kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

‘বহিরাগত’ নিষেধাজ্ঞায় ধরা পর্যটন ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান   

২৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী ২৮ ডিসেম্বর রাত ১২টা থেকে টানা ৯৬ ঘণ্টা বহিরাগতদের অবস্থানে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় বিপাকে পড়েছেন বান্দরবানের পর্যটন ব্যবসায়ীরা। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় বান্দরবান পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন ২৮ ডিসেম্বর রাত ১২টা থেকে ১ জানুয়ারি রাত ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকার বাইরের সব নাগরিকের বান্দরবান অবস্থানের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

বান্দরবান পৌরসভার  রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবু জাফর স্বাক্ষরিত ২১ ডিসেম্বরের পত্রে আবাসিক হোটেল মালিকদের নির্বাচন কমিশনের জারি করা এ নিষেধাজ্ঞা জানানো হয়। বান্দরবান আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম অভিযোগ করেছেন, রিটার্নিং অফিসারের এই পত্র পেয়ে পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার মাথায় বাজ পড়েছে! তিনি জানান, শীত মৌসুম, কয়েক দিনের টানা ছুটি এবং বর্ষ বিদায় ও নতুন বছরের প্রথম সূর্যোদয় দেখার জন্য প্রতিবছর ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে বান্দরবানে পর্যটকের ঢল নামে। সিরাজুল ইসলাম বলেন, কক্ষ পাওয়া নিশ্চিত করতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনেকেই আগাম টাকা পাঠিয়ে হোটেল, মোটেল ও গেস্ট হাউসগুলোতে বুকিং নিয়ে রেখেছেন।

কিন্তু হঠাৎ করে ২৮ ডিসেম্বর থেকে ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি পর্যন্ত বান্দরবান পৌর এলাকায় বহিরাগত অবস্থানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় অগ্রিম বুকিং নেওয়া পর্যটক এবং বুকিং গ্রহণকারী পর্যটন ব্যবসায়ীরা বেকায়দায় পড়েছেন।

এ ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসার আবু জাফর জানান, এ বিধান শুধু বান্দরবান পৌর এলাকার জন্য নয়। দেশের যেসব পৌরসভায় নির্বাচন হচ্ছে, তার সবগুলোতেই ভোট গ্রহণের দিন, এর পূর্ববর্তী ৪৮ ঘণ্টা এবং ভোটগ্রহণ দিনের পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত ওই নির্বাচনী এলাকায় ভোটার নন, এমন সব নাগরিকই ‘বহিরাগত’ হিসেবে বিবেচিত হবেন। তিনি বলেন, নির্বাচনকে নিরপেক্ষ ও প্রভাবমুক্ত রাখতে নির্বাচন কমিশন আইনে বর্ণিত সময়কালে সব নির্বাচনী এলাকায় ‘বহিরাগত’ অবস্থান নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

রিটার্নিং অফিসার বলেন, পর্যটন মৌসুম হওয়ায় এই নিষেধাজ্ঞার কারণে দেশের অন্য এলাকার চেয়ে পর্যটন সম্ভাবনাময় বান্দরবান এলাকা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার বিষয়টি ভেবে দেখা হবে। তবে এই নিষেধাজ্ঞার ফলে বান্দরবান পৌর এলাকার বাইরের হোটেল, মোটেল ও রিসোর্ট ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।

এদিকে স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, বহিরাগত অবস্থানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় শুধু আবাসিক হোটেল ব্যবসায়ীরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। খাবার দোকান, যানবাহন ব্যবসায়ী ও চালকরাও ক্ষতির মুখে পড়বেন।

মন্তব্য