তারা তো থেমে থাকতে পারে না, এই সহজ ব্যাপারে মানুষের কেনো এতো আপত্তি? ক্রোধ? সেটাই বুঝি না।

এদিকে মাইলসের ব্যান্ডের হামিন আহমেদ গণমাধ্যমের দিকে তীর ছুঁড়ছেন। তাঁর দাবি গণমাধ্যম এলআরবি ব্যান্ডের সদস্য ও আইয়ুব বাচ্চু পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কলহ তৈরির চেষ্টা করছে। আদতে হামিন আহমেদের এমন দাবির সত্যতা পাওয়া যায়নি। গণমাধ্যম সংবাদ পরিবেশন করছে বর্তমান ব্যান্ডদলের সদস্যদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে। আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না কিংবা কেউ সংবাদের প্রতিবাদও জানাচ্ছে না। 

আইয়ুব বাচ্চু মারা যাওয়ার পর থেকেই এলআরবির ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছিল। সব জল্পনাকল্পনার অবসান ঘটিয়ে ৫ এপ্রিল রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যান্ডটির প্রধান ভোকাল হিসেবে বালামের নাম ঘোষণা করা হয়। কিন্তু নতুন লাইনআপে এলআরবিকে আপাতত পাওয়া যাচ্ছে না! আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের আপত্তির কারণে নামটি বদলে ‘বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি’ রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এলআরবির ম্যানেজার শামীম। আপাতত এ নামেই চলবে ব্যান্ডটি। ১৪ এপ্রিল রাতে নতুন লাইনআপে গানবাংলা টেলিভিশনে একটি অনুষ্ঠানও করেছে তারা।

শামীম বলেন, বাচ্চু ভাইয়ের পরিবার থেকে অনেক দিন ধরেই বলা হচ্ছিল, আমরা যাতে ‘এলআরবি’ নামটা আর ব্যবহার না করি। তাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে অবশেষে নতুন নামে যাত্রা শুরু করেছি।

তবে এখনো আশা ছাড়েননি শামীম। বলেছেন, আমরা বাচ্চু ভাইয়ের পরিবারের সঙ্গে আলাপ চালিয়ে যাব। তারা অনুমতি দিলে আবারও ‘এলআরবি’ নামে ফিরে আসব। তবে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত এ নামেই আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য