kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

'হঠাৎ পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে... শুরু করে পাভেল'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৬:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'হঠাৎ পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে... শুরু করে পাভেল'

মিটু-এর আঁচ এবার টালিগঞ্জেও এসে আছড়ে পড়লো। যৌন নিগ্রহর অভিযোগ উঠেছে 'রসগোল্লা' ছবির পরিচালক পাভেলের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি ফেসবুকের একটি পোস্টকে ঘিরে ছড়ায় চাঞ্চল্য। গত বৃহস্পতিবার টলিউডের এক অভিনেত্রী অনুরূপা চক্রবর্তী একটি পোস্ট দেন ফেসবুকে, সেখানেই তিনি জানান এ কথা। প্রায় তিন বছর আগের এক অভিজ্ঞতার কথা জানান অনুরূপা।

অনুপমার লেখা ওই ফেসবুক পোস্ট অনুযায়ী, বেশ কয়েকবছর আগে অডিশনের সূত্রে আলাপ হয় পাভেলের সঙ্গে, রসগোল্লা ছবির জন্য অভিনেতা অভিনেত্রীর খোঁজ চলছে তখন। সেই সময়ই তাঁকে অনুরূপাকে চূড়ান্ত করেন পাভেল। এরপর প্রায়ই চিত্রনাট্য নিয়ে বসতেন তাঁরা, পাভেলের নাকতলার বাড়িতেও যেতেন অভিনেত্রী। তিনি লিখছেন, 'আমি তখন হতাশায় ভুগছি, তেল মাখা চুল, ঢলা কুর্তি আর মেকআপ ছাড়াই পৌঁছে যাই ওর (পাভেল) বাড়িতে। সেখানেই যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়। ওর আচরণে স্পষ্টই বোঝা গিয়েছিল আমাকে গরীব ঘরের মেয়ে মনে করেছিল পাভেল।' 

অভিনেত্রী আরও লেখেন একদিন হঠাত্ই পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে আমায় চুমু খেতে শুরু করে ও, আমি কোনওক্রমে নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে পালিয়ে আসি সেখান থেকে। অনুরূপার অভিযোগ বিবাহিত জীবন সুখের নয় এমনও দুঃখও প্রকাশ করেন পাভেল, এমনকী তাঁকে বিয়ের প্রস্তাবও দেন বলেও অভিযোগ অনুরূপার।

যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরিচালক পাভেল। তিনি মনে করছেন ছবি মুক্তির আগে তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ আনা হচ্ছে। পাভেলের কথায়, ২০১৬-র ঘটনা যদি হয়ে থাকে তাহলে এতদিন পর কেন বলা হচ্ছে, তখন তো আমায় কেউ চিনত না কাজেই অনায়াসেই অভিযোগ আনা আরও সহজ ছিল। তবে তখন সবাই চুপ থেকে এখন আার ছবির মুক্তির আগেই এসব কথা বলছে। 

এদিকে অনুরূপার কথায় কার্যত ভয় পেয়ে,পরিস্থিতির চাপেই এতদিন মুখ বন্ধ রেখেছিলেন অভিনেত্রী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা