kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

মির্জাপুর উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

৩১ মার্চ, ২০১৯ ২০:০৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মির্জাপুর উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম। মির্জাপুর পৌর এলাকার কান্ঠালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে গিয়ে কেন্দ্রটিতে মাত্র ১৫২টি ভোট কাস্ট হতে দেখা গেছে। অথচ কেন্দ্রটিতে ভোটারের সংখ্যা ৩ হাজার ১৭৮টি। সে সময়ে এলাকার হিন্দু অধ্যুষিত ঐতিহ্যবাহী এই বিদ্যায়টিতে দুই একজন নারী ভোটার ছাড়া কোনো পুরুষ ভোটারকেই দেখা যায়নি।

একইভাবে ১০টা ৫৪ মিনিটে উপজেলার উয়ার্শী ইউনিয়নের বন্দ্য কাওয়ালজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২ হাজার ৯৬৫ ভোটের মধ্যে ৭০০, ১২টা ৪০ মিনিটে মৈশামূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১ হাজার ৫১৬টি ভোটের মধ্যে ২৫০ ভোট, ১টা ১৫ মিনিটে বানাইল ইউনিয়নের শুক্তা সাহাদত আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২ হাজার ৭২৫ ভোটের মধ্যে ২৪৭ ভোট, ১টা ৫০মিনিটে আনাইতারা ইউনিয়নের আটিয়া মামুদপুর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩ হাজার ৪৮১ ভোটের মধ্যে ৭১৫ ভোট, ২টা ৩৫ মিনিটে বানাইল ইউনিয়নের ২ হাজার ২৯৭টি ভোটের মধ্যে ১ হাজার ৭৩ ভোট, ২টা ৫৩ মিনিটে কুড়ালিয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২ হাজার ২২৯ ভোটের মধ্যে ৫৬১ ভোট কাস্ট হয়েছে।

উয়ার্শী, আনাইতারা ও বানাইল ইউনিয়নের ১০টি ভোটকেন্দ্র ঘুরে ভোটের চিত্র প্রায় একইরকম পাওয়া যায়। উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নের ১২০ কেন্দ্রে একই চিত্র বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। 

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে কর্তব্যরত একাধিক কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, ভোটের এ গতিধারা তাদের হতাশ করেছে। তাদের অধিকাংশ সময় অলস কাটাতে হয়েছে। তারা বলেন, কাজ করতে এসে অলস সময় কাটাতে ভালো লাগে না।

নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি এতটা কমের কারণ বলতে গিয়ে অবসরপ্রাপ্ত কয়েকজন শিক্ষক কালের কণ্ঠকে বলেন, নির্বাচনের প্রতি ভোটারদের আস্থা কমে গেছে। ভোটাররা এখন আর কেন্দ্রে যেতে চায় না।

তবে ভোট চলাকালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে থাকা ৬টি ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রট, বিজিবি সদস্যদের সর্বক্ষণ মাঠে বেশ তৎপর থাকতে দেখা গেছে। এ ছাড়া ১২০টি কেন্দ্রে পাঁচ শতাধিক পুলিশ ও ১ হাজার ৩৪০ জন আনসার সদস্যরাও বেশ তৎপর ছিল। উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন করতে ১২০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মির্জাপুর উপজেলায় ৩ লাখ ২২ হাজার ৮৯৮ জন ভোটার রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কেন্দ্রীয় বিএনপি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি সমর্থিত নেতাকর্মীদের ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। এ কারণে এ উপজেলার বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকরা ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম বলে সাধারণ ভোটাররা জানিয়েছেন। 

মন্তব্য